ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম

0
1304

السلام عليكم সবাই আগাম ঈদের  শুভেচ্ছা জানিয়ে আমার পোস্ট টি শুরু করছি

* ঈদের নামায বছরে পড়তে হয় বৎসরে মাত্র দুইবার, ফলে অনেকেই এর নিয়মকানুন একটু গুলিয়ে ফেলেন। ফলে নামাযের মধ্যেই এদিক সেদিক তাকা তাকি করেন অনেকেই। যার ফলে নামায ভেঙ্গে যাবে। অনেকেই কখন হাত বাঁধবেন, কখন হাত না বেঁধে ছেড়ে দেবেন এটা নিয়ে খুব চিন্তিত থাকেন, এমনকি অনেকে একবার ডানপাশের লোকেরটা অনুসরণ করেন আরেকবার বামপাশের লোকেরটা অনুসরণ করেন। অথচ বিষয়টা খুবই সহজ।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

eid_jamat_chittagong_1024 ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম

নামাযের শুরুতে আমরা যে তাকবির দেই (আল্লাহু আকবার বলি) তাকে তাকবিরে তাহরিমা বা প্রথম তাকবির বলা হয়। যে কোন নামাযে এই তাকবির দেওয়া ফরয। ঈদের নামযে এই তাকবির এবং অন্যান্য সাধারণ তাকবিরের সাথে অতিরিক্ত ৬টি তাকবির দিতে হয়।

প্রথম রাকাতে অতিরিক্ত ৩ তাকবির (ছানা পড়ার পর)

দ্বিতীয় রাকাতে অতিরিক্ত ৩ তাকবির (সূরা ফাতিহা + অন্য সূরা পড়ার পর)

মনে রাখার বিষয় হলো:

১. যে তাকবিরের পরে সূরা/ছানা পড়তে হয় সেই তাকবিরের পর হাত বাঁধতে হয়।

২. যে তাকবিরের পরে সূরা/ছানা পড়তে হয় না, সেই তাকবিরের পর হাত বাঁধতে হয় না।

এই দুইটা বিষয় মনে রাখলে হাত বাঁধা বা ছাড়া নিয়ে কোন সমস্যা আর থাকবে না। আসুন একটু বিস্তারিতভাবে দেখি:

চার্টটি পিকচার হিসেবে দেখতে এই লিঙ্কে যান>

পুরু পোস্টটি ফেসবুক নোট হিসেবে দেখতে এই লিঙ্কে যান>

১ম রাকাত ->

  1. তাকবিরে তাহরিমা (১ম তাকবির)।
  2. হাত বাঁধা (কারণ এর পর ছানা পড়তে হবে)।
  3. ছানা পড়া।
  4. ১ম অতিরিক্ত তাকবির দেওয়া।
  5. হাত ছেড়ে দেওয়া (কেননা এরপরে তো আর কোন সূরা পড়া হচ্ছে না)।
  6. ২য় অতিরিক্ত তাকবির দেওয়া।
  7. হাত ছেড়ে দেওয়া (কেননা এরপরে তো আর কোন সূরা পড়া হচ্ছে না)।
  8. ৩য় অতিরিক্ত তাকবির দেওয়া।
  9. হাত বেঁধে ফেলা (কারণ এর পর সূরা পড়া হবে)।
  10. সূরা ফাতিহা + অন্য সূরা মিলানো।
  11. তাকবির দেওয়া।
  12. রুকু করা।
  13. রুকু থেকে দাঁড়ানো।
  14. সিজদায় যাওয়া।
  15. ২টি সিজদা করা।
  16. তাকবির দেওয়া (২য় রাকাতের জন্য)।

২য় রাকাত ->

  1. হাত বেঁধে দাঁড়ানো।
  2. সূরা ফাতিহা + অন্য সূরা মিলানো।
  3. ৪র্থ অতিরিক্ত তাকবির দেওয়া।
  4. হাত ছেড়ে দেওয়া (কেননা এরপরে তো আর কোন সূরা পড়া হচ্ছে না)।
  5. ৫ম অতিরিক্ত তাকবির দেওয়া।
  6. হাত ছেড়ে দেওয়া (কেননা এরপরে তো আর কোন সূরা পড়া হচ্ছে না)।
  7. ৬ষ্ঠ অতিরিক্ত তাকবির দেওয়া।
  8. হাত না বাঁধা (কেননা এরপরে তো আর কোন সূরা পড়া হচ্ছে না, রুকুতে যেতে হচ্ছে)।
  9. রুকু করা।
  10. রুকু থেকে দাঁড়ানো।
  11. সিজদায় যাওয়া।
  12. ২টি সিজদা করা।
  13. শেষ বৈঠক + সালাম ফিরানো।

বি:দ্র:উপরোক্ত নিয়মে কোন ভুল থাকলে আমাকে জানানোর জন্য অনুরুধ করা গেল।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

eleven + 1 =