আজ আমি আপনাদের অপূর্ব এক সফটওয়্যার সম্পর্কে জানাবো

7
429
আজ আমি আপনাদের অপূর্ব এক সফটওয়্যার সম্পর্কে জানাবো

ওয়েস্ট লাইফ

বয়স অনেক কম কিন্তু টেকনোলোজিকে অনেক অনেক ভালোবাসি। আমার ঘরে প্রযুক্তি সম্পর্কিত যন্ত্রসমুহ যেমন আইপ্যাড, আইপড, আইফোন, Play Station 3, ল্যাপটপ, ডেস্কটপ, Xbox ইত্যাদি প্রায় সবই আছে। আমার ইউজারনেম কেন তা আপনারা নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন। কারণ আমি জনপ্রিয় হলিউড ব্যান্ড এর মস্ত বড় ফ্যান। আমি টিউনার পেজে আমার জানা সবকিছু শেয়ার করার চেষ্টা করব। আপনাদের সকলের সাথে প্রযুক্তির যাত্রা শেষ হবে না যতদিন পর্যন্ত আপনারা আমাকে সাপর্ট করবেন। আমি বেশিরভাগ সময় লেখাপড়া নিয়ে ব্যস্ত থাকি তাই চেষ্টা করব যতটা সম্ভব টিউনার পেজের সাথে থাকার।
আজ আমি আপনাদের অপূর্ব এক সফটওয়্যার সম্পর্কে জানাবো

 

আমরা সবাই যারা কম্পিউটার ব্যবহার করি তারা সবাই নিশ্চয় হার্ড ডিস্ক, পার্টিশন, ড্রাইভ ইত্যাদি সম্পর্কে জানি । প্রতিবার উইন্ডোজ সেট আপ দেয়ার সময় বিভিন্ন ডিস্ক ড্রাইভ যেমনঃ C, D, E, F, G… ইত্যাদি তৈরি করা হয়। প্রতিটি ড্রাইভে নির্দিষ্ট পরিমান জায়গা রেখে এই কাজ করতে হয় ।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

 

আজ আমি আপনাদের অপূর্ব এক সফটওয়্যার সম্পর্কে জানাবো

 

কিন্তু প্রতিবার আমাদের এভাবে উইন্ডোজ সেট আপ দেয়া সম্ভব নয় । তাই এমন একটি সফটওয়্যার দরকার যা দিয়ে সহজেই কাজ করা যায়।

AOEMI Partition Manager হল এমনই এক সফটওয়্যার যা দিয়ে ডিস্ক ড্রাইভ ফরম্যাট,সাইজ বাড়ানো বা কমানো,নতুন ড্রাইভ সেট আপ দেয়া,ড্রাইভ কপি করা ইত্যাদি কাজ অতি সহজে করা যায়। এটি একটি ছোট্ট সাইজ এর সফটওয়্যার মাত্র ৩.৪৩ এমবি.। এই সফটওয়্যার প্রায় সকল উইন্ডোজ সিস্টেম এ সাপোর্ট করে। সফটওয়্যার চালাতে অন্য কোন সফটওয়্যার লাগবে না ।
সফটওয়্যার টি ডাউনলোড দিয়ে সেটআপ দিন । সফটওয়্যারটি সেটআপ এবং ব্যাবহার করা খুব কঠিন কাজ নয় । আপনার খুব বেশি কিছু জানতে হবে না। শুধু সেটআপ দিতে আর সামান্য ইংরেজি জানলেই সম্ভব । সফটওয়্যার টি নতুন আর পুরাতন ব্যবহারকারী সবার কাছেই একি রকম । সুন্দরভাবে সহজ ভাষায় ডিস্ক ম্যানেজমেন্ট সম্পর্কে দেয়া আছে ।

সফটওয়্যার সেটআপ দেয়ার পর নিচের মত স্ক্রীন আসবে । স্ক্রীন এর বাম পাশে পার্টিশন রিসাইজ,সরান,ছোট করা,ডিস্ক লেবেল পরিবর্তন,ফাকা স্থান দূর,পার্টিশন ডিলিট ইত্যাদি দেয়া আছে ।

এখানে ডান পাশে আপনার কম্পিউটার এর সব ড্রাইভ এর বিবরন পাওয়া যাবে ।

 

আজ আমি আপনাদের অপূর্ব এক সফটওয়্যার সম্পর্কে জানাবো

 

ধরুন , আপনি D ড্রাইভ এর সাইজ ছোট করে E ড্রাইভ এর সাইজ বাড়াবেন । তবে D ড্রাইভ এর উপর মাউস নিয়ে মাউসের ডান পাশে ক্লিক করলে চিত্রের মত কিছু অপশন আসবে । এরপর অপশনগুলো থেকে Resize Partition এ ক্লিক করে ইচ্ছেমত ড্রাইভ সাইজ কমাতে পারবেন ।

 

আজ আমি আপনাদের অপূর্ব এক সফটওয়্যার সম্পর্কে জানাবো

 

এরপর একটি Unallocated Space বা ড্রাইভ থাকবে যার কোন লেবেল থাকবে না । এরপর E ড্রাইভ সিলেক্ট করে মাউস এ রাইট ক্লিক করে Merge Partition সিলেক্ট করুন । এরপর একটি বক্স আসবে । এরপর Unallocated Space এবং E ড্রাইভ দুইটা ড্রাইভ এর পাশে ক্লিক করে টিক চিহ্ন দিন এবং বাকিগুলো ডিসিলেক্ট করুন । তারপর ওকে করুন ।

এবার বাম পাশে উপরে লক্ষ করুন। দেখবেন Apply লেখা আছে । Apply করে ওকে করলে আপনার কাজ শেষ হয়ে যাবে। এরপর আপনার কম্পিউটার রিস্টার্ট নেবে । তারপর কয়েকটি ধাপে কাজ চলবে, যা সফটওয়্যার নিজেই করবে। পরবর্তীতে কম্পিউটার চালু করলে দেখবেন কাঙ্ক্ষিত কাজ হয়ে গেছে।

এভাবে এই সফটওয়্যার দিয়ে পার্টিশন তথা ডিস্ক ম্যানেজমেন্ট করতে পারবেন । 

সফটওয়ারটি ডাউনলোড করুন

 
টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

7 মন্তব্য

  1. ভাই আমি যদি c ড্রাইভ ফরমেট দিয়ে কিভাবে আবার নিউ windows সেটআপ দিতে পারব? c ড্রাইভ ফরমেট দিলে কি windows missing হবে নাকি? please হেল্প করেন /

    • শুধু আপনার কাছে থাকলে কি হবে, অনেকের কাছেই নেই। আর আপনার কাছে যেটা আছে সেটা শুক্তশালী না সেটা ডিফল্ট সেজন্যই তো এই সফটওয়্যার দিয়েছি। নাহলে আমার পিসিতেও এরকম একটা ডিফল্ট আছে কিন্তু আমি এটা ব্যবহার করি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

14 − eleven =