জিমেইলে বেশি একাউন্টের দরকার??? মোবাইল নাম্বার কোন সমস্যাই নয়। এখানে দেখুন।

14
3496

কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই ভাল আছেন। অনেক দিন পর আবার লিখতে বসলাম। অনেকেই হয়ত জিমেইলে একাউন্ট খোলা নিয়ে ঝামেলায় পড়েন, মোবাইল ফোন নাম্বার ভেরিফিকেশনের ঝামেলা। জিমেইল তাদের ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা দান আর ওয়েবে তাদের নিজস্ব ব্যবহারকারীদের সঠিক তথ্য রাখার জন্য মোবাইল ভেরিফিকেশনকেই বেছে নিয়েছে। যাই হোক বাংলাদেশে আইন থাকা সত্তেও যে যেখানে সেখানে মোবাইলের সংযোগ বিক্রী হয় তা হয়ত গুগোলের জানা নেই। জানা থাক আর না-ই থাক আমরা জানি।

কিন্তু সবাই তো ততোধিক সিম ব্যবহার করেন না। আপনি হয়ত আগে থেকেই জানেন একটা নাম্বার দিয়ে ৩ টির মত এ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করা যায়। আর এরপরেও যদি আপনি ওই একই নাম্বার দিয়ে অন্য কোন এ্যাকাউন্ট ভেরিফাই করেণ তবে আগের যেকোন একটি একাউন্টের মোবাইল ভেরিফিকেশন ইনভ্যালিড হয়ে যায়।

তাহলে যদি কোন কারণে আপনার ৩ এর বেশি জিমেইল এ্যাকাউন্টের দরকার তাহলে উপায়? হ্যা উপায় আছে আগে যেমন ধরেন এ্যাকাউন্ট খুললেন আর ডাইরেক্ট আপনাকে আপনার এ্যাকাউন্টের প্রবেশাধিকার দিয়ে দিল গুগোল কেমন হবে? যাক এবার এই সব কথা বাদ দেই আর খুব সর্টকাটে বলি এটি কেমন করে করবেন। (প্রথমেই বলে দিচ্ছি আজ আমি কোন স্ক্রীনসট দিচ্ছি না কারণ খুব সহজ ভাবেই লিখছি নিজে চেষ্টা করে দেখবেন)

তাহলে মুল বিষয়ে আসছিঃ

  • ১. প্রথমেই জিমেইলে যান (এখানে ক্লিক করুন যদি এখনি খুলতে চান একটি নতুন এ্যাকাউন্ট)
  • ২. Create an Account এ ক্লিক করুন।
  • ৩. এ্যাকাউন্ট ফর্ম পুরোনের সময় এমন নাম ব্যবহার করুন যা অনন্য। (যেমন first name: Ylamiqrpo last name: Iqhypil) অর্থাৎ এমন কোন নাম যা আগে হয়ত কেউ ব্যবহার করেনি। তবে স্পেসাল ক্যারেক্টর ব্যবহার করবেননা।
  • ৪. প্রতিক্ষেত্রে অনন্য(unique) পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। যতটা সম্ভব কঠিন পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। স্পেসাল ক্যারেক্টার পাসওয়ার্ডে ব্যবহার করুন। (এধরণের ,।;:’`~$%<>!@><^_-)
  • ৫. সিকিউরিটি প্রশ্ন নিজে বানিয়ে উত্তর দিন। এক্ষেত্রেও অনন্য (unique) প্রশ্ন ও উত্তর লিখুন।
  • ৬. রিকভারী ইমেইল দিবেননা।
  • ৭. লোকেশন হিসেবে United States ব্যবহার করুন।
  • ৮. ক্যাপ্টচা ঠিক মত বসিয়ে I accept. Create My Account এ ক্লিক করুন।

আশাকরি ঠিক মত করতে পারলে আপনি সরাসরি ওয়েল কাম পেজে যেতে পারবেন। এবার আসি যদি তা না করতে পারেন তবে কি করবেন।

একটা ইউ এস এ-র মোবাইল নাম্বার নিলে কেমন হয়? এই সাইটে যান আর আপনার বর্তমান যেকোন একটি ইমেইল ব্যবহার করে ফ্রী একাউন্ট খুলুন। এরপর আপনি সাথে সাথে একটি নাম্বার পাবেন। যা আপনার একটি ভার্চুয়াল নাম্বার যার মালিক আপনি নিজেই। এরপর প্রয়োজন মাফিক মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশনের সময় ওই নাম্বার ব্যবহার করুন আর মনে রাখবেন অবশ্যই ভয়েস কলের মাধ্যমে ভেরিফাই করবেন। ভুলেও এসএমএস এর মাধ্যমে করার চেষ্টা করবেন না।

আপনার ভেরিফিকেশন কলটি আপনার ওই ভার্চুয়াল নাম্বারের মেইল বক্স-এ জমা হবে যা কিছুক্ষনের মধ্যেই আপনার রেজিস্টার কৃত ইমেইল এ্যাড্রেসে মেইল আকারে পাঠানো হবে। তাহলে এখনি নিয়ে নিন আপনার ভার্চুয়াল নাম্বার। আজ আর কিছু লেখার মত দেখছি না। আশা করি আপনাদের কাজে লাগবে।মন্দ লাগলে গঠন মূলক সমালোচনা আশা করছি। ধন্যবাদ সবাইকে।

14 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ