ফ্রিল্যান্সিং ও আউটসোর্সিং বিড়ম্বনা!

0
96

ফ্রিল্যান্সিং কি?

বর্তমান সময়ে আমাদের দেশে তরুণদের কাছে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় ‘ফ্রিল্যান্সিং’। ফ্রিল্যান্সিং এর বাংলা অর্থ হচ্ছে মুক্তভাবে কাজ করা। অনেকেই প্রশ্ন করে থাকেন, ফ্রিল্যান্সিং কি অনলাইনে করতে হয়? আরে ভাই, না। শুনুন তাহলে। মনে করুন, আপনি একজন ইলেক্ট্রিশিয়ান। আপনি নতুন নির্মিত বিভিন্ন কোম্পানীর বিল্ডিংয়ের ওয়ারিং করেন চুক্তিতে বা মানুষের বাসায় গিয়েও ইলেক্ট্রিক কাজ করে থাকেন। এমনিভাবে, কোন ইঞ্জিনিয়ার, ডিজাইনার স্বাধীনভাবে যেকোন জায়গায় কাজ করার প্রক্রিয়াকে ফ্রিল্যান্সিং বলে। আর যারা এভাবে কাজ করেনা তাদেরকে ফ্রিল্যান্সার বলে। ফ্রিল্যান্সার

 

আউটসোর্সিং কি?

আউটসোর্সিং এর বাংলা অর্থ হচ্ছে অন্য উপায়ে কাজ করানো। নতুনরা ফ্রিল্যান্সিং এবং আউটসোর্সিং এর মধ্যকার পার্থক্যটা ধরতে অসুবিধায় পড়ে যান। যেমন, কোন কন্ট্রাকটার কাজের কন্ট্রাক নিয়ে মিস্ত্রি বা শ্রমিক দিয়ে কাজ করিয়ে দেন। তেমনি মার্কেটপ্লেসে যারা আছেন সবাই তো কাজ পারেন না। অতএব তারা আউটসোর্সিং করেন। মানে ফ্রিল্যান্সারদের দিয়ে কাজ করিয়ে নেন।

 

অনলাইনে ইনকাম করা যায়?
বর্তমানে যুগ, তথ্য প্রযুক্তির যুগ। আমরা আগে যে কাজ ছোট্ট একটি গ্রামে সম্পাদন করতে পারতাম। আজ তা ইন্টারনেটের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী করতে পারছি। যেমন কোন টি-শার্ট বিক্রেতা শুধু তার দোকানেই নয় অনলাইনেও এখন টি-শার্ট বিক্রি করতে পারছে। ইন্টারনেট বিশ্বটাকে বিশ্বগ্রামে পরিণত করেছে। আর দ্বার খুলেছে মাল্টি বিলিয়ন ডলার বিশাল বাজারের।

বাস্তব জগতে আমরা কিছু করতে না পারলেও ভার্চুয়াল জগতে পড়ালেখা শেষে বা পড়ালেখার পাশাপাশি অনেকেই তাদের ভবিষ্যৎ ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবি। সবার মাথায় একটাই টেনশন, কিভাবে অনলাইনে ইনকাম করা যায়!

আরে ভাই থামেন! অনলাইনে ইনকাম করা যায় ব্যাপারটা এমন না। বরং অনলাইনে যেকোন একটা কাজ করে ইনকাম করতে হয়। যেমন আপনি ভালো লিখতে পারেন, তাহলে ব্লগ খুলে লেখালেখি শুরু করুন। জনপ্রিয় হয়ে গেলে বিজ্ঞাপন বসিয়ে ইনকাম করুন। আপনি গ্রাফিক্স ডিজাইন পারেন, হুম আসুন অনলাইনের মাধ্যমে আপনি বিদেশী কোম্পানী বা ব্যক্তির সাথে কাজ করতে পারবেন।

 

অনলাইনে কি সব কাজ করা যায়?
কখনই না। আপনি ভালো রান্না করতে পারেন, তার মানে এ নয় যে, অনলাইনে রান্না করবেন। আবার আপনি ভালো একজন টেইলর। আপনি অনেক সুন্দর করে কাপড় সেলাই করতে পারেন। তার মানে এই নয় আপনি অনলাইনে সেলাই করবেন।

তবে হ্যা, ভালো খাবার রান্না করে অনলাইনের মাধ্যমে সারাদেশে বিক্রি করতে পারবেন। আর ভালো ভালো জামা কাপড় বানিয়েও এটা করতে পারবেন। এখানেই ইন্টারনেটের স্বার্থকতা।

 

তাহলে অনলাইনভিত্তিক কাজ কি কি?

ভার্চুয়াল যা কিছু আছে এসবের কাজ অনলাইনে করা যায়। অনলাইন ভিত্তিক কিছু কাজ এখানে ‍উল্লেখ করা হলো-

* Web, Mobile & Software Dev
* Design & Creative
* Admin Support
* IT & Networking
* Writing
* Sales & Marketing
* Customer Service
* Data Science & Analytics
* Translation
* Engineering & Architecture
* Legal
* Accounting & Consulting

ভয় পেয়ে গেলেন? এগুলো জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেস আপওয়ার্ক থেকে নেয়া। আমাদের দেশে জনপ্রিয় কয়েকটি কাজ আছে। যেগুলো শিখে অনেকেই সফলত হতে পেরেছেন। চাইলে আপনিও আপনার পছন্দ মতো এর যেকোন একটা শিখে ক্যারিয়ার গড়তে পারেন।

১. ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট

২. গ্রাফিক্স ডিজাইন

৩. সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন

৪. এন্ড্রয়েড, আইওএস এ্যাপ ডেভেলপমেন্ট

৫. সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট এন্ড প্রোগ্রামিং

৬. ইউটিউব মার্কেটিং

৭. সিপিএ বা এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং

৮. ভিডিও এডিটিং

৯. ফরেক্স (জনপ্রিয় কিন্তু ৯০% লোক ব্যর্থ হয়)

এগুলো ছাড়াও প্রেজেন্টেশন, মাল্টিমিডিয়া, ইলাস্ট্রেশন, কার্টুন, পেইন্টিং, স্কাল্পটিং, বিজ্ঞাপন, জনসংযোগ, ইঞ্জিনিয়ারিং, ক্যাড, আর্কিটেকচার, নেটওয়ার্কিং, হার্ডওয়ার ডেভেলপ, লিগ্যাল সার্ভিস, ফ্যাশন ডিজাইন, ইন্টেরিয়র ডিজাইন, ল্যান্ডস্কেপ ডিজাইন, ফটোগ্রাফি, এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং, কাস্টমার রিলেশনশিপ ম্যানেজমেন্ট ইমপ্লিমেন্টেশন, প্রোগ্রামিং, ডাটাবেজ, লেখা, সম্পাদনা, অনুবাদ, টেলিমার্কেটিং, স্ট্র্যাটেজি কনসাল্টিং, ভিডিওগ্রাফি, ডকুমেন্টারি, ফিন্যান্স অ্যান্ড অ্যাকাউন্টিং, ব্রডকাস্টিং, মিউজিক তৈরির মতো কাজও আপনি পেতে পারেন।

এখন থেকেই ভাবা শুরু করে দিন আপনি কোন কাজ শিখবেন, কেন শিখবেন। আজ এ পর্যন্তই। পরবর্তীতে আরো কিছু নিয়ে আসবো। ধন্যবাদ সাথেই থাকবেন।

 

আর হ্যা, যারা ওয়েব ডিজাইন এন্ড ডেভেলপমেন্ট অথবা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) শিখতে চান তাদের জন্য একটা সুখবর আছে ফেসবুক পেজে।

ফাহিম ইকবাল (সার্ফ-আইটি )
পেজ :  https://www.facebook.com/Surf.IT.BD
গ্রুপ : https://www.facebook.com/groups/Surf.It