ব্লগের এলেক্সা র‍্যাংক কমাতে কিছু গুরুত্যপূর্ণ ট্রিকস

7
466
ব্লগের এলেক্সা র‍্যাংক কমাতে কিছু গুরুত্যপূর্ণ ট্রিকস

রিকন

আমি একজন ফ্রিল্যান্সার। নিজেকে প্রতিদিন আরো নতুন ভাবে আবিষ্কার করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সিং বাজারে একদিন সবার উপরে থাকবে সেই সপ্ন নিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছি। ব্লগ লিখতে পছন্দ করি এবং শিখাতে ভালবাসি নতুন ফ্রিল্যান্সারদের।
ব্লগের এলেক্সা র‍্যাংক কমাতে কিছু গুরুত্যপূর্ণ ট্রিকস
 ব্লগের এলেক্সা র‍্যাংক কমাতে কিছু গুরুত্যপূর্ণ ট্রিকসআস্‌সালামুআলাইকুম। সবাই কেমন আছেন? মন-মেজাজ ভাল আছে তো? যেসব ব্লগারদের মন ভাল নয়, তাদের মন ভাল করার জন্য একটা পোষ্ট লিখছি।

আমার মনে হয়, কোন ব্লগারকে অবশ্যই এস.ই.ও এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিতে হবে না। আর যারা মোটামোটি এস.ই.ও জানেন তারা অবশ্যই এলেক্সা নাম শুনে থাকবেন।

 

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

এলেক্সা আসলে এক ধরণের ওয়েব র‌্যাংক পদ্ধতি। এর কার্য পদ্ধতি গুগোল পেজ রেংকের ঠিক বিপরীত। অর্থ্যাৎ গুগোল পেজ র‌্যাংক একটা সাইটের র‌্যাংক যত বেশী তত ভাল, আর এলেক্সা র‌্যাংক একটা সাইটের র‌্যাংক যতকম তত ভাল। তবে নতুনদের মধ্যে অনেকেই এলেক্সা র‌্যাংক কমাতে গিয়ে অনেকটা হাপিয়ে পড়েন। আবার, পুরাতন অনেকেরই এলেক্সা এক লাখের নিচে আনতে গিয়ে নাকে-মুখে গরম বাতাস বের হতে শুরু হয়। তবে সামান্য কিছু টিপস্ জানা থাকলে আপনিও আপনার ব্লগের এলেক্সা দ্রুত কমিয়ে আনতে পাড়বেন। কিভাবে, জানতে চান? আজ আপনাদের সাথে এলেক্সা র‌্যাংক কমানোর জন্য আমার কিছু বাস্তব অভিজ্ঞতা শেয়ার করব। এই এলেক্সা র‌্যাংক কমানোর জন্য আমিও অনেক দৌড়া-দৌড়ি করেছি। অবশেষে অনেক ব্লগ পড়ে এবং নিজে চেষ্টা করে কয়েকটা বিশেষ টেকনিকস্‌ উদ্ভাবণ করি। তো দেড়ি না করে শুরু করা যাক, কিভাবে আপনার ব্লগের এলেক্সা কমাবেন।

১। ব্লগ ক্লেইম করা-

সর্বপ্রথম, এখানে ক্লিক করে আপনার ব্লগের URL প্রদানের মাধ্যমে আপনার ব্লগকে ক্লেইম করুন। তারপর ভেরিফিকেশন কোড দিয়ে বা সার্ভারে ভেরিফাইড ফাইল আপলোড করে আপনার ব্লগকে ভেরিফাইড করুন। এর পরের ধাপে আপনার সাইটের প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করুন এবং আপডেট দিন।

২। এলেক্সা Widgets-এর ব্যবহার করা-

এলেক্সা র‌্যাংক কমাতে এলেক্সার Widgets গুলো ব্যবহার করা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এর জন্য, Alexa Traffic Widgets এবং Review Widgets গুলো ব্যবহার করুন।

৩। এলেক্সাতে কিছু রিভিউ দিন-

এলেক্সা র‌্যাংক কমাতে রিভিউয়ের গুরুত্ব কিন্তু অনেক। আপনার সাইট সম্পর্কে যাতে বেশ কিছু রিভিউ এলেক্সাতে প্রদান করা হয় তার ব্যবস্থা করুন। আপনার পরিচিত বন্ধু বা শুভাকাঙ্খিদের আপনার সাইট সম্পর্কে এলেক্সাতে রিভিউ দিতে উৎসাহিত করুন।

৪। এলেক্সা টুলবারের ব্যবহার-

আপনার ব্রাউজারে এলেক্সার টুলবার ব্যবহার করুন। এলেক্সার টুল বার পাওয়ার জন্য “এখানে ক্লিক” করুন।

৫। সাইটে সঠিকভাবে SEO করুন। সঠিকভাবে এস.ই.ও করাটা এলেক্সা কমানোর ক্ষেত্রে অনেক গুরুত্বপূর্ন।

৬। সাইটের ট্রাফিক বৃ্দ্ধি এবং পেজভিউ বাড়ানোর সকল পদক্ষেপ নিন।

৭। বেশী বেশী করে আপনার সাইটে ভিজিট করুন। এবং কিছু সময় পর পর রিফ্রেশ দিন। এটা এলেক্সা হ্রাস পাওয়ার ক্ষেত্রে অনেক কার্যকরী।

উপরের ধাপগুলো ফলো করলে আপনার সাইটের এলেক্সা র‌্যাংক অনেকাংশে উন্নতি হবে। আশা করি পোষ্টটা সকলের কাজে লাগবে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

7 মন্তব্য

  1. চমতকার জ্ঞানের টিউন কিন্তু ভাই সাইট এ ফাইল টা আপলোড করতে পারতেছিনা

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

six − 1 =