সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো –

11
1212
সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

ইয়াসির আরাফাত

অন্ধকারের সাথে লড়াই করে টিকে থাকার ব্যার্থ চেষ্টা করি মাত্র । একটি পাঁচমিশেলি ব্লগ এ কাজ শুরু করেছি । সেই ব্লগের নাম http://www.nixbd.com
সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

আপনারা সকলে জানেন উন্নত দেশ গুলোতে ইলেকট্রনিক বিভিন্ন যন্ত্রাংশের এর খুচরা মুল্য বাংলাদেশের তুলনায় অনেক বেশি ।আবার কিছু কিছু প্রডাক্ট এর দাম বাংলাদেশের চেয়ে কম । আবার অনেক ক্ষেত্রে as you like best পদ্ধতি মেনে চলে যেমন নেটপ্যাড ১০০০ রিয়াল । আপনি যে কোম্পানি বা কনফিগার এর নিন না কেন ? আসলে ব্যপার কিছুনা প্রসেসর বেশী থাকলে হার্ড ডিস কম থাকে র্যা ম কম থাকে । প্রসেসর বেশী থাকলে এগুলো কম থাকে । গল্প একটায় , আপনার মন কে গোলোক ধাঁধায় ফেলাহল মাত্র ।

আমি সৌদি আরবে সচারচার মধ্যম দামের কিছু পন্যর মুল্য তালিকা এখানে ক্যাটলক স্ক্যান করে তুলে ধরব । আপনারা সেই পন্যগুলর দাম বাংলাদেশের চেয়ে কতটুকু বেশী বা কম , ভেবে দেখলে বুঝবেন বাংলাদেশের মানুষ কত সুখি ?

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

( কিন্তু আমরা সবাই জানি বাংলাদেশের অর্থনীতিতে রয়েছে যথেষ্ট ভণ্ডামি । আয়ের চেয়ে ব্যায় বেশি । যেখানে খ্যাদের দায়ভার উঁকি মারে ভোরের সূর্যের মত সেখানে ২ লক্ষ টাকা দামের ল্যাপটপ স্বপ্নের মত । কোন রকমে হাতে কাছে ধরা দিল নোট প্যাড দোয়েল মাত্র ১০ হাজার টাকায় । সকলে ভাবল আমরা এখন বাংলার আকাশে চাঁদের কাছা কাছি । কিন্তু বাজ ও শকুন কখন যে দোয়েল খেয়ে ফেলেছে তার খবর কেউ রাখেনি ।)

আন্তর্জাতিক বাজারের কথা বলতে পারবোনা তবে সৌদি তে ৮০০ রিয়ালের নিচে কোন নোট প্যাড নেই । দোয়েল এর কোন ফিগারের কোন প্যাড বাজার জাত হলে তা ৫৫০ রিয়ালে পাওয়া যেত এখানেও ।

বাংলাদেশে যে পরিমান মোবাইল কোম্পানি আছে বাংলাদেশ সরকার বলতে পারবেকিনা আমার সন্দেহ আছে । আজো ডিম সেদ্ধর মত 3G /3.5G সেদ্ধ হচ্ছে টেলিটকের ঘরে । অথছ ……………………… ।

তো দেখে নিন সৌদি আরব এর টেক বাজার এর মোটামুটি দামী পণ্যগুলো । (আল রাজি ব্যাংক কারেন্সি ১ রিয়াল=২১.৫৩ টাকা । )

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

সৌদি আরবে সহজলভ্য মোটামুটি দামী পণ্যগুলো -

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

11 মন্তব্য

  1. আসলে সব ধরনের পন্যের দামই নির্দারন হয় সেই দেশের মুদ্রার মান অনুযায়ী যেমন ধরুন সৌদিতে একটা ল্যাপটপের দাম ১০০ রিয়াল বাংলাদেশে সেইটাই বাংলাদেশী মুদ্রায় ৮০ রিয়েলেই পেয়ে যাবেন আবার আমেরিকায় ডলারের হিসাবে ১২০ রিয়ালে গিয়ে পরবে।এই হিসাবটা বেশীর ভাগ পন্যের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য তবে এর বেতিক্রমও আছে।আবার পন্য গুলুর দাম আবার বিভিন্ন মার্কেটের কোয়ালিটির উপর নির্ভর করে একই দেশে একাদিক দাম হয়।তবে একটা বিষয় লক্ষনীয় যে সৌদিতে কোন পন্য কিনলে সেইটার মান অর্থাৎ আপনি যেই দেশের জিনিস কিনেছেন সেইটাই পাওয়ার সম্ভাবনা ৯০% থাকে অর্থাৎ নকল থেকে বেঁচে থাকবেন আর বাংলাদেশের অবস্থা এর ঠিক উল্টো।আরেকটা কথা না বললেই নয় সৌদিতে কম বেতনে চাকরি করেও যেই মোবাইল সেট বা পিসি ইউজ করে আমাদের দেশের অনেক কোঠিপতিও ব্যবহার করে কিনা আমার সন্দেহ।

    • আপনার ধারনা সম্পুন ঠিক । মুল্যবান মন্তব্যর জন্য ধন্যবাদ !

  2. সৌদি আরবে ধনকুবেরের সংখ্যা বেশি । ফলে সেদেশের আকাশে-বাতাসে রিয়াল । তাই বোধ হয় সেদেশে ল্যাপটপ, ক্যামেরার দাম এত বেশি । ধন্যবাদ জানানোর জন্য ।

    • আপনি ঠিক ই ধরেছেন , কিন্তু এদেশের মানুষ ১ মাসের ইনকাম দিয়ে তাদের শখের বস্তু টি কিনতে পারে ন আর , বাংলাদেশে কয়েক মাস এর আয় এর প্রয়জন । সল্প আয়ের মানুষ গুলো খাবার সংগ্রহ করতে ক্লান্ত হয়ে যায় । আয় ব্যায়ের হিসেবে বাংলাদেশে দ্রব্য মুল্যর দাম বেশী !

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

17 − 3 =