ফ্লাশ টিউটোরিয়াল-৬ : ড্রইং

7
502

 ফ্লাশ টিউটোরিয়াল-৬ : ড্রইং

 

ফ্লাশ বহুবিধ কাজের জন্য ব্যবহৃত সফটঅয়্যার। ওয়েবপেজ তৈরী, এনিমেশন, মাল্টিমিডিয়া কিংবা গেম তৈরী সব কাজেই ব্যবহার করা হয় এই সফটঅয়্যার। এই কাজগুলির জন্য রয়েছে অত্যন্ত শক্তিশালী ড্রইং টুল। ইলাষ্ট্রেটর কিংবা কোরেল ড্র এর সাথে তুলনা করে হয়ত বলতে পারেন তাদের মত নিখুত মাপ নিয়ে কাজ করা যায় না। কথাটা ঠিক। ফ্লাশের কাজের জন্য মাপ বিষয়টি ইঞ্জিনিয়ারিং কিংবা ইন্টেরিয়র ডিজাইন কাজের মত ততটা গুরুত্বপুর্ন না, বরং ফ্লাশের ড্রইং এনিমেশন, গেম, ওয়েবপেজ ইত্যাদিতে ব্যবহারের জন্য। সে হিসেবে ড্রইং করা অত্যন্ত সহজ। অন্তত গ্রাফিক ট্যাবলেটের বদলে শুধুমাত্র মাউস ব্যবহারের সময়।

ফ্লাশে ড্রইং এর পদ্ধতি দেখে নেয়া যাক।

লাইন টুল
ফ্লাশ টিউটোরিয়াল-৬ : ড্রইং
লাইন টুল ব্যবহার করে সরলরেখা আকা হয়। টুলবক্সে লাইন টুল সিলেক্ট করুন এবং ষ্টেজে একটি বিন্দুতে ক্লিক করে মাউস ড্রাগ করে আরেকটি বিন্দু পর্যন্ত নিয়ে যান। একটি সরলরেখা তৈরী হবে দুটি বিন্দুকে যোগ করে। যদি প্রথম বিন্দুকে কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করতে চান তাহলে ড্রাগ করার সময় Alt কি চেপে ধরুন। যদি লাইনকে ৪৫ ডিগ্রী কোনে এলাইন করতে চান তাহলে Shift কি চেপে ধরুন।
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

লাইনের আরো অন্যান্য বৈশিষ্ট থাকতে পারে। যেমন সেটা নির্দিস্ট রঙের হতে পারে, মোটা বা চিকন হতে পারে, ডটেড লাইন হতে পারে। লাইন টুল সিলেক্ট করার পর এর প্রোপাটি দেখুন। সেখানে এগুলি পরিবর্তনের সুযোগ রয়েছে।

Stroke Color (ছবিতে কালো) অংশে ক্লিক করলেই রঙের তালিকা পাওয়া যাবে। এখানে যে রঙ সিলেক্ট করবেন সেই রঙে লাইন তৈরী হবে। অথবা আগে আকা লাইন সিলেক্ট করে রঙ সিলেক্ট করলে সেই লাইনের রঙ পাল্টে নতুন রঙ হবে।

Style অংশে ক্লিক করে সলিড লাইনের পরিবর্তে ডটেড, ড্যাস ইত্যাদি ষ্টাইল সিলেক্ট করা যাবে।
অংশ থেকে আপনি নিয়ন্ত্রন করতে পারেন ড্রইংটি ফ্লাশ প্লেয়ারে ব্যবহারের সময় কেমন দেখাবে। সিলেক্ট করলে ফ্লাশ প্লেয়ারে ব্যবহারের সময় বড় করলে লাইনগুলি একই অনুপাতে বড় হবে, সিলেক্ট করলে বড় করার পরও লাইন একই ধরনের থাকবে। এছাড়া হরিজন্টাল, ভার্টিকাল যে কোন একদিকে পরিবর্তন সিলেক্ট করা যাবে এখান থেকে।
Hinting অংশ চেক করা থাকলে ড্রইং করার সময় কোন পয়েন্টের কাছাকাছি গেলে ফ্লাশ নিজেই তারসাথে সংযুক্ত হতে সাহায্য করবে।
Cap এবং Join থেকে বলে দিকে পারেন লাইনের প্রান্ত কেমন হবে, দুটি লাইন জোড়া লাগার সময় কেমন দেখাবে। গোলাকার হতে পারে কিংবা বেভেল ব্যবহার হতে পারে।
দেখা যাচ্ছে শুধুমাত্র লাইন টুলের জন্যই বহু অপশন রয়েছে। এবারে আরেকটি বেসিক ড্রইং টুল দেখে নেয়া যাক।
ওভাল টুল
বৃত্ত (বা উপবৃত্ত) আকার জন্য ব্যবহার হয় এই টুল। লাইন টুলের ঠিক নিচে একইসাথে রেকট্যাংগেল, ওভাল, রেকট্যাংগেল প্রিমিটিভ, ওভাল প্রিমিটিভ এবং পলিষ্টার টুল এই ৫টি এক যায়গায়। যে কোনটি সিলেক্ট করার জন্য সেখানে মাউস চেপে ধরুন।
ওভাল টুল সিলেক্ট করে একটি বৃত্ত আকুন। বৃত্ত আকার সময় কিবোর্ডে Shift চেপে একেবারে গোলাকার বৃত্ত আকতে পারেন, কিংবা Alt চেপে বৃত্তের কেন্দ্র থেকে শুরু করতে পারেন।
আকা বৃত্তের জন্য প্রোপার্টি এবং ছবি লক্ষ্য করুন। ছবিতে কালো বর্ডারসহ নীল রঙের বৃত্ত আকা হয়েছে। প্রোপার্টি প্যানেলে এই দুটি বিষয় হচ্ছে Fill এবং Stroke। এখানে ষ্ট্রোক কালো, ফিল নীল রঙের। ইচ্ছে করলে লাইনের মত এখানেও পরিবর্তন করতে পারেন।
সবসময়ই পুরো বৃত্ত আকবেন এমন কথা নেই, ইচ্ছে করলে বৃত্তচাপ আকতে পারেন Oval Option অংশে পরিবর্তন করে। করে দেখুন।
রেকট্যাংগেল টুল
ফ্লাশ টিউটোরিয়াল-৬ : ড্রইং
রেকট্যাংগেল টুলের কাজ বর্গক্ষেত্র বা আয়তক্ষেত্র আকা। সাধারনভাবে আয়তক্ষেত্র আকা হবে, Shift কি চেপে ধরলে বর্গক্ষেত্র হবে।
এখানে রেকট্যাংগেল অপশ থেকে পরিবর্তন করে কোনগুলি ভেতরের দিকে বা বাইরের দিকে বাকা করতে পারেন। ছবিতে নানাধরনের উদাহরন দেখানো হয়েছে।
এই দুই টুলের জন্য প্রিমিটিভ টুল নামে অতিরিক্ত আরো দুটি টুল রয়েছে। মুলত একই হলেও প্রিমিটিভ টুল ব্যবহার করে আকার পর আয়তক্ষেত্রের বা উপবৃত্তের বৈশিষ্ট পরিবর্তন করা যাবে। বিপরীতক্রমে সরাসরি টুল ব্যবহার করলে আকার সময় সেভাবে আকা হবে।
পলিষ্টার নামে এখানে থাকা শেষ টুলটি ব্যবহার হয় পলিগন বা ষ্টার আকার জন্য। পলিগন হচ্ছে যে কোন সংখ্যার কোনের ক্ষেত্র (ত্রিভুজ, পঞ্চভুজ ইত্যাদি) আর তারা তো পরিচিত জিনিষ। এই টুল সিলেক্ট করলে অপশন বাটন পাওয়া যাবে। সেখানে ক্লিক করে বলে দিন পলিগন চান, নাকি ষ্টার চান, কতগুলি কোন চান ইত্যাদি।
ফ্লাশ টিউটোরিয়াল-৬ : ড্রইং
ইরেজার টুল
যে কোনকিছু মুছে দেয়ার জন্য ইরেজার ব্যবহার করতে পারেন। ষ্ট্রোক বা ফিল যাই হোক না কেন, খুব সহজে মুছে দেয়া যায়।
সিলেক্ট করা
টুলবক্সের একেবারে প্রথম টুলটি ব্যবহার করা হয় সিলেকশনের জন্য। এর বৈশিস্টগুলি লক্ষ্য করুন।
ছবির মত একটি বৃত্ত একে সেটা সিলেক্ট করার জন্য সিলেকশন টুল দিয়ে ক্লিক করুন। ষ্ট্রোক এবং ফিল দুইই সিলেক্ট হবে।
এবারে ডাবল ক্লিক করুন। শুধুমাত্র বৃত্তটি নতুন উইন্ডোতে ওপেন হবে। এখানে ষ্ট্রোক এবং ফিল দুটিকে পৃথকভাবে সিলেক্ট করা যাবে। ষ্ট্রোক এর কাছাকাছি পয়েন্টার আনলে মাউস পয়েন্টারের সাথে একটি বাকা লাইন দেখা যাবে, যার অর্থ শুধুমাত্র ষ্ট্রোক সিলেক্ট হবে। ষ্ট্রোকের একটি অংশে ক্লিক করে তাকে একপাশে সরিয়ে আনুন। সেই অংশটি বাকা হয়ে সরে যাবে, সাথেসাথে ফিলও পরিবর্তিত হবে।
মুল উইন্ডোতে ফেরার জন্য ফাকা যায়গায় ডাবল ক্লিক  করুন।
পেনসিল টুল
একেবারে মুক্তহস্তে ড্রইঙ এর জন্য পেনসিল টুল। এই টুল সিলেক্ট করে সাধারন পেনসিল যেভাবে কাজ করে সেভাবেই আকবেন। আকার আগে  বা পরে রেখার ধরন, রং ইত্যাদি পরিবর্তন করে নিন।
এগুলি ছাড়াও অন্যান্য সফটঅয়্যারের মত ব্রাশ, পেন ইত্যাদি টুল রয়েছে। আপনার ড্রইং যত জটিলই হোক না কেন, এই টুলগুলি ব্যবহার করে তা আকা সম্ভব। ড্রইং কতটা ভাল হবে নির্ভর করে আপনার দক্ষতার ওপর।
টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

7 মন্তব্য

  1. হুম। পরবর্তী টিউন এর অপেক্ষাই রইলাম। দারুন , ধন্যবাদ , ।

  2. ও গুরু যাক্কাস হইতাছে চালিয়ে যান, তবে পিছনের পোষ্ট গুলিতে স্কিণশর্ট দিলে ভাল হত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

seven − 1 =