চারটি ইউটিলিটি জনপ্রিয় টুলস ও সিস্টেমের নিরাপত্তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

7
335

পিসি নির্ভেজাল চালানোর জন্য আমাদের বিভিন্ন রকম সফটওয়্যারের দরকার পরে। এরকমই চারটি ইউটিলিটি টুল নিয়ে আমাদের আজকের আলোচনা।

CCleaner

CCleaner একটি ইউটিলিটি টুল বা সফটওয়্যার যা দিয়ে উইন্ডোজ পিসি পরিষ্কার রাখা যায়। এই টুলটি দিয়ে সিস্টেমের অপ্রয়োজনীয় ফাইল মুছে সিস্টেমের জায়গা বাড়ানো যায় ও সিস্টেমকে আরো বেশি দ্রুত করা যায়। শুধু তাই নিয়, এটা দিয়ে সমস্ত অনলাইন একটিভিটিস যেমন- টেম্পোরেররী ইন্টারনেট ফাইল, কুকিজ,হিস্টোরীও মুছে ফেলা যায় যা উইন্ডোজের নিরাপত্তাকে বাড়িয়ে দেয়। আরো একটি চমৎকার বৈশিষ্ট্য হল, রেজিস্ট্রি ক্লিন করার জন্য আলাদা রেজিস্ট্রি ক্লিনার কেনার বা ডাউনলোড করার প্রয়োজন নাই কারণ এটা CCleaner-এ বিল্ট-ইন।
CCleaner চারটি ইউটিলিটি জনপ্রিয় টুলস ও সিস্টেমের নিরাপত্তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

চলুন দেখা যাক, কী এই টেম্পোরারি ইন্টারনেট ফাইল, কুকিজ, হিস্টোরি? কেনই বা এদেরকে ক্লিন করতে হবে?

টেম্পোরারি ইন্টারনেট ফাইলটি হল কম্পিউটারের হার্ডড্রাইভে তৈরিকৃত একটি ফোল্ডার বা ডাইরেক্টরি । ওয়েব পেইজ লোডিং-এর কাজটি দ্রুত করার জন্য এই ফোল্ডারটি তৈরি করা হয়।এই ফোল্ডারটির ভেতরে থাকে index.dat নামে একটি ফাইল ও আরো অন্যান্য কনটেন্ট। আমরা প্রথমে যখন কোন ওয়েব সাইট ভিজিট করি, তখন ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার ঐ সাইট থেকে ওয়েব পেইজ, ইমেজ, অডিও, ভিডিও ফাইল, ইউজার ডাটা, হিস্টোরি ও আরো অন্যান্য কন্টেন্ট এই টেম্পরেররী ফোল্ডারে জমা রাখে আর index.dat নামে ফাইলটিতে এগুলোর একটি টেবিল বা সূচিপত্র তৈরি করে রাখে। এটিকে ব্রাউজারের ক্যাশও বলা হয়। পরবর্তীতে আমরা যখন আবার উক্ত সাইট ভিজিট করি, তখন ব্রাউজার প্রথমেই টেম্পোরারি ফোল্ডার চেক করে দেখে নেয় যে, ঐ সাইটের ওয়েব পেইজগুলি ও কনটেন্ট জমা আছে কিনা, তারপরে ইন্টারনেট কানেকশন ব্যবহার করে দেখে নেয়, শেষবার যখন সাইটটি ভিজিট করা হয়েছিল তারপরে কোন পরিবর্তন হয়েছে কিনা। কোন পরিবর্তন না হয়ে থাকলে সরাসরি টেম্পোরারি ফোল্ডার থেকে পেইজগুলি লোড করে ফেলে। এতে পেইজলোডটা খুবই দ্রুত গতিতে হয়।টেম্পোরারি ফোল্ডারের আরো একটি উপকারিতা হল, এটি অফলাইন ব্রাউজিং-কেও সাপোর্ট করে। অবশ্য পেইজ ডাইনামিক হলে ভিন্ন কথা।

টেম্পোরারি ফোল্ডারের এত ভালো দিক থাকলেও এর সবচেয়ে ভয়ংকর যে দিকটি সেটি হল, এটি একটি সিকিউরিটি হোল তৈরি করে।যেহেতু এটি ক্যাশ সম্পূর্ণ ভরে না যাওয়া পর্যন্ত কোন ফাইলই ডিলিট করে না, তাই যেকেউ কম্পিউটারের টেম্পোরারি ফোল্ডার থেকে আপনার অনেক তথ্য খুব সহজেই জেনে নিতে পারবে।সুতরাং টেম্পোরারি ফাইল মুছে ফেলাই উচিত।

কুকিজ হল খুবই ছোট আকারের একটা ফাইল যা কম্পিউটারের হার্ডড্রাইভে জমা থাকে। এই ফাইলটিকে একটি ফাইল না বলে একটি লুক-আপ টেবিলও বলা যেতে পারে কারণ এই ফাইলটিতে থাকে একটি লুক-আপ টেবিল।টেবিলটিতে নেইম-ভ্যালু আকারে কিছু তথ্য জমা থাকে। কী এই তথ্য? ধরা যাক, আপনি আপনার গুগল বা ইয়াহু পেইজটি আপনার পছন্দমত কনটেন্ট যেমন আবহাওয়া, মুভি, লটারির ফলাফল, গুরুত্বপূর্ণ নিউজ, স্পোর্টস ইত্যাদি দিয়ে কাষ্টমাইজ করলেন কিংবা কোন অনলাইন শপিং সাইটে গিয়ে শপিং-এর জন্য আপনার নাম, পাসওয়ার্ড, ঠিকানা দিয়ে একটি ইউজার নেম রেজিস্ট্রেশন করলেন। এক্ষেত্রে গুগল, ইয়াহু বা অনলাইন শপিং প্রতিষ্ঠানটি ছোট্ট একটি কুকি ফাইল আপনার হার্ডড্রাইভে রেখে দিবে যেখানে থাকবে আপনার একটি আইডেন্টিটি।পরে যখনই আবার উক্ত সাইটে লগইন করবেন, তখন উক্ত সাইটিটি প্রথমেই আপনার কম্পিউটারের হার্ডড্রাইভে কুকি ফাইলটি খোঁজ করবে, যদি কুকি ফাইলটি পেয়ে যায় তাহলে আইডিন্টিট ম্যাচ করে সমস্ত তথ্য বিনা ঝামেলায় তাদের নিজেদের সার্ভার থেকে পুনরুদ্ধার করবে। এতে ওয়েব সার্ভারের কাজটা খুবই সহজ হয়ে যায়, কাস্টমারকেও মুহূর্তে ভালো সার্ভিস দিতে পারে। এছাড়াও আছে সেশন কুকি যা এক সেশন থেকে তথ্য ধরে রেখে পরবর্তী সেশনে নিয়ে যায় যাতে সার্ভারের উপর লোড কমে যায়। কুকি তো খারাপ কিছু দেখা যাচ্ছে না। তাহলে সমস্যা কোথায়? সমস্যা আছে, ধরা যাক অন্য কোন ইউজার আপনার কম্পিউটার থেকে আমাজন সাইটটি ওপেন করল, আমাজন ডট কম কুকি থেকে আপনার সমস্ত তথ্য পুনরুদ্ধার করে তাকে দেখিয়ে দিবে। এভাবেই কুকি কম্পিউটারে একটি সিকিউরিটি হোল তৈরি করে ফেলে।CCleaner দিয়ে এই অপ্রয়োজনীয় ফাইলগুলি খুব সহজেই মুছে ফেলা যায়।

CCleaner ওপেন করলেই বামদিকে চারটি অপশন পাওয়া যাবে – ১. Cleaner ২. Registry ৩. Tools ৪. Options। Cleaner বাটনে ক্লিক করলে নীচের দিকে দুটি বাটন দেখা যাবে-Analyze ও Run Cleaner। Analyze বাটনে ক্লিক করলে CCleaner উইন্ডোজ ও বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন analyze করে বলে দিবে কী কী ফাইল মুছে ফেলতে হবে ও মুছে ফেললে কতটুকু জায়গা খালি হবে। তারপর Run Cleaner -এ ক্লিক করলেই এটা টেম্পোরেররী ফাইল, হিস্টোরি, কুকিজ, লগ ফাইল, সেশন ইত্যাদি মুছে ফেলবে। এখানে উপরে উইন্ডোজ ও অ্যাপ্লিকেশন নামে দুটি ট্যাব আছে। আপনি যে যে ফোল্ডার, প্রোগ্রাম থেকে অপ্রয়োজনীয় ফাইল মুছে ফেলতে চান এখানে গিয়ে চেক মার্ক দিতে হবে । বামদিকে Cleaner-এর পরেই আছে Registry বাটন। রেজিস্ট্রি বাটনের মাধ্যমে রেজিস্ট্রি ক্লিন করা যাবে। তারপরে আছে Tools বাটন।টুলস বাটনের মধ্যে আছে আনস্টল, স্টার্টআপ,সিস্টেম রিস্টোর। এখান থেকেই যেকোনো প্রোগ্রাম আনস্টল করা যায়,উইন্ডোজ কন্ট্রোল প্যানেলে আর যাওয়ার দরকার নাই।স্টার্টআপ থেকে অপ্রয়োজনীয় প্রোগ্রামগুলি ডিসঅ্যাবল করে উইন্ডোজ দ্রুততর করা যায়।অপশন-এ গিয়ে প্রয়োজনুযায়ী বিভিন্ন অপশন সিলেক্ট করা যায়।

Speccy

ধরা যাক, আপনার কম্পিউটারকে দ্রুততর করার জন্য আপনার কম্পিউটারের অতিরিক্ত খালি র‍্যাম স্লটে আরো কিছু র‍্যাম লাগাতে চান। সমস্যা হল র‍্যাম কিনতে গিয়ে। কী ধরণের র‍্যাম লাগবে – তা আপনি জানেন না। Speccy অ্যাপ্লিকেশন টুলটির মাধ্যমে সিস্টেমের তথ্য খুব সহজেই জানা যায়। এটি রান করলে আপনার পিসির অপারেটিং সিস্টেম থেকে শুরু করে সিপিউ, র‍্যাম, মাদারবোর্ড, গ্রাফিক্স কার্ড, হার্ড ড্রাইভ, অডিও, নেটওয়ার্ক, পেরিফেরালস ইত্যাদিসহ মেশিনের সমস্ত তথ্য জানা যায়।
speccy1 চারটি ইউটিলিটি জনপ্রিয় টুলস ও সিস্টেমের নিরাপত্তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

 

Recuva

ধরা যাক ভুলক্রমে হঠাৎ করেই আপনি একটি গুরুত্বপূর্ণ ফাইল ডিলিট করে দিয়েছেন। অথবা আপনার সিস্টেম ক্রাশ করার পর গুরুত্বপূর্ণ একটি ডকুমেন্ট বা ছবি বা গান খুঁজে পাচ্ছেন না। Recuva আপনার মেশিনের যেকোনো ড্রাইভ ডিপ স্ক্যান করে বলে দিবে মুছে যাওয়া ফাইলটি পুনরুদ্ধার সম্ভব কিনা? যদি পুনরুদ্ধার সম্ভব হয়, তাহলে খুব সহজেই Recover বাটনটি ক্লিক করে মুছে যাওয়া ফাইলটি পুনরুদ্ধার করা যায়।

Recuva চারটি ইউটিলিটি জনপ্রিয় টুলস ও সিস্টেমের নিরাপত্তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

 

Defraggler

Defraggler ব্যবহৃত হয় কোন ড্রাইভ defrag করার জন্য। এটি ব্যবহারের অন্যতম যে সুবিধা সেটি হল, এটি দিয়ে আপনি আপনার শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় ড্রাইভ ডিফ্রাগ করতে পারেন। সম্পূর্ণ সিস্টেম একসাথে defrag করার দরকার নাই। এটা দিয়ে এমনকি একটি সিঙ্গেল ফাইল বা ফোল্ডারও defrag করা যায়।

defraggler2 চারটি ইউটিলিটি জনপ্রিয় টুলস ও সিস্টেমের নিরাপত্তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

এই চারটি টুলস-ই ফ্রি ডাউনলোড করতে পারবেন এখান থেকে

ফ্রি ডাউনলোড

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

7 মন্তব্য

  1. দারুন। অনেকেই বিভিন্ন সফটওয়্যার শেয়ার করেন কিন্তু কোন বর্ণনা থাকে না। একটু দিক নির্দেশনা থাকলে ভালো হয়। যেমন আপনারটা। ধন্যবাদ।

  2. পোষ্টটি খুইই সুন্দর হয়েছে।আসলেই কাজের একটি টিউনস। এই চমৎকারকৃত পোষ্টটি পাবলিশ করার জন্য ধন্যবাদ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

5 × three =