Horror Tune 34: পুরনো জীবন

0
207

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলা শহরের তেবাড়িয়া এলাকায় একবার দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৬ সদস্য মারা যায়।। তারা একত্রে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাচ্ছিল।। সেই পরিবারের সকল সদস্যই সেইদিন ঐ গাড়িতে ছিল যেই গাড়ি এক্সিডেন্টে তারা মারা যায়।।

যাই হোক, তাদের সবাইকে একই সাথে একই স্থানে পাশাপাশি কবর দেয়া হয়।।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

সেই পরিবার যেই বাড়িতে থাকতো সেই বাড়িটি এরপর থেকে ফাঁকা পরে থাকে প্রায় ১ মাস।।

মাস খানেক পর, ঐ বাড়ির কর্তা শাইখ আলীর এক চাচা তাঁর পরিবার নিয়ে আসেন বাড়িটিতে থাকার জন্য।।

বাড়িটিতে থাকার কয়েকদিন পর থেকেই তারা অদ্ভুত কিছু ব্যাপার লক্ষ্য করেন।। যেমন, গভীর রাতে রুমে কারো চলাফেরা করা।। দরজা জানালা সব ভিতর থেকে বন্ধ তবুও মনে হয় কারা যেনো বাড়ির ভেতরের রুমে বসে গল্প করছে।।

শাইখ আলীর চাচার থাকার আর কোনও জায়গা ছিল না তাই তারা এইসব ঘটনার পরেও সেই বাড়িতে থাকার সিদ্ধান্ত নেন।।

সেই সিদ্ধান্ত কাল হয়ে দাঁড়ায় যখন তার ছোট মেয়েকে একদিন সন্ধ্যার পর কলপাড়ে অচেতন অবস্থায় পাওয়া যায়।। মেয়েটি জ্ঞান ফেরার পর থেকে কথা বার্তা বলা বন্ধ করে দেয়।। শুধু চোখ বড় বড় করে তাকিয়ে থাকে নিজের ঘরের বাম পাশের কোণার দিকে।। আর গভীর রাতে ঘুম থেকে উঠে কাঁদতে থাকে।। এই সময়ে থাকে প্রশ্ন করা হলে সে বলে, “কেউ একজন ঘুমের মধ্যে এসে তার গালে থাপ্পড়/চড় মারে এবং প্রচণ্ড ব্যাথায় তার ঘুম ভেঙ্গে যায়।।” কিন্তু ঘুম থেকে উঠে সে কাউকেই দেখতে পায় না।। পরিবারের বাকি সদস্যরা লক্ষ্য করে, মেয়েটির গালে লাল লাল চড়ের দাগ স্পষ্ট দেখা যায়।।

অবস্থা বেগতিক দেখে অবশেষে শাইখ আলী চাচা পরিবার নিয়ে ঐ বাড়ি থেকে সরে যান।। আশ্চর্যের ব্যাপার হলো, সেই বাড়ি ছেড়ে দেয়ার কয়েকদিনের মধ্যেই মেয়েটি আবার নিজের পুরনো জীবন ফিরে পায়।।

তথ্যটি জানিয়েছেনঃ আহসান সেলিম অরণ্য (Ahsan Selim Oronno)

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

4 + fourteen =