কিভাবে শুরু করবেন আপনার ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার !

0
57

প্রথমে বিবেচনা করুন যে, আপনার কোন সেক্টরে কাজ করতে ভালো লাগে? যদি আপনার ছবি, আকিবুকি বা ফটোগ্রাফি নিয়ে কাজ করতে ভালো লাগে তবে আপনি গ্রফিক ডিজাইনিং শিখতে পারেন। অথবা গ্রাফিক ডিজাইন সম্পর্কিত যে কোন সেক্টরে কাজ করতে পারেন। কারন ডিজাইন সেন্স সবার থাকে না। আমি নিজেই গরু আকতে গেলে মুরগী একে ফেলি।

আপনার যদি মনে হয় যে, কম্পিউটার এর সফটওয়ার বা ম্যথম্যাটিক্যাল ব্যাপার স্যাপার বেশি ভালো লাগে তবে আপনি অবশ্যই প্রোগ্রামিং শিখবেন। তা যে কোন প্রোগ্রামিং ই হোক না কেনো। হতে পারেন, ওয়েব ডিজাইনার, ওয়েব ডেভেলাপার, কম্পিউটার প্রোগ্রামার, ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলাপার ও অন্যন্যা শত প্রকার প্রোগ্রামিং ফিল্ড আছে। আপনার মন মতো বেছে নিতে পারেন। মোবাইল এ্যপস ও ডেভেলাপ করতে পারেন।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

আপনি যদি উপরের গুলি শিখতে পছন্দ না করেন তবে আপনি অনলাইন মার্কের্টিং শিখতে পারেন। লেখালেখিতে আগ্রহ থাকলে ব্লগিং ও শিখতে পারেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ও রয়েছে, যা বিলিয়ন ডলারের মার্কেট। আরো একটি ডিমান্ডের পেশা হচ্ছে থ্রিডি মডেলিং করা। যা সবাই করতে পারে না। অনেকে আবার টিস্প্রিং এ টিশার্ট সেল করেও নিজের ভাগ্যে পরিবর্তন ঘটিয়েছে।বর্তমানে অনেক মানুষ ইউটিউব এ ভিডিও আপলোড করেও ভালোই টাকা পয়সা কামাচ্ছে। তবে আমি যদিও শুধুমাত্র ইউটিউব এর উপর নির্ভরশীল হতে পরামর্শ দিবো না। যাইহোক, এই হলো কাজের ক্ষেত্র সমূহ যা থেকে আপনি আপনার পছন্দের কাজের ক্ষেত্রটি নির্ধারন করতে পারবেন।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

9 + nine =