স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচান! জেনে নিন টিপস্!

0
0

প্রায়ই স্মার্টফোনের ফুরিয়ে যাওয়া ব্যাটারি নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয়। বিশেষ করে থ্রি জি ইন্টারনেটে ব্রাউজ করে বা স্ট্রিমিং মিউজিক দেখার পর ব্যাটারি শেষ হয়ে যায়। এখানে আপনার অতি প্রিয় আইফোনের ব্যাটারির শক্তি বৃদ্ধিতে টিপস নিন। এই পরামর্শ অন্যান্য মোবাইলের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য।

১. ব্লুটুথ বন্ধ করে দিন। কোনো তারবিহীন হেডফোন বা স্পিকারের সঙ্গে সব সময় সংযোগ থাকলে ব্যাটারি দ্রুত ফুরিয়ে যায়। তাই গান না শুনলে ব্লুটুথ বন্ধ রাখুন।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

২. আলোতে ছবি তোলার সময় ক্যামেরার ফ্ল্যাশটি বন্ধ রাখুন। তা ছাড়া এমনিতেও ফ্ল্যাশ জ্বালাবেন না।

৩. ফোনের ওয়ালপেপার হিসাবে কোনো লাইভ ফটো বা গতিশীল কোনো ওয়ালপেপার ব্যবহার করবেন না। পর্দায় এ ধরনের ছবি অনেক ব্যাটারি খরচ করে। আইফোনের সেটিংস থেকে ওয়ালপেপার এবং সেখান থেকে চুজ এ নিউ ওয়ালপেপার-এ যান। সেখানে স্টিলস অর এ পিকচার ফ্রম ক্যামেরা রোল বেছে নিন।

৪. পুশ নোটিফিকেশন বন্ধ করে দিন। যেমন ইন্সটাগ্রাম এবং টুইটারের নোটিফিকেশন অফ করে নিন। ব্যাটারির শক্তি বাঁচাতে এটা খুব কার্যকর পদ্ধতি। আইফোনে সেটিংস থেকে নোটিফিকেশনে গিয়ে প্রতিটি অ্যাপ বেছে তাদের নোটিফিকেশন বন্ধ করে দিন।

৫. পর্দার ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন। অথবা একে অটোমেটিক অপশনে সেটিং করে দিন। সেটিংস খুলে অটো-ব্রাইটনেসকে অটো করে দিন। আইফোনে স্ক্রিনের নিচে থেকে ওপরের দিকে সুইপ করুন।

স্মার্টফোনের চার্জ বাঁচান! জেনে নিন টিপস্!

৬. ফোনের ব্যাটারি শেষ করতে যথেষ্ট ওয়াই-ফাই কানেকশন। এটি খোলা থাকল ক্রমাগত তা আশপাশের ওয়াই-ফাই সংযোগ সার্চ করতে থাকে। যখন ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন না, তখন ওয়াই-ফাই বন্ধ রাখুন।

৭. চলার পথে চার্জ দিতে একটি পাওয়ার ব্যাংক কিনুন। এর পেছনে বিনিয়োগ করলে লাভবান হবেন। আইফোনে কিছু কেসে বিল্টইন চার্জার থাকে। আইওএস ৯ বা তার পরের সংস্করণ ব্যবহার করে থাকলে সেটিংস থেকে ব্যাটারি অপশনে গিয়ে লো পাওয়ার মোড সিলেক্ট করুন।

৮. নোটিফিকেশনের মতোই ইমেইল পুশ যথেষ্ট ব্যাটারি খরচ করে। তাই সেটিংস থেকে মেইলে গিয়ে পুশ টগল অফ করে দিন।

৯. ব্যাকগ্রাউন্ড রিফ্রেশিং অপশনটি বন্ধ করে দিন। আইফোন ওয়াই-ফাই বা ডেটা কানেকশনে সংযুক্ত থাকলে ব্যাকগ্রাউন্ড  রিফ্রেশ হতে থাকে। এতে যথেষ্ট ব্যাটারি খরচ হয়। আইফোনে সেটিংস থেকে জেনারেল এবং সেখান থেকে ব্যাকগ্রাউন্ড অ্যাপ রিফ্রেশ-এ গিয়ে অফ করে দিন।

১০. ব্যাটারি প্রায় শেষ হয়ে এলে এয়ারপ্লেন মোড সিলেক্ট করে নিন। এতে কোনো কল, টেক্সট বা ইন্টারনেট সেবা ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে ব্যাটারি একেবারে কম খরচ হতে থাকবে। প্রয়োজন হলে ফোনটি ব্যবহার করতে পারবেন।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

18 − 8 =