শূন্য থেকে লিনাক্স: পরিচিতি (পর্ব-এক)

আসসালামু আলাইকুম। বাংলা ভাষায় যদি সার্চ করেন, তবে দেখবেন, লিনাক্স নিয়ে কনটেন্ট একেবারেই নেই বলা যাবে না, কিন্তু ধারাবাহিকভাবে লিনাক্স নিয়ে লেখা তেমন খুঁজে পাবেন না। আদনান কাইয়ুম ভাইয়ের সহজ উবুন্টু শিক্ষা অবশ্য অসাধারণত্বকে হার মানায়, কিন্তু সমস্যা হলো সেটা বেশ পুরনো এবং সেখানে শুধু উবুন্টুকে নিয়ে লেখা হয়েছে। এই সিরিজটা আমি মূলত আমার এক বন্ধু MH Murshed এর অনুরোধে লিখছি, ভিডিও টিউটোরিয়াল করার ইচ্ছা ছিলো, কিন্তু প্রয়োজনীয় উপকরণ না থাকায় সম্ভব হলো না। আমার নিজের লিনাক্সের অ আ ক খ খুব ভালো বলা যাবে না। তবে যারা আমার চেয়েও নবীন, তাদের কিছুটা হলেও অণুপ্রেরণা দিতে পারব আশা করি।

এখন আমরা তাহলে সিরিজটার সাথে পরিচিত হই।

সিরিজটা কি নিয়ে?

ইনশাআল্লাহ, একটা পূর্ণাঙ্গ লিনাক্স গাইডলাইন তৈরির চেষ্টা করব বাংলা ভাষায়। তাত্ত্বিক আলোচনা পরিহার করে, সহজ ভাবে বোঝানোর চেষ্টা করব। আর এখানে শুধু উবুন্টু বা একটা ওএস না, প্রচলিত লিনাক্স ওএসগুলোর যেকোনটাই যেন ব্যবহারে সমস্যা না হয়, সেভাবে বোঝানোর চেষ্টা করব। সিরিজে থাকবে-

১। লিনাক্স পরিচিতি: প্রথমদিকের টিউনগুলোতে লিনাক্সের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করব। লিনাক্স এবং বিভিন্ন লিনাক্স ডিস্ট্রোকে একটু চিনে নেওয়া আরকি!

২। লিনাক্স ডিস্ট্রো ইন্সটলেশন: চেষ্টা করব লিনাক্স ডিস্ট্রোগুলো ইন্সটলের মূলনীতিগুলো শিখিয়ে দিতে, যেন সাধারণ ডেস্কটপ লিনাক্স ডিস্ট্রোগুলো ইন্সটল নিজেই করতে পারেন। যেমন: উবুন্টু, মিন্ট, ডিপিন, ফিডোরা, মাঞ্জারো এগুলোর ইন্সটল পদ্ধতি কিন্তু প্রায় একই। সামান্য পার্থক্য থাকলেও আলাদাভাবে শেখার প্রয়োজন নেই!

৩। লিনাক্স যাত্রা: এরপর লিনাক্সে পথচলার প্রয়োজনীয় টুকিটাকি। এই যেমন, কাস্টমাইজেশন, সফটওয়্যার ইন্সটল এসব আরকি!

৪। টিউটোরিয়াল, খবর ও জানা অজানা: লিনাক্সের বিভিন্ন সাধারণ সমস্যা ও সমাধান, আপডেট তথ্য আর জানা অজানা সব খবর।

লিনাক্স পরিচিতি

যারা লিনাক্সকে একেবারেই চিনি না, তারা আগে একটু চিনে নিই না? এটা নিয়ে অবশ্য আমি নতুন করে লিখবো না, কারণ অনেক আগেই আদনান কাইয়ুম ভাই লিখে ফেলেছেন খুব সুন্দর করে। তাহলে সেটা পড়ে আসি, আর লিনাক্সকে চিনে নিই।

পেঙ্গুইনের পয়লা প্যাঁকপ্যাঁকানী

তাহলে, লিনাক্সের সাথে এক আধটু পরিচয় হলো, তাই না? এবার যারা লিনাক্স নিয়ে একটু জানে, তারা লিনাক্স, উবুন্টু, জুবুন্টু মাঝে মাঝে গুলিয়ে ফেলে। আর গুলানোর প্রয়োজন নেই! এই লেখাটা দেখে নিন।

লিনাক্স এবং উবুন্টু!

আমি এখানে একটু নিজের মত করে উদাহরণ দিই,

লিনাক্স হলো দাদা, তার অনেক ছেলে আছে। যেমন, এক ছেলের নাম ডেবিয়ান। ডেবিয়ানের এক ছেলের নাম উবুন্টু এ হলো লিনাক্সের নাতি। আবার এই নাতিরও ছেলে-মেয়ে আছে। উবুন্টুর এক মেয়ে লিনাক্স মিন্ট। এখন দাদা হলো গিয়ে পেশায় কার্নেল, কিন্তু ছেলেমেয়ে, নাতিপুতি সব অপারেটিং সিস্টেম, অনেক সময় ডিস্ট্রোও বলা হয়। এবার জুবুন্টু, কুবুন্টু নাম যদি শুনে থাকেন, তবে মনে হবে এরা আবার কে? এরা আসলে উবুন্টুই, শুধু ভিন্ন সাজপোশাক আরকি!

এখানে সরল উদাহরণ দিলাম, আরো কিন্তু অনেক লিনাক্স ওএস আছে!

এখন মনে হয় এটুকুই যথেষ্ট। সামনে আবার ফিরে আসছি দ্রুতই, ইনশাআল্লাহ!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *