এন্ড্রয়েড-ও নাকি আইওএস-১১? দেখে নিন কোনটি তুলনামুলক উন্নত!

0
278

সম্প্রতি, অ্যাপল ঘোষণা করেছে তাঁদের নতুন আইওএস -১১(iOS 11) এর বিভিন্ন ফিচার এবং সাথে গুগল ও তাঁদের নতুন এন্ডয়েড ও (Android O) এর ফিচার প্রকাশ করে । একসাথে ভাবতে গেলে দুটি নতুন প্ল্যাটফর্মই বর্তমানের আধুনিক যুগের স্মার্টফোন গুলোর জন্যে হবে আগের চাইতে অনেক বেশি কার্যক্ষমতা সম্পন্ন ফিচার এর সমাহার যা ব্যবহারিকে দেবে নতুন সব অভিজ্ঞতা ।

এন্ড্রয়েড-ও নাকি আইওএস-১১? দেখে নিন কোনটি তুলনামুলক উন্নত!

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

 কিন্তু তারপরেও প্রশ্ন থাকে কোনটা হবে সবচাইতে ভালো ফিচারসম্পন্ন স্মার্টফোন প্ল্যাটফর্ম এন্ড্রয়েড ও নাকি আইওএস-১১ ?  চলুন তবে দেখি বিস্তারিত কিছু তথ্য ।

এক কথায় উত্তর দিতে গেলে বলতে হবে অবশ্যই  গুগল এর এন্ড্রয়েড ও  বর্তমানের সবচাইতে সেরা প্ল্যাটফর্ম এপলের আইওএস-১১ এর তুলনায় । যে ফিচার গুলোর কারনে এন্ড্রয়েড ও (Android O)এগিয়ে আছে সেটা হল-

  • ক্যামেরা এর মাধ্যমে যেকোন ওয়াইফাই এর পাসওয়ার্ড কপি করা যাবে যা গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট এপস এর একটি ফিচার হিসেবে থাকবে ।

চলুন একনজরে দুইটি প্ল্যাটফর্ম এর কিছু ফিচার দেখে নেই-

Android O এন্ড্রয়েড- ও এর ফিচারঃ

  • ফ্লোটিং থাম্বনেইল হিসেবে ভিডিও কিংবা গুগল ম্যাপ কে শ্রিঙ্ক করা যাবে , যার ফলে অন্য কাজ করার পাশপাশি এগুলোর মাঝেও নজর দিতে পারেন এই ফিচার এর নাম  থাকবে পিকচার ইন পিকচার ।
  • কপি পেস্টের জন্য অটো সিলেক্টিং
  • মাল্টিপল স্পীকার মিউজিক প্লে
  • গুগল ভয়েস এসিস্ট্যান্ট যা অ্যাপল থেকে ভালো ফিচারসম্পন্ন
  • ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড কপি ক্যামেরা এর মাধ্যমে
  • ইজি ভয়েস রেকোনাইজেশন

iOS 11 আইওএস-১১ এর ফিচারঃ

  • পেমেন্ট সিস্টেম অ্যাপল পে
  • মাল্টিপল স্পিকার অডিও প্লে
  • ইনডোর ম্যাপ
  • নতুন ক্যামেরা ফিচার

উপরের সকল তথ্য থেকে দেখা যায় দুটি প্ল্যাটফর্ম এর মাঝেই রয়েছে আকর্ষণীয় সকল ফিচার তারপরেও আপনি যদি যাচাই করতে চান তাহলে গুগলের এন্ড্রয়েড ও এর ভয়েস রেকনাইজেশন এবং ভয়েস এসিট্যেন্ট সার্ভিস এপলের আইওএস-১১ এর তুলনায় অনেক বেশি ভালো ।

ডিজাইন এর কথা বলতে গেলে অ্যাপল আগের চাইতে তাঁদের ইন্টারফেস ব্যবহারে আরো সহজ করার চেস্টা করেছে নতুন এই আইওএস-১১ এর মাঝে । সাথে সাথে গুওল ও তাঁদের  ইন্টারফেস এর মাঝে নিয়ে এসেছে অনেক সহজ পরিবর্তন ।

আইওএস এর মাঝে আছে নতুন সব লক স্ক্রিন তারপর কন্ট্রোল সেন্টার প্যানেল করা হয়েছে আরো বেশি ইউজার ফ্রেন্ডলি ।

AR-VR

 

এপলের থেকে এন্ড্রয়েড ভার্চুয়াল টেকনোলজিতে অবশ্যই কয়েকধাপ এগিয়ে আছে ।  ভি আর এর জন্য রয়েছে গুগল ডে ড্রিম ফিচার , ট্যাঙ্গো রয়েছে এ আর টেকনোলজির জন্য এবং অল্প কিছুদিন আগেই গুগল নতুন স্ট্যান্ডালোন হেডসেট এর কথাও ঘোষণা করেছে ।

তবে অ্যাপল ঘোষণা করেছে তারা এ বছরের শেষের দিকে হয়তোবা একচুয়াল রিয়েলিটি টেকনোলজির জন্য কিছু নতুন এআর কিট প্রকাশ করতে পারে ।

সবশেষে বলা যায় অ্যাপল থেকে এন্ড্রয়েড এর নতুন প্ল্যাটফর্ম সত্যি অনেক এগিয়ে তারপরেও অ্যাপল এর সুযোগ রয়েছে ক্রেতাদের এবং ব্যবহারকারীদের জন্য আরো আকর্ষণীয় কিছু দেবার কারন এপলের  আইফোনের ১০ বছর পুর্তি উপলক্ষ্যে হয়তোবা নতুন কোন চমক থাকলে থাকতেও পারে ।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × 3 =