স্যামসাং সম্পর্কে কিছু তথ্য (যা অনেকেরই হয়ত অজানা)

0
204

আসসালামু আলাইকুম,

স্যামসাং এই নামটার সাথে আমরা প্রায় সবাই পরিচিত।বর্তমানে পুরো বিশ্বেই স্যামসাং ব্র্যান্ড বেশ জনপ্রিয়।স্যামসাং সম্পর্কে অনেক কিছুই আমরা জানি,তবে এমন অনেক তথ্যই রয়েছে যা আমাদের অনেকেরই হয়ত জানা নেই।আজকের টিউনে স্যামসাং সম্পর্কে তেমনই কিছু তথ্য শেয়ার করা হবে।

  • স্যামসাং প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৩৮সালে একটি ছোট ট্রেডিং কোম্পানি হিসেবে মাত্র ৪০জন কর্মচারী দিয়ে,এবং স্যামসাং কেনা বেচা করত শুকনা মাছ,স্থানীয় মুদিখানার পণ্য এবং নুডুলস।
  • স্যামসাং এর প্রতিষ্ঠাতা Lee Byung-chul অনুযায়ী স্যামসাং এর মিনিং হল কোরিয়ান Hanja word Samsung (三星) is tri-star or three stars
  • Lee Byung-chul ১৯৮৭ সালে মারা যাওয়ার পর, স্যামসাং গ্রুপ, চারটি ব্যবসা গ্রুপে বিভক্ত হয়ে যায়,
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

Samsung Group

Shinsegae Group

CJ Group

the Hansol Group

  • স্যামসাং সবার প্রথম যে ইলেকট্রিক প্রোডাক্ট সেল করেছিল তা ছিল ১২” একটি সাদাকালো টিভি।
  • স্যামসাং প্রথম ডিজিটাল টিভি তৈরি করে ১৯৯৮ সালে।
  • ঘড়ি এবং এমপি৩ ফোন তৈরি করে ১৯৯৯ সালে।
  • ৩ডি হোম থিয়েটার তৈরি করে ২০১০ সাল।
  • সবার প্রথম কার্ভড স্মার্টফোন তৈরি করে ২০১৩ সালে।
  • স্যামসাং প্রতি বছর প্রায় ৩০তি বড় জাহাজ তৈরি করে।
  • Samsung C&T Corporation বেশ কিছু বৃহত্তম আকাশচুম্বী অট্টলিকা নির্মাণ করেছে,

Burj Khalifa

Taipei 101

Petronas Tower

  • বিশ্বের প্রায় ৭০% স্মার্টফোনে ব্যবহার করা DRAM নির্মাণ করে স্যামসাং।
  • স্যামসাং প্রতিবছর প্রায় $১০০ মিলিয়ন ডলার দান করে থাকে অলাভজনক মেডিকাল সেন্টারে।
  • স্যামসাং এর লোগো যেটা আমরা চিনি সেটা ব্যবহার করা হয়েছিল ১৯৯৩ সালে,তবে এর আগে আরো দুইটি লোগো তৈরি করা হয়েছিল যথাক্রমে ১৯৬৯ এবং ১৯৮০ সালে।
  • স্যামসাং দক্ষিন কোরিয়ার এয়ার ফোর্সের জন্য প্রথম ফাইটার জেট KF-16 তৈরি করেছিল।এছাড়াও স্যামসাং ফাইটার জেট,হেলিকাপ্টার এবং কামানও তৈরি করে দক্ষিন কোরিয়ার আর্মিদের জন্য।
  • ২০১২ সালে সামসাং ইনভেস্ট করেছিল প্রায় $১০.৮ বিলিয়ন ডলার রিসার্চ এবং ডেভেলপমেন্ট খাতে।
  • ২০১২ সালে স্যামসাং ইলেকট্রনিকস বিশ্বের সবচেয়ে বড় মোবাইল ফোন নির্মাণকারী হয়ে উঠে,নকিয়াকে অভারটেক করে।
  • স্যামসাং ২০১৩ সালে প্রায় $১৪বিলিয়ন ডলার ব্যয় করে বিজ্ঞাপন এবং মার্কেটিং এ,যা আইসল্যান্ড এর জিডিপি থেকেও বেশি।
  • ২০০৯ থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে স্যামসাং প্রায় $৪.৮বিলিয়ন ডলার ইনভেস্ট করেছে, প্রায় ৮৫মিলিয়ন টন গ্রিনহাউজ গ্যাস হ্রাস করার জন্য।
  • ২০১৪ সালে এক ব্যক্তি তার গার্লফ্রেন্ডকে হত্যা করেছিল স্যামসাং ট্যাবলেট দিয়ে।
  • ২০১৪ সালের তথ্য অনুযায়ী পুরো বিশ্বে স্যামসাং এর প্রায় ৪৮৯০০০ কর্মচারী রয়েছে।
  • স্যামসাং ২০০৫ থেকে ২০১৫ সাল পযর্ন্ত প্রিমিয়ার লিগ ফুটবল ক্লাব চেলসির স্পন্সারশীপ ছিল।
  • আগস্ট ২০১৬ সালে স্যামসাং ব্যাটারির ক্রটির জন্য প্রায় ২.৫মিলিয়ন নোট ৭ ফিরিয়ে নিয়েছিল।
  • স্যামসাং প্রায় ৭৬৭০টি পেটেন্ড সিকিউর করেছে,যা বিশ্বের অন্য যে কোন কোম্পানি হতে বেশি।
  • স্যামসাং এর শক্তিশালী প্রভাব রয়েছে দক্ষিন কোরিয়ার ইকোনোমিক ডেভেলপমেন্ট,পলিটিক্স,মিডিয়া এবং সংস্কৃতিতে।

ফেসবুকে আমিঃ Muhammad Easin Islam

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 − 12 =