ভার্চুয়াল রিয়ালিটি কি শুধুমাত্র পর্নোগ্রাফির জন্য?

By | 11/04/2016

সম্প্রতি ভার্চুয়াল রিয়ালিটির জগতে বেশ আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে কয়েকটি নতুন প্রযুক্তির আগমন। ফেসবুকের মালিকানাধীন অকুলাস ভিআর নামে একটি প্রতিষ্ঠান সম্প্রতি তাদের নতুন হেডসেট বাজারে ছেড়েছে। তবে এ নতুন প্রযুক্তির প্রসারের সঙ্গে সঙ্গে একটি প্রশ্নও সবার মনে দেখা দিচ্ছে, এটি কি শুধুই পর্নোগ্রাফির জন্য? এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে ফক্স নিউজ।
ভার্চুয়াল রিয়ালিটি দিয়ে ভিডিও গেমস ও মুভি দেখার ক্ষেত্রে নতুন দিগন্ত খুলে যাবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু ভার্চুয়াল রিয়ালিটির পণ্য বিক্রির সময় বিক্রেতারা জানিয়ে দিচ্ছেন, পর্ন দেখার জন্য খুবই সুবিধাজনক এটি।

index

ভার্চুয়াল রিয়ালিটি হেডসেট বিস্ময়ক ত্রিমাত্রিক পরিবেশ তৈরি করে। এ পরিবেশে ঢুকে যেতে পারেন ব্যবহারকারী। ভার্চুয়াল রিয়ালিটি হেডসেট মানুষের কল্পনাশক্তিকে অনন্য রূপ দেবে। এ কথা স্বীকার করেছেন অনেকেই।

ফেসবুকের মালিকানাধীন অকুলাস যে ভার্চুয়াল রিয়ালিটি সেট বিক্রি করছে তাতে রয়েছে ৩০টি গেমস। তবে গেমসের পাশাপাশি এতে ভিন্ন ধরনের কনটেন্ট চালানোরও ব্যবস্থা রয়েছে। এ ব্যবস্থাতে পর্নগ্রাফিও চালানো সম্ভব।

বর্তমানে ভি আর পর্ন নামে এক ধরনের পর্নগ্রাফি তৈরিতে উঠেপড়ে লেগেছেন নির্মাতারা। এটি ভার্চুয়াল রিয়ালিটি সেটে নিখুঁতভাবে দেখা সম্ভব। এ পদ্ধতিতে বর্তমানে প্রফেশনাল পর্ন স্টুডিওগুলো প্রায় এক হাজার ভিডিও তৈরি করেছে। এছাড়া রয়েছে বহু অপেশাদার পর্নোগ্রাফিও।

এ বিষয়ে অকুলাসের প্রতিষ্ঠাতা পালমার লাকি সম্প্রতি জানান, তার প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন ধরনের নির্মাতাদের জন্য ভার্চুয়াল রিয়ালিটি প্রযুক্তি উন্নয়নের ব্যবস্থা রেখেছে। এটি একটি ওপেন প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে। আর এতে অন্তর্ভুক্ত থাকছেন পর্ন নির্মাতারাও।

ভার্চুয়াল রিয়ালিটি প্রযুক্তি প্রসঙ্গে ফেসবুকের সিইও মার্ক জাকারবার্গ এক বিবৃতিতে বলেন, পর্দায় বিশেষ কিছু দেখার বাস্তবতা একসময় প্রতিদিনের জীবনের সঙ্গে জুড়ে যাবে। বাড়িতে বসে একটি চশমা পরলেই আপনি ক্লাসে বসে শিক্ষা নিতে পারবেন অথবা বিশ্বের বড় বড় চিকিৎসকদের কাছ থেকে সামনাসামনি বসে পরামর্শ নিতে পারবেন। ভার্চুয়াল রিয়েলিটি সত্যিকার বাস্তবতা হতে চলেছে।

ভার্চুয়াল রিয়ালিটির মাধ্যমে বিশ্বে বিপুল পরিবর্তন আসতে পারে। বিশেষ করে ভিডিও গেমস ও বিনোদন জগতে এর প্রভাব পড়তে পারে। তবে পর্ন ইন্ডাস্ট্রি সবচেয়ে লাভবান হবে বলে মনে করছেন বহু বিশ্লেষক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *