ফেসবুকে বেশি সক্রিয় হলে সক্রিয় হবে আপনার মস্তিষ্ক

By | 17/03/2016

ফেসবুক করেন না আপনি? এই গবেষণাটির কথা শুনলে ফেসবুকে অন থাকার ইচ্ছে হবে আপনারও।

ফেসবুকে কেউ কেউ শুধুমাত্র অন্যদের পোস্ট দেখেন, লাইক করেন, কখনও সখনও দু-চারটি মন্তব্যও করেন। আবার অনেক মানুষ আছেন যাঁরা ফেসবুককে ব্যবহার করেন প্রধানত নিজেদের প্রকাশ মাধ্যম হিসাবে। কখনও নিজের চিন্তাধারার প্রকাশ করেন। কখনও মতমত বা বক্তব্য পোস্ট করেন। কখনো বা ব্যক্তিগত ছবি, ভিডিও পোস্ট করেন।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই দ্বিতীয় শ্রেণির মানুষ যাঁরা ফেসবুকে বেশি সক্রিয় তাঁদের মস্তিষ্কের দুটি বিশেষ অংশ- মিডিয়াল প্রিফন্টাল কর্টেক্স এবং প্রিসুনিয়াস অঞ্চল দুটির কার্যকারিতাও বেশি। যখন আমরা নিজেদের সম্পর্কে ভাবি মস্তিষ্কের এই দুটি বিশেষ অংশ সেই সময় কাজ করে থাকে। আর ফেসবুকেও আমরা নিজেদেরকে প্রকাশ করতে চাই।

images5

তাই বার্লিনের ফ্রেয়ি ইউনিভার্সিটি এবং জার্মানির ম্যাক্স প্লাঙ্ক ইন্সটিটিউট অফ হিউম্যান কগনিটিভ অ্যন্ড ব্রেন সায়েন্স-এর বিজ্ঞানীরা ৩৫ জনের ওপর গবেষণা চালিয়ে দেখেছেন যে, যে সব মানুষ ফেসবুকে নিজেদের প্রকাশের ক্ষেত্রে বেশি সক্রিয়় সেই তাদের মস্তিষ্কের সংযোগের স্বক্রিয়তা সাধারণের চেয়ে অনেক বেশি। বর্তমানে সপ্তাহে ১৫০ কোটি মানুষ ফেসবুকে রীতিমতো অ্যাক্টিভ।

আর তাই ফেসবুককেই গবেষণার মাধ্যম হিসাবে বেছে নিয়়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। এই গবেষণার জন্য তাঁরা ফাংশনাল নিউরো ইমেজিং ডেটা ব্যবহার করেছিলেন। এর সাহায্যে প্রত্যেক ব্যক্তি প্রোফাইলের ছবি, তথ্য, স্টেটাস প্রভৃতি কতক্ষণ পরপর আপডেট করছিলেন তার দিকে লক্ষ্য রাখা হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *