দু’টি ডিসপ্লে স্ক্রিনের অভিনব ইয়োটাফোন

By | 15/03/2016

আজকাল তো ফোন মানেই স্মার্টফোন। আর এই স্মার্টফোনের ডিসপ্লে হল মূল আকর্ষণ। স্ক্রিন কত বড় বা ডিসপ্লে কত ভাল এই নিয়ে ব্যস্ত থাকে ইয়াং জেনারেশন। আর এই ইয়াং জেনারেশনের চাহিদার কথা মাথায় রেখেই ইয়োটা ডিভাইসেস তৈরি করেছে এমন একটি ফোন যার দু’পিঠই ডিসপ্লে।

রাশিয়ার কোম্পানি ইয়োটা ডিভাইসেসর ইয়োটাফোনের বিশেষত্ব হল এর সামনে এবং পিছন, দু’পিঠেই রয়েছে ডিসপ্লে। প্রায় ৩ বছর আগে এই ফোনটি লঞ্চ করে কোম্পানি। ইয়োটাফোনের দ্বিতীয় স্ক্রিন অর্থাৎ ব্যাকস্ক্রিনটি হল ‘অলওয়েজ অন’ ডিসপ্লে। দু’টি স্ক্রিনেরই সাইজ ৪.৩ ইঞ্চি।

download (58)

অলওয়েজ অন ব্যাকস্ক্রিনটি হল ইলেকট্রনিক পেপার ডিসপ্লে। এই স্ক্রিনটিকে অলওয়েজ অন বলার কারণ হল ব্যাটারি প্রায় শেষ হয়ে গেলেও চালু থাকবে ডিসপ্লে। এই ব্যাক স্ক্রিনটিতে রয়েছে কার্ভড কর্নিলা গোরিলা গ্লাস প্রযুক্তি এবং তার ফলে স্ক্রিনটি যে কোনও ধরনের ড্যামেজ রেসিট্যান্ট।

এই অভিনব ফাংশনের পিছনে রয়েছে ই-ইংক প্রযুক্তি। এই ব্যাকস্ক্রিনের ডিসপ্লেটি বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে ই-রিডারদের জন্য। যাঁরা দীর্ঘক্ষণ ইন্টারনেটে বিভিন্ন আর্টিক্‌ল, ব্লগ বা সংবাদ পড়েন অথবা অফলাইনে ই-বুক পড়েন, তাঁদের চোখে যাতে স্ট্রেইন না পড়ে সেকথা ভেবেই এই স্ক্রিনটি বানানো। কোম্পানির বক্তব্য অনুযায়ী, টানা ৫০ ঘণ্টা এই স্ক্রিনে লেখা পড়লেও চোখে কোনও কষ্ট হবে না।

এই অভিনব স্মার্টফোনটির দ্বিতীয় এডিশন অর্থাৎ ইয়োটাফোন ২ লঞ্চ হয়েছে সম্প্রতি। ইয়োটাফোন ১-এর স্টক আপাতত শেষের দিকে তাই ফ্লিপকার্টে কয়েক জন বিক্রেতা দ্বিগুণেরও বেশি দামে বিক্রি করছেন এই ফোন। আসল দাম ৯০০০ টাকা হলেও এখন ২০,০০০ টাকা পর্যন্ত দামেও এই ফোন বিক্রি হচ্ছে। এত দাম দিয়ে পুরনো ফোনটি না কিনে আর কিছুদিন অপেক্ষা করে দ্বিতীয় ফোনটি কেনাই ভাল কারণ ফোন স্পেকস অনেক উন্নত হয়েছে দ্বিতীয় ভার্সনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *