New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof

0
336
****বিসমিল্লাহির রাহমানির রহিম*****
সবাইকে সালাম জানিয়ে শুরু করছি। আশা করি , আল্লাহর  রহমতে  সবাই ভলো আছেন। আপনাদের দোয়ায়  আর আল্লাহর রহমতে আমিও ভালো আছি।
 

প্রথমে জেনে নিই বিট কয়েন কি?

বিটকয়েন হল ওপেন সোর্স ক্রিপ্টোগ্রাফিক প্রোটকলের মাধ্যমে লেনদেন হওয়া সাংকেতিক মুদ্রা। বিটকয়েন লেনদেনের জন্য কোন ধরনের অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠান, নিয়ন্ত্রনকারী প্রতিষ্ঠান বা নিকাশ ঘরের প্রয়োজন হয় না। ২০০৮ সালে সাতোশি নাকামোতো এই মুদ্রাব্যবস্থার প্রচলন করেন। বিটকয়েনের লেনদেন হয় পিয়ার টু পিয়ার বা গ্রাহক থেকে গ্রাহকের কম্পিউটারে বা মোবাইলে । বিটকয়েনের সমস্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয় অনলাইনে একটি উন্মুক্ত সোর্স সফটওয়্যারের মাধ্যমে অথবা কোন ওয়েব সাইটের মাধ্যমে ।
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
বর্তমানে ১টি বিটকয়েনের মূল্য প্রায় ২২৪.৭৫ ডলার, প্রায় ৩ মাস পূর্বে ছিল ৪৭৫.৩৫ ডলার । অনেকটা শেয়ার বাজারের মতই এর দাম উঠানামা করে, যাহা অনেকেই প্রতিনিয়ত আপডেট দেখে বুঝতে পেরেছেন।

অর্থাৎ বর্তমানে 1 Bit coin = $২২৫!!!

বিট কয়েন এর উপযোগীতা:

১। বিট কয়েন পদ্ধতি অনেকটা নতুন বিষয়। এটাও এক ধরনের পেইজা, পেপাল, মানি বুকার্স এর মত বিট কয়েন লেনদেন পদ্ধতি বা গেট ওয়ে। বর্তমানে পৃথিবীর অনেক দেশেই বিভিন্ন গেটওয়ে পেমেন্ট প্রসেস হিসাবে অনেক সাইটে বিট কয়েন পদ্ধতি যুক্ত করা হয়েছে। ইউরোপ, অআমেরিকা উন্নত দেশেই অল্প সময়েই বিট কয়েন পদ্ধতি জনপ্রিয়তা অর্জন করে নিয়েছে। খুব বেশী একটা সময় হয়ত নাই, যেখানে সমগ্র দেশে বিট কয়েন্ট পদ্ধতি চালু হয়ে যাবে। সম্প্রতি বাংলাদেশে অনেকেই বিট কয়েন আয় করছেন।
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
৩। এর মাধ্যমে যে কোন জায়গাতে পেমেন্ট পরিশোধ, বিল প্রদান, বেতন-বোনাস দেওয়া যাবে। তাছাড়া বিট কয়েন মোবাইলে, ব্যাংক একাউন্ট কিংবা অন্য মাস্টার কার্ডে ট্রান্সপার করতে পারবেন।
৪। অন্য কোন শেয়ার মার্কেট কিংবা বিট কয়েন মার্কেটে এটা বিক্রয় করতে পারবেন।

বিট কয়েন একাউন্টঃ

আপনাকে প্রথমে একটি বিটকয়েন অ্যাড্রেস তৈরি করা লাগবে । এই অ্যাড্রেস সাধারনত ৩৪ Character -এর হয় । এই কারনেই এটা এতো বেশি সিকিউর । এটা মূলত বিট কয়েন গেটওয়ে পেমেন্ট প্রসেস বলা হয়ে থাকে। অর্থাত আপনি যে কোন সাইট হতে বিট কয়েন আয় করুন না কেন, এখানে সমস্ত বিট কয়েন আয় যুক্ত হয়ে যাবে। পরবর্তীতে এখান হতে সুবিধামত উইথ ড্র করতে পারবেন।

কিভাবে একাউন্ট তৈরি করবেন:

একাউন্ট তৈরি/ওপেন করা খুব সহজ। প্রথমত আমার এই পোস্ট ভালভাবে পড়ে নিন। অতপর পোস্টের টিউটোরিয়াল অনুসরন করে বাকি কাজ করলেই হবে।

১। প্রথমে এইলিঙ্কে যান > এরপর নিচের মত একটা পেজ আসবে

New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
২। এখানে Name অংশে আপনার নামের ১ম এবং শেষ অংশ দিন> Email  এর বক্সে আপনার মেইল অ্যাড্রেস এবং> Password  এর বক্সে আপনার পাসওয়ার্ড লিখুন> এবার সবশেষে টিক মার্ক দিয়ে Create Bit coin Wallet  লিঙ্কে ক্লিক করুন।
৩। এরপর আপনাকে ইমেইল অ্যাড্রেস ভেরিফাই করেত বলবে। আপনার ইমেইল অ্যাড্রেসে যান এবং VERIFY MY EMAIL ADDRESS-এ ক্লিক করুন। নতুন কোন উইন্ডো ওপেন হলে ক্লোজ করে দিন। অতপর এই সাইটে পূনরায় প্রবেশ করে  লগইন করুন আপনার ইমেইল ও পাসওয়ার্ড দ্বারা ( রেজি: করার সময়ে যাহা ব্যবহার করেছিলেন)। যদি লগইন করতে পারেন তাহলে বুঝবেন সঠিকভাবে একাউন্টটি ক্রিয়েট করতে পেরেছেন।

(লগইন করলে নিচের মত একটা পেজ আসবে )

New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
৪। এখান থেকে Setting  থেকে Bit coin Addresses এর উপরে ক্লিক করলে নিচের মত একটা পেজ আসবে। এরপর Create New Address করে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। নিচের মত একটা অ্যাড্রেস তৈরি হবে। এটাকে সেভ করে অথবা কপি করে রাখুন নোটপ্যাডে, পরে কাজে লাগবে মূলত বিট কয়েন সাইট হতে আয় এবং প্রতিবার লগইন করার জন্য।
৫। চাইলে একাউন্টটি আপনি ভ্যারিফাইড করে নিতে পারেন মোবাইল নং দ্বারা। এই জন্য একাউন্ট লগইন করে Verify a Phone অপশনে ক্লিক করুন। একটি বার্তা আপনার মোবাইলে যাবে। সেখানের প্রেরিত কোডটি এখানে ইনপুট করে দিলেই হবে। এই ক্ষেত্রে কয়েন-বেজ একাউন্টের নিরাপত্তা থাকবে। অবশ্য ব্যাংক একাউন্ট ভেরিফাইড কিংবা যুক্ত করার অপশন আসবে, আপাতত এটি করার প্রয়োজন নাই।New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof

বিট কয়েন আয়ঃ

এই সাইট থেকে আয় করার পদ্ধতি মোটামুটি এটিই। খুবই সহজ । ঠিক একই রকম অনেক সাইট রয়েছে । ঐ গুলার কাজ এই সাইট এর মতোই । আমি বেছে বেছে ঐ সাইট গুলার লিঙ্ক দিবো যে সাইট গুলা থেকে আমি পেমেন্ট পাইছি
 01. http://bit.ly/1NW8kMJ

02. http://bit.ly/1EgNwWk

03. http://bit.ly/1eMSC6T

04. http://bit.ly/1HFi6ws

05. http://bit.ly/1GxTxTk

06. http://bit.ly/1LwcYeE

07. http://bit.ly/1ARQAfw

08. http://bit.ly/1ARQDI6

09. http://bit.ly/1MsKlQB

10. http://bit.ly/1KABg7h

11. http://bit.ly/1FrnBvF

12. http://bit.ly/1cBRQI1

13. http://bit.ly/1FBEpPV

14. http://bit.ly/1MaV6q2

15. http://bit.ly/1cBRWj9

16. http://bit.ly/1GoIHkj

17. http://bit.ly/1QbQbvB

18. http://bit.ly/1cBS1Dd

19. http://bit.ly/1H8sVbX

20. http://bit.ly/1JrxDTY

21. http://bit.ly/1LPom87

22. http://bit.ly/1M9OqJ8

23. http://bit.ly/1HJJMSn

24. http://bit.ly/1NvQyfl

25. http://bit.ly/1KNTW3r

26. http://bit.ly/1HqvhTx

27. http://bit.ly/1U17FKu

28. http://bit.ly/1Ioicuw

29. http://bit.ly/1GoIHkj

30. http://bit.ly/1FKNKEL

31. http://bit.ly/1GLaMwY

32. http://bit.ly/1IoiqSn

33. http://bit.ly/1BRg3pM

34. http://bit.ly/1Joym5S

35. http://bit.ly/1LwcYeE

36. http://bit.ly/1HJJMSn

37. http://bit.ly/1JPocye

38. http://bit.ly/1G7pVqG
নিয়মাবলী:
প্রথম তো বিট কয়েন গেটওয়ে একাউন্ট তৈরি করলেন অনেকটা পেইজার মত। এবার তো আয় করতে হবে। আসলে বিট কয়েন নিয়ে আয় করার অনেক সাইট দেখেছি। কোনটিই আমার তেমন পচ্ছন্দ হয়নি। যে কয়টি সাইট দেখেছি অনেকটাই স্ক্যাম। অর্থাত বিট কয়েন নাম দিয়ে ব্যবসার ফায়দা লুটছে। তাছাড়া নিজে পর্যবেক্ষনে অআছি। যদি তেমন ভাল সাইট পাই তাহলে পরবর্তী পোস্টে জানাব। তবুও মন খারাপের কোন কারন নাই। ফ্রিভাবে বিট কয়েন পাবার জন্য আপনাদের এমন একটি সাইটের লিংক দিব যেখানে প্রতি ঘন্টাতে বিট কয়েন পাবেন কোন রকম কাজ ছাড়াই!!

১। প্রথমে এইলিঙ্কে যান

নিচের মত একটা পেজ আসবে । উক্ত কাজ গুলো করুন তথারুপ:
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
Your Bitcoin Address – এ কিছুক্ষণ আগে যে বিটকয়েন অ্যাড্রেস তৈরি করলেন সেটা দিন ।
Password For Your Account – এখানে আপনার পাসওয়ার্ড দিন ।
Repeat Password – এখানে পুনরায় একই পাসওয়ার্ড দিন ।
Your Email – এখানে আপনার ইমেইল দিন ।

ব্যাস এরপর Sign upবাটনে ক্লিক করুন । আপনার একাউন্ট হয়ে গেছে । ইমেইল ভেরিফাই করা লাগবে না ।

অতপর বিট কয়েন সাইটে প্রবেশ করুন > Have Account ক্লিক করুন> এখানে কয়েনবেজ একাউন্টের ঠিকানা এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগইন করুন। ( কয়েনবেজ একাউন্টের ঠিকানা হচ্ছে- আপনি কয়েন বেইজ সাইটে রেজি: করার পর ৩৬ ওয়ার্ডের এলোমেলো যে লিংক পেয়েছিলেন সেটিকে বুঝাচ্ছি)
২। এরপর ও পরের চিত্রে ২নং চিহ্নিত অংশের ঘরগুলো পুরন করুন এবং কেপচা দিয়ে LOGIN বাটনে ক্লিককরুন। এরপর নিচের মত পেজ আসবে। এরপর ১নং চিহ্নিত অংশের কেপচা দেখে ২নংচিহ্নিত বক্স পূরণ করে ROLL!(3) এ-ক্লিক করুন।
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
৩। এরপর যদি নিচের চিত্রের মত টাইমার(2) উঠা শুরু করে তাহলে আপনি Success ।আরযদি Invalid Code লেখা আসে তাহলে আবার TRY করুন হয়ে যাবে।এভাবে প্রতি ঘণ্টায় আপনি বিটকয়েন আর্ন করতে পারবেন। আবার ১ ঘন্টা পর আসুন এবং কেপচা পূরণ করে  ROLL-এ ক্লিক করুন। দেখবেন একাউন্টে বিট কয়েন যোগ হয়েছে। এভাবে ১ঘণ্টা পরপর ওয়েবসাইটে যান এবং আর্ন করতে থাকুন। নিচের চিত্রে দেখুন ৩নংচিহ্নিত অংশে আমার আর্ন দেখাচ্ছে।
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
 

 

পেমেন্টঃ

এবার আসি পেমেন্টের কথায় । এটা  ১০০% পে করে কারন একাউন্ট করার ১ বছরের মধ্যে প্রায় ১০০ বারের বেশী পে পেয়েছি । তাছাড়া আমার বন্ধুরা অনেকেই এটির সাথে সম্পর্কিত। তাদের অনেকেই প্রায় ১০-১৫ বারের বেশী পেমেন্ট পেয়েছে।
এরা প্রতি সোমবার পে করে । আপনার একাউন্ট Balance যদি 0.00005460 বিটকয়েনের বেশি হয় তাহলে সেটা অটোমেটিকভাবে সোমবারে আপনার একাউন্টে চলে যাবে । আপনার কিছু করতে হবে না ।
যেমন এই পোস্টটি করেছি আমি নিজে পরীক্ষা করে।  যেহেতু ফ্রিল্যান্স ও ব্লগ করার জন্য আমাকে মাঝেমধ্যে নেটে ১০-১৪ ঘন্টা থাকতে হয়। তাই এই সুযোগটা কাজে লাগাই। তেমন আপনিও লাগাতে পারেন। কেননা-
১। অন্য কোন পিটিসি সাইটের মত সময় নষ্ট হচ্ছে না। কিংবা ক্লিক করতে হচ্ছেনা। ফ্রিল্যান্স করার সাথে সাথেই উক্ত কাজটি করতে পারবেন। শুধুমাত্র প্রতি ঘন্টাতে ক্যাপচা পূরন করলেই হলো। অনেক ফ্রিল্যান্সার গণ বিট কয়েন হতেও আয় করছেন।
২। কোন কাজ না করলেও একাউন্ট ডিলেট কিংবা নষ্ট হবার ভয় নাই।
৩। যরা অল্প মেগাবাইট ব্যবহার করছেন। তারা প্রতি ঘন্টাতে এই সাইটে প্রবেশ করে কাজ শেষ হবার পর নেট কানেকশন বন্ধ করে দিন। অতপর পূনরায় একই কাজ করুন। মূল কথা সর্বদা নেট কানেকশন অযথা চালু করার প্রয়োজন নাই।
৪। এখনো যেহেতু ইউজার কম। সেহেতু এই সাইট বোধ হয় ফ্রিভাবে বিট কয়েন দিচ্ছে। পরবর্তীতে হয়ত কি হবে কে জানে! তাই মনে হয় সময় থাকতে বিট কয়েন অর্জন করতে সমস্যাটা কোথায়?
৫। এখানে কোন ইনভেস্ট, ডোনেট এমন কিছুর শর্ত নাই।
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof

কিছু নির্দেশনা ও কাজের কথা:

১। আমি এই পোস্টে মূলত ২ টি লিংকের সাথে পরিচয় করিয়ে দিয়েছি তথারুপ এর ১ম টি হচ্ছে coinbase। এটি মূলত একটি পেমেন্ট গেটওয়ে। এখানে কোন বাড়তি আয় হয় বলে ভূল করবেন না।  কেননা, এই সাইট অনেকটা অন্য পেমেন্ট গেটওয়ের মত যেমন: payapal, Ego pay, Payza ইত্যাদির মত। অর্থাত এখানে নিদিষ্ট অর্থ থাকলে তা অন্যত্র ট্রান্সপার কিংবা উইথ ড্র করতে পারবেন।
২। এমনকি যে সব সাইট গুলো হতে বিট কয়েন আয় করবেন, সেখানের অর্থ গুলো এই  coinbase সাইটে- জমা হয়। coinbase সাইটটি আসল ও ইন্টারন্যাশনালভাবে স্বীকৃত।
৩। বিট কয়েন একাউন্টে Multiply BTC অপশনে কোনরুপ পরিবর্তন আনবেন না তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে। যেমন আছে সেভাবেই কাজ করুন। অবশ্য রেফার অপশন দেখলে দোষ নাই।
New Bitcoin Earning site list: এবার আয় হবে দ্বিগুন, তিনগুন, বহুগুন বিটকয়েন দিয়ে recharge করুন with proof
৪। মূলত কয়েনবেজ হতে টাকা কিভাবে ক্যাশ করবেন তা অবশ্যই আমার পরবর্তী পোস্টে জানানো হবে, সেইজন্য অপেক্ষা করতে হবে। আপনাদের সুবিধার্তে কিভাবে কি কাজ করলে সহজে বাংলাদেশে টাকা তুলতে পারবেন তার নিয়ম জানাতেই একটু দেরি করছি। কারন বিভিন্ন উপায়ে/মাধ্যমে এই টাকা ক্যাশ করার সিস্টেম আছে। তার মধ্যে সবচেয়ে ভাল কোনটি তা আপনাদের জানানোই আমার একান্ত লক্ষ্য।
৫। কয়েন বেজে মিনিমাম ০.০১০০০০btc হলেই টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। পরামর্শ হল: মিনিমান ০.৫০০০০btc না হওয়া পর্যন্ত ট্রান্সফার না করাই ভাল। কারন এখানে প্রতি ট্রান্সফারে ০.০০২০০০btc চার্জ কাটে। তাই যত বেশি জমাতে পারবেন তত লাভ। একটু সময় দিয়ে যদি ১.০ BTC ইনকাম করতে পারলে মন্দ কি!!
৬। কয়েনবেজ ব্যাংক একাউন্ট আপাতত ভেরিফাইড করা লাগবে না, শুধুমাত্র টাকা জমা থাকলেই হবে।
 
৭। freebitco সাইটটি পিওর সাইট। যারা Auto-Withdraw ENABLED করা আছে তাদের 0.00005460 হলেই কয়েনবেজ ওয়েলেটে অর্থ পৌঁছে যাবে। তাহলেই বুঝতে পারবেন সত্যিই বিট কয়েন অর্জন করেছেন। অতপর: উক্ত একাউন্টে উক্ত পেমেন্ট সার্ভিসটি Disable করে দিন। কারন এতে আপনার ফ্রি কয়েন আয় করার পরিমান(২২০-৪৫০) বেড়ে যাবে।
৮। সুতরাং যতটুকু সময়-সুযোগ পান, কয়েন সাইটে বিট কয়েন উপার্জন করে যান। অন্য পিটিসি সাইটের মত সময় তো লাগছেনা। যেখানে অনেকেই বিনা কারনে অনলাইন থাকতেন, সেখানে এখন হতে সামান্য কিছু বিট কয়েন আপনার যদি সৌভাগ্য আনয়ন করে তাতে তো লাভ আপনারই!!
 
৯। একের অধিক একাউন্ট ওপেন  না করাটাই শ্রেয়। কারন যে কোন সময় ব্যান হতে পারেন।
 
 
 
এই সাইট গুলা Freebitco.in সাইট এর মতই । কিছু কিছু সাইট এ সুধু বিটকয়েন আড্রেস দিয়েই কাজ করা যায় , অন্ন কিছু লাগে না । কয়েকটি সাইট ইন্সট্যান্ট পেমেন্ট করে Microwallet.org এ । Microwallet এ 5825 সাতসি হলে আপনি কয়েন  আপনার Coinbase আকাউন্ট পাঠাতে পারবেন । Microwallet.org এ কোন আকাউন্ট করা লাগে না সুধু বিটকয়েন আড্রেস লাগে ।

কিভাবে মোবাইলে রিচার্জ করে নিবেন চলুন দেখা যাক:

যেই সকল সিম এ রিচার্জ করতে পারবেনঃ

  • রবি
  • Grameenphone
  • airtel
  • teletalk
  • CityCell
ও বলাই তো হলো না সর্বনিন্ম ০.0032 Bitcoin  মোবাইল এ রিচার্জ হবে
৫০টাকা
DON,T রিচার্জ LESS THEN ৫০টাকা

 

 

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
 
 
  • প্রথমে https://www.bitrefill.com এ যাবেন
  • Country সিলেক্ট করবেন বাংলাদেশ
  • আর তা করতে না চাইলে সরাসরি https://www.bitrefill.com/bangladesh/ এ যেয়ে সিম সিলেক্ট করেন।
  • তারপরে নিউ পেজে আপনার নাম্বার দিয়ে chek করে নিন (অবশ্যই নাম্বারের শুরুতে 88 বা ৮৮ দিবেন)
এর পরে আপনার মেইল এড্রেস চাইবে
 
  • মেইল এড্রেস দিয়ে বাম পাশ থেকে এমাউন্ট সিলেক্ট করে পে উইথ বিটকয়েন দিন।
  • নেক্সট পেজে একটা বিটকয়েন এড্রেস দিবে এবং কতো পাঠাতে হবে সেটাও বলা থাকবে।
  • আর আপনি ঐ এড্রেস এ কয়েন পাঠানোর সাথে সাথেই রিসিভ করবে প্রত্যেক বার অর্ডার করলে নতুন এড্রেস ও টাইম বেধে দাওয়া হয় ১৪মিনিট।
  • ওই টাইমের মধ্যে সেন্ড করতে হবে।
 
কয়েন পাঠানোর আগে অবশ্যই আপনার নাম্বার রিচেক করে নিবেন
ওরা কয়েন সাথে সাথে রিসিভ করে করলে এইটা দেখাবে
আপনার মেইল এ একটা মেইল যাবে। তারপর টাকাপাঠানোর সময় আরেকটা মেইল যাবে।আর মোবাইল এও কনফার্ম মেসেজ যাবে।
আমার প্রথমবার ২ মিনিট এর মধ্যে আসছে পরের টা 1মিনিট লাগছে।
আসা করি আপনাদের সবার কষ্টার্জিত টাকা হাতে পাবেন হাতে না পেলেও মোবাইল এ পাবেন । মেইল এড্রেস আর নাম্বার যেনো ভুল না হয়।
কোন প্রশ্ন থাকলে কমেন্ট অপশন তো আছেই
টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

9 − four =