এয়ারটেল পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম মোবাইল অপারেটর

By | 03/07/2015

গ্রাহকসংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মোবাইল অপারেটরে পরিণত হয়েছে ভারতী এয়ারটেল (এয়ারটেল)। দক্ষিণ এশিয়ার পাশাপাশি আফ্রিকার ২০টি দেশে টেলিযোগাযোগ সেবাদানে শীর্ষস্থানে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

বর্তমানে এয়ারটেলের কার্যক্রমভেদে গ্রাহক সংখ্যা ৩০ কোটি ৩০ লাখেরও বেশি বলে মঙ্গলবার (৩০ জুন) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে মোবাইল অপারেটর প্রতিষ্ঠানটি।১৯৯৫ সালের নভেম্বরে ভারতের নয়াদিল্লিতে কার্যক্রম শুরু করে এয়ারটেল। এরপর দুই দশকেরও কম সময়ে এটি উদীয়মান বাজারের একটি শীর্ষস্থানীয় ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে।

এই সময়ের মধ্যে আউটসোর্সিংয়ের উপর ভিত্তি করে লো-কস্ট বিজনেস মডেল উদ্ভাবনের মধ্য দিয়ে গ্রাহকদের মাঝে দ্রুতগতির সেবা ছড়িয়ে দেয়ার সক্ষমতার পাশাপাশি তাদের সুলভে মোবাইল টেলিফোন ব্যবহারের সুযোগ করে দিয়েছে এয়ারটেল।

ওয়ার্ল্ড সেলুলার ইনফরমেশন সার্ভিস (ডব্লিউসিআইএস) এর সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী গ্রাহকসংখ্যার দিক থেকে বিশ্বের শীর্ষ পাঁচটি মোবাইল অপারেটর কোম্পানির মধ্যে ৬২৬.২৭ মিলিয়ন মোবাইল সংযোগ নিয়ে এক নম্বরে রয়েছে চায়না মোবাইল।

দ্বিতীয় স্থানে ভোডাফোন গ্রুপ (৪০৩.০৮ মিলিয়ন), তৃতীয় স্থানে ভারতী এয়ারটেল (৩০৩.১০ মিলিয়ন), চতুর্থ স্থানে চায়না ইউনিকম (২৯৯.০৯ মিলিয়ন) আর পঞ্চম স্থানে রয়েছে আমেরিকা মোভিল (২৭৪.১৪ মিলিয়ন)।

এ প্রসঙ্গে ভারতী এয়ারটেলের চেয়ারম্যান সুনীল ভারতী মিত্তাল বলেন, এয়ারটেল এর যাত্রায় এটি একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক। ২০টি দেশের গ্রাহকরা আমাদের ব্র্যান্ডকে ভালোবাসে। বৈচিত্র্যপূর্ণ ভৌগোলিক এলাকায় বিরামহীনভাবে কার্যক্রম পরিচালনার পাশাপাশি প্রত্যেক গ্রাহককেই আমরা একই বিশ্বমানের সেবা প্রদান করে থাকি। এটাই সম্ভবত আমাদের সবচেয়ে বড় অর্জনগুলোর একটি।

এই রোমাঞ্চকর পথচলায় সাথে থাকার জন্য এয়ারটেলের কর্মী এবং ব্যবসায় সহযোগীদের ধন্যবাদ জানান সুনীল ভারতী।সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এয়ারটেলের মোবাইল নেটওয়ার্কের আওতায় বাস করেন ২০টি দেশের ১৮৫ কোটি মানুষ।

পাশাপাশি এই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে গতবছর ১.২৩ বিলিয়ন কল এবং ৩৩৩ পেটাবাইটসেরও বেশি ডাটা লেনদেন হয়েছে।বর্তমানে বাংলাদেশের ৮৩ লাখ ৫০ হাজার গ্রাহককে সমৃদ্ধ বর্ধনশীল মোবাইল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান এয়ারটেল দিচ্ছে টুজি ও থ্রিজি সেবা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *