রোবট পিঁপড়া

0
280

পরিশ্রমী হিসেবে পিঁপড়ার দুনিয়া জোড়া খ্যাতি রয়েছে। পিঁপড়ার এই সুখ্যাতির কারণে জামার্নির একদল বিজ্ঞানী রোবট পিঁপড়া তৈরি করেছেন। জীবন্ত পিঁপড়ার মত এরাও পরিশ্রমী এবং দল বেঁধে কাজ করে।

গবেষণাগারে তৈরি এসব বায়োনিক পিঁপড়ার শরীর ত্রিমাত্রিক প্রিন্টারে তৈরি। পিঁপড়ার পা গুলো নমনীয় সিরামিক দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। চোখে বসানো হয়েছে স্টেরিও ক্যামেরা।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

পিঁপড়া রোবট পিঁপড়া

জলজ্যান্ত পিঁপড়ার মত বায়োনিক পিঁপড়ারও আছে এ্যান্টেনা। এই এ্যান্টেনা থেকে অন্যসব পিঁপড়াদের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য সিগন্যাল প্রেরণ করা হয়। আবার এ্যান্টেনা দিয়ে রোবট পিঁপড়াগুলোর ব্যাটারি চার্জ করা হয়।

এই পিঁপড়াগুলো সমতলে চলাফেরা করতে পারে। দেয়াল বেয়েও উঠতে পারে। নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনে দলগত ভাবে কাজ করতে এরা বেজায় পঁটু।

এসব পিঁপড়াদের গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ করার জন্য পিঁপড়ার শরীরের নিচে সেন্সর বসানো হয়েছে। পিঁপড়াদের চলাফেরার জন্য ওয়ারলেস সিগন্যাল ব্যবহার করা হয়েছে।
বিজ্ঞানীরা রোবট পিঁপড়াগুলোকে আকর্ষণীয় করে তৈরি করেছেন। এগুলোকে দেখলে মনে হয় ‘বায়োলজিক্যাল টাইগার’।

রোবট পিঁপড়া কিন্ত মোটেও দেখতে অন্যসব পিঁপড়াদের মত ক্ষুদ্র নয়। এগুলোর এক একটির সাইজ মানুষের হাতের তালুর সমান।

এই রোবট পিঁপড়া তৈরি করেছেন জামার্নির ফিস্টো নামের একটি প্রকৌশল প্রতিষ্ঠান। বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন ভবিষৎতে মানুষের পরিবর্তে এই পিঁপড়াগুলো কারখানায় শ্রমিকের কাজ করবে। পাশাপাশি বিনা বাক্য ব্যয়ে এদের দিয়ে ঘরদোর সাফ-সুতোর করার কাজও করানো যাবে। অন্যসব পিঁপড়াদের মত রোবট পিঁপড়াগুলোও ক্লান্তিহীন ভাবে কাজ করতে পারে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

মন্তব্য দিন আপনার