সেকেন্ডেই বদলায় মোবাইল প্রযুক্তি

0
311

সেকেন্ডেই বদলায় মোবাইল প্রযুক্তিবার্সেলোনা যেতে হয় মূলত ফুটবলের উন্মাদনা দেখতে, রামব্লায় হাঁটতে কিংবা গাউদির সেই বাড়িটি দেখতে। কিন্তু এর বাইরেও নতুন করে লাখো মানুষ জড়ো হয় বার্সেলোনায়। উপলক্ষ—ওয়ার্ল্ড মোবাইল কংগ্রেস। ২০১৮ সাল পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে মোবাইল ফোন সংযোগদাতাদের আন্তর্জাতিক সংগঠন জিএসএম অ্যাসোসিয়েশন এই শহর বেছে নিয়েছে মোবাইল ফোনের এই মেলার জন্য।
এবারের মেলায় অংশ নেয় ৯০ হাজারের বেশি মানুষ। এতে বার্সেলোনার অর্থনীতিতে যুক্ত হয়েছে ৪৩ কোটি ৬০ লাখ ইউরো। আর ১৩ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হয়েছে। তবে এবারের মোবাইল কংগ্রেসে অর্থনীতির এসব অর্জন নয়, বরং আলোচনা বেশি ছিল নানা ধরনের মোবাইল প্রযুক্তি নিয়ে।
মোবাইল কংগ্রেসের উদ্বোধন হয় ২ মার্চ। চার দিনের কংগ্রেসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেই আয়োজক জিএসএম অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট জন ফ্রেডারিক বাকসাস বলেছিলেন, মোবাইল প্রযুক্তি এখন প্রতি সেকেন্ডে বদলে যাচ্ছে। আর কথাটির সত্যতা পাওয়া যায় প্রদর্শনীগুলোতে গেলেই। প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা এতটাই বেশি যে মনোযোগ দিয়ে দেখতে গেলে চার দিনই লেগে যাবে। তবে নতুন প্রযুক্তি দেখার জন্য ৩ নম্বর হলের একদম শেষ মাথায় ‘ইনোভেশন সিটি’তে গেলেই চলে।
ইনোভেশন সিটির একদম শেষ প্রান্তে গেলে মনে হবে যেন কোনো দাঁতের চিকিৎসকের চেম্বারে এসেছি। চিকিৎসককেও পাওয়া গেল সেখানে। আর ছিলেন ওরাল বি স্মার্ট সিরিজের টুথব্রাশ নিয়ে প্রক্টর অ্যান্ড গ্যাম্বলের (পিঅ্যান্ডজি) প্রতিনিধিরা। আপনি নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করছেন। কিন্তু তা কি সঠিকভাবে করছেন? স্মার্ট সিরিজের এই টুথব্রাশটি তারহীন ব্লুটুথের মাধ্যমে যুক্ত মোবাইল ফোনে। প্রতিবার দাঁত ব্রাশের পর কাজটি কতখানি নিয়ম মেনে হলো, তা সঙ্গে সঙ্গে জানা যাবে মোবাইল ফোনে। তথ্যটি একই সঙ্গে জানতে পারবেন আপনার চিকিৎসকও। তিনি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিতে পারবেন।
বাবোলাট ফ্রান্সের একটি ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান। রাফায়েল নাদাল যে টেনিস র্যা কেটটি ব্যবহার করেন, সেটি বাবোলাটের তৈরি। ইনোভেশন সিটিতে পাওয়া গেল ব্যাবোলাটের একটি টেনিস র্যা কেট। এই র্যা কেটও ব্লুটুথের মাধ্যমে মোবাইল ফোনের সঙ্গে সংযুক্ত। খেলা শেষ হলে কেমন খেললেন, কোথায় আপনার শক্তি, কোথায় দুর্বলতা, কয়টি ভুল ছিল, কতটা জোরে মেরেছেন—সব জানা যাবে।

গাড়িশিল্পও এখন মোবাইল প্রযুক্তি ব্যবহার করছে। বেশ কয়েকটি গাড়ি ও বাইসাইকেল ছিল ইনোভেশন সিটিতে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই গাড়ি বা বাইসাইকেল অনেকখানি নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। মার্কিন টেলিযোগাযোগ প্রতিষ্ঠান এটিঅ্যান্ডটি এখন জীবনযাপনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে মোবাইল প্রযুক্তির ব্যবহার নিয়ে কাজ করছে। মূলত ‘ডিজিটাল লাইফ’-এর একটি ছোটখাটো প্রদর্শনী পাওয়া গেল ইনোভেশন সিটিতে।
২০২০ সাল নাগাদ আসবে পঞ্চম প্রজন্মের মোবাইল ফোন প্রযুিক্ত ফাইভ-জি। কোরিয়ার প্রতিষ্ঠান কেটি ইনোভেশন সিটিতে দেখাল কীভাবে কাজ করবে ফাইভ-জি। মানুষের আগ্রহ ছিল এখানেও।
তবে সবচেয়ে ভিড় ছিল ইনোভেশন সিটিতে ঢোকার মুখেই। সেখানে লেখা অকুলাস রিফট। লম্বা লাইন। দাঁড়ালাম সেখানে। লাইন শেষে মঞ্চে ওঠার পর মাথায় পরিয়ে দেওয়া হলো যন্ত্রটি, নাম ‘ভার্চুয়াল রিয়েলিটি হেড মাউন্ডেড ডিসপ্লে’। প্রায় দেড় মিনিটের প্রদর্শনী। মূলত মোবাইল নেটওয়ার্ক দিয়ে কী কী করা সম্ভব, সেগুলোই দেখানো হলো। সেই ‘ভার্চুয়াল রিয়েলিটি শো’টি ছিল এবারের মোবাইল কংগ্রেসের অন্যতম আকর্ষণ। মার্কিন প্রতিষ্ঠান অকুলাস ভিআর চলতি বছরই এটি বাজারে ছাড়বে। মূলত যাঁরা ‘গেম’ পছন্দ করেন, তাঁদের জন্য নতুন এক অভিজ্ঞতা নিয়ে আসছে এই অকুলাস রিফট।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

Download All Full Version Software

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

9 + 10 =