অ্যান্ড্রয়েডের ইন্টারনাল মেমোরি বাড়িয়ে নিন

0
919

বেশিরভাগ অ্যান্ড্রয়েড ফোনেই ইন্টারনাল মেমোরি খুব কম থাকে। মাত্র ২০০-৪০০ মেগাবাইটের মত। কিন্তু বেশিরভাগ অ্যাপ্লিকেশনই ডিফল্ট অবস্থায় ইন্টারনাল মেমোরিতেই ইন্সটল হয় যার ফলে একসময় দেখা যায় যে মেমোরি ফুল এবং ফোন স্লো হয়ে গেছে। যদিও অনেক এপ এসডি তে ইন্সটাল করা যায়, কিন্ত সব করা যায়না বা করা গেলেও অনেক কিছু সেই ইন্টারনাল মেমরিতেই থেকে যায়। এই সব সমসার সমাধান হচ্ছে link2sd।

link2sd এমন একটি অ্যাপ যা আপনার ইন্টারনাল মেমরির সব অ্যাপ্লিকেশন আপনার SD Card এর ২য় partition-এ পাঠাবে। এটি ব্যবহারের আগে আপনাকে মেমোরি কার্ডে একটি দ্বিতীয় পার্টিশন করে নিতে হবে। এরপর এই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করলে আপনার আর কোনোদিন ইন্টারনাল মেমোরি ফুল এই চিন্তা করতে হবেনা। চলুন দেখে আসা যাক কিভাবে এটি ব্যবহার করবেন।

আপনার যা যা লাগবেঃ

  • ফোনটি rooted হতে হবে। কিভাবে রুট করবেন তা আপনার ফোন এর মডেল এর উপর নির্ভরশীল।
  • এসডি কার্ডটিতে ২টি পার্টিশন করতে হবে। এসডি কার্ড ব্যাকআপ রাখতেই হবে।
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

তো চলুন শুরু করা যাক।

ধাপ – ১: পার্টিশন করুন আপনার এসডি কার্ড

আপনার এসডি কার্ড ২ ভাবে পার্টিশন করা যেতে পারে। আমার পরামর্শ হচ্ছে clockworkmod recovery ব্যবহার করা। যদিও অনেকে minitool ব্যবহার করেছেন। এখানে দু’টোর ব্যবহারের পদ্ধতিই বলেছি।

Clockworkmod Recovery সিস্টেমঃ

  1. প্রথমেই রিকভারি তে ঢুকুন।
  2. Advanced মেনু তে যান।
  3. Partition SD card এ যান। ext দিন 512mb অথবা 1024mb। এর বেশি লাগবেনা; 512mb যথেষ্ট।
  4. swap 0mb দিন, অথবা 128mb করে রাখতে পারেন। swap এর কাজ পরে বলব।
  5. partitioning sd card আসবে, অপেক্ষা করুন। কিছুটা সময় লাগবে।
  6. Partitioning done! আসলে রিবুট করুন এবং ব্যাকআপ থেকে এসডি কার্ড এর ডাটা রিস্টোর করুন।

Minitool দিয়ে পার্টিশনের পদ্ধতিঃ

মেমরি কার্ডটি কার্ড রিডার দিয়ে পিসিতে কানেক্ট করুন। এবার এখান থেকে মিনিটুল ডাউনলোড করে নিন।

এর পর ইন্সটল করে মিনিটুল ওপেন করুন। এসডি কার্ড এর ড্রাইভ লেটার দেখে সেটি ডিলিট করে দিন (ডেটা চলে যাবে, তাই আগেই ব্যাকআপ রাখবেন)।

ইন্টারনাল মেমোরি 2 অ্যান্ড্রয়েডের ইন্টারনাল মেমোরি বাড়িয়ে নিন

  • এবার সেই ড্রাইভ এই create as দিন।
  • primary সিলেক্ট করুন।
  • ফাইল সিস্টেম 2gb এর কম হলে FAT দিন, বেশি হলে FAT32.
  • পার্টিশন সাইজ পুরো কার্ড দিবেন না।
  • শেষ এ unallocated space কিছু খালি রাখুন। এটিতেই আপনার ext পার্টিশন হবে।
  • আবার create as > primary দিন unallocated space-এ।
  • এবার ফাইল সিস্টেম দিবেন ext2. পুরো জায়গা টুকুই নিয়ে নিন।
 

ইন্টারনাল মেমোরি 3 অ্যান্ড্রয়েডের ইন্টারনাল মেমোরি বাড়িয়ে নিন

এবার ওকে দিয়ে অ্যাপ্লাই দিন।

(মিনিটুল দিয়ে পার্টিশনের গাইড নেয়া হয়েছে এক্সডিএ উইকি থেকে।)

এবার ব্যাকআপ থেকে ডাটা রিস্টোর করুন।

এতক্ষণ গেল পার্টিশন করা। মুল ঝামেলা শেষ!

Link2SD কনফিগারেশনঃ

  1. এবার ফোনে link2sd অ্যাপ্লিকেশনটি ডাউনলোড করে নিন। 
  2. ইন্সটল হলে ওপেন করুন । SuperUser request আসবে; allow করুন ।
  3. ফাইল সিস্টেম সিলেক্ট করতে বলবে। ext2 দিন। (minitool এ অন্য কিছু দিয়ে থাকলে ফাইল সিস্টেম সেটা দিবেন)।
  4. ওকে দিন। রিস্টার্ট করতে বলবে। ফোন রিস্টার্ট করুন।
  5. রিস্টার্ট করার পর আবার link2sd ওপেন করুন। একটা ডায়লগ আসবে, ওকে দিন।
  6. এবার নিচের ছবি তে যে অপশন থেকে মেনু বেরিয়েছে সেটি ক্লিক করুন।
  7. এবার মেনু থেকে multi-select ক্লিক করে select all দিন । এরকম হবেঃ
  8. এবার actions থেকে create link দিন।
  9. তিনটি অপশনই tick করুন এবং ওকে দিন ।
  10. Create হবে, শেষ হলে ওকে দিন।
  11. প্রায় শেষ। এবার যেন ভবিষ্যতে অটো লিঙ্ক হয় তার ব্যবস্থা।
  12. মেনু থেকে সেটিং এ যান।
  13. Auto link ক্লিক করুন।
  14. তিনটি অপশনই Tick দিন। এবার বেরিয়ে যান।
  15. ব্যাস, আপনার আর কখনও ইন্টারনাল মেমরি নিয়ে ভাবতে হবেনা।
  16. মেমরি স্ট্যাটাস দেখতে link2sd এর মেনু থেকে storage info দিন।

অবশিষ্ট

ext2, ext3, ext4 এগুলো ফাইল সিস্টেম। link2sd তে ext2 সবচেয়ে দ্রুত কাজ করে। অবশ্য চাইলে FAT ব্যবহার করতে পারেন।

swap যদি করে থাকেন, তাইলে নিচের কাজ টি করুন। শুধু Advanced User-দের জন্যে। কাজ করবে কিনা তা পুরোপুরি ফোনের উপর। কাজ না করলে আমার কিছু করার নেই।

কোনও Root Browser দিয়ে /etc/init.d ফোল্ডার এ new file create করুন। নাম দিন 16swapon। এই কাজে Solid Explorer ব্যবহার করতে পারেন।

এবার সেটি টেক্সট ফাইল হিসাবে ওপেন করুন এবং লিখুনঃ

#!/sbin/sh
swapon /dev/block/mmcblk0p3

(উপরে blk এর পর zero, ও না )

এবার সেভ করে ফাইল এর properties এ যান। permissions থেকে প্রত্যেকটিতে টিক দিন। সেভ করুন । এবার ফোন রিস্টার্ট করুন। কাজ করলে terminal emulator এ free লিকে enter দিলে swap এর পাসে কিছু ভ্যালু পাবেন; না হলে swap 0 দেখাবে। swap on করলে আপনার ফোন এর RAM হিসাবে swap অংশ টুকু কাজ করবে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

nine + 14 =