একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

0
461

আপনি যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম যুক্ত স্মার্টফোনের ইন্টারফেস আপনার ইচ্ছে মত কাস্টম রম ইন্সটলেশনের ঝামেলা ছাড়াই পরিবর্তন করতে চান তবে এর সবচাইতে ভালো সল্যুশন হচ্ছে ‘XPOSED Framework’, তবে হ্যাঁ, এর জন্য অন্তত আপনার ডিভাইসটিকে রুটেড হতে হবে। এটি মূলত একটি টুইকার যার মাধ্যমে আপনি সিস্টেম ইন্টারফেসতো পরিবর্তন করতে পারবেনই, পারবেন আরও বিভিন্ন রকম মজাদার সেটিংস পরিবর্তন অথবা সংযোজন করতে। চলুন, কথা না বাড়িয়ে শক্তিশালী এই টুইকারটিকে কত ভাবে ব্যবহার করা যায় তা দেখে নেয়া যাকঃ

হার্ডওয়্যার বাটন রিম্যাপ করা

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

XPOSED Framework –এ মূলত বিভিন্ন রকম মডিউ্যল ব্যবহার করা যায়। এবং একেক মড্যিউলের একেক রকম কাজ হয়ে থাকে। কিছু কিছু মড্যিউল অবশ্য ‘একের ভেতর অনেক’ সুবিধাও দিয়ে থাকে ছোটবেলার সেই ‘পাঞ্জেরী’ গাইডের মত। যাই হোক, XPOSED Framework ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার স্মার্টফোনের হার্ডওয়্যার বাটনের কাজ রিম্যাপ বা নতুন করে অ্যাসাইন করতে পারবেন। সবার বোঝার জন্য সহজ উদাহরণ, আপনার ডিভাইসের ভল্যিউম আপ বাটনটিকে আপনি ইচ্ছে করলেই XPOSED Framework এর মাধ্যমে ডেডিকেটেড ক্যামেরা বাটনে অ্যাসাইন করতে পারেন অথবা ধরুন, আপনার ‘লক’ বাটনটি নষ্ট হয়ে গিয়েছে, আপনি ইচ্ছে করলেই অন্য যে কোন বাটনকে লক বাটন হিসেবে নিযুক্ত করতে পারেন।

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার2 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

অ্যাপলিকেশনের পারমিশন ম্যানেজ করা

‘প্রিয়’ পাঠক, আপনারা যারা অ্যাপলের আই.ও.এস ব্যবহার করেছেন তারা নিশ্চয়ই ‘অ্যাপ পারমিশন’ ম্যানেজ করার বিষয়টি ধরতে পেরেছেন; সেই সাপোর্ট আপনি অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মেও ব্যবহার করতে পারবেন XPOSED Framework ব্যবহার করে। আর যারা এ সম্পর্কে কিছু জানেন না তাদের জন্য সহজ ভাষায় শুধু এভাবে ব্যাপারটিকে সংজ্ঞায়িত করতে চেষ্টা করছি যে, ‘একটি অ্যাপলিকেশন ডিভাইসে ইন্সটল করার সময় সেই অ্যাপলিকেশনটির শতভাগ কাজের জন্য আপনার ডিভাইসের বিভিন্ন ইউনিট এক্সেস করার জন্য পারমিশন চেয়ে থাকে। সেই পারমিশন আপনার ইচ্ছে মত নির্ধারন করে দেয়াটাই হচ্ছে অ্যাপ পারমিশন ম্যানেজ করা।‘

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার3 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

সাইড বাই সাইড মাল্টি টাস্কিং সুবিধা

এখন পর্যন্ত ডিফল্ট অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের ভার্শনগুলো একই সময়ে স্ক্রিনে সাইড বাই সাইড দুটি অ্যাপলিকেশন রান করতে সক্ষম নয়, তবে কিছু থার্ড-পার্টি কাস্টম রমে এই সুবিধা পাওয়া যায়। কিন্তু আপনি ঝামেলা এবং থার্ড-পার্টি রম এড়িয়ে খুব সহজেই গ্যালাক্সি নোট এর মত সাইড বাই সাইড মাল্টি টাস্কিং উপভোগ করতে পারবেন যে কোন ডিভাইসে, শুধুমাত্র XPOSED Framework ব্যবহার করেই।বলে রাখা ভালো, এখন পর্যন্ত এই মড্যিউলটি নিখুঁত নয় তবে আপনার খারাপও লাগবে না আশা করছি। কেননা, ফেসবুকের নিউজ ফিড ঘাটতে ঘাটতে ইউটিউবে ভিডিও দেখা – মন্দ কি?

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার4 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

এক্সটেন্ডেড পাওয়ার মেন্যু / কাস্টোমাইজড পাওয়ার মেন্যু সুবিধা

কাস্টম রমে দেখা গেলেও ডিফল্ট অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের পাওয়ার মেন্যুতে খুব বেশি একটা সুবিধা দেখা যায়না। পাওয়ার অফ, রিবুট এবং এয়ারপ্লেন মোড – এগুলোতেই সীমাবদ্ধ থাকতে দেখা যায়। কিন্তু, এই টুইকারটি ব্যবহারের ফলে আপনি পাওয়ার মেন্যুতেও বাড়তি অ্যাডভান্স অপশন যোগ করতে পারবেন।

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার5 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

আনসেফ ভল্যিউম ওয়ারনিং সেটিংস

অ্যান্ড্রয়েডে আপনি যখন গান শুনতে শুনতে ভল্যিউম বাড়াবেন তখন একটি নির্দিষ্ট লেভেলে যাবার পর অ্যান্ড্রয়েড একটি ওয়ার্নিং দেখায় ‘Raise volume above safe level?’ । মূলত, এটি আপনার ভালোর জন্যেই যুক্ত করা হয়েছে। তবে সমস্যা হচ্ছে, একই আউটপুটের সাউন্ড বিভিন্ন হেডফোনে বিভিন্ন রকম শোনা যায়। তাই, কিছু কিছু হেডফোনে সেফ লেভেলের উপরেও ভল্যিউম না দিলে বলতে গেলে শোনা যায়না। আর এই পপ আপ বার্তাটি যে একবার দেখায় তাও নয়, এটি বার বার দেখাতেই থাকবে। আবার ধরুন, আপনার পকেটে আপনার ডিভাইসটি আছে, তাই আপনি যদি এই সেটিংসের আওতায় থেকে ভল্যিউম বৃদ্ধি করতে চান তবে আপনাকে কিন্তু প্রথমেই আপনার পকেট থেকে ডিভাইসটি বের করতে হচ্ছে। তাই এটি যদি আমার মত আপনারও বিরক্তির কারণ হয়ে থাকে তবে আপনি ইচ্ছে করলে এই ওয়ার্নিং-ও ডিঅ্যাকটিভেট করতে পারবেন।

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার6 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

থার্ডপার্টি লঞ্চারের জন্য OK গুগল

অ্যান্ড্রয়েডের গুগল লঞ্চার ছাড়া অনান্য থার্ড-পার্টি লঞ্চার গুলোতে সাধারণত OK গুগল ব্যবহার করা যায়না। তবে এই XPOSED Framework এর মড্যিউল থাকতে চিন্তা নেই। আপনি ইচ্ছে করলেই যে কোন লঞ্চারের সাথেই OK গুগল সুবিধা ব্যবহার করতে পারবেন।

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার7 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

মনের মত সাজান

XPOSED Framework এর অধীনে আছে GravityBox এবং Xblast এর মত চমৎকার কিছু মড্যিউল যার মাধ্যমে আপনি আপনার স্মার্টফোনটিকে বানিয়ে ফেলতে পারবেন সুপার স্মার্ট। কেননা, এই মড্যিউল গুলো ব্যবহার করে আপনি লক মেন্যু, স্ট্যাটাস বার, কুইক টাইল বার ইত্যাদি সাজিয়ে নিতে পারবেন ঠিক আপনার মনের মত করেই।

শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার8 একটি শক্তিশালী অ্যান্ড্রয়েড টুইকার XPOSED Framework

শেষ কথাঃ

এতক্ষন ধরে আমি অনেক কিছুই লিখেছি। কিন্তু, বলতে গেলে আসলে আমি কিছুই লিখিনি। কেননা, XPOSED Framework এর আছে অসংখ্য মড্যিউল যার রয়েছে আবার চমৎকার সব আউটপুট। আমি শুধুমাত্র হাতে গোনা কয়টা মড্যিউলের স্ক্রিন শট দিয়েছি আরকি। আপনার ডিভাইসটি রুটেড হলে আপনিও XPOSED Framework ঘাটতে শুরু করে দিন, এর মড্যিউলের জগতে নির্ঘাত হারিয়ে যাবেন।

Advertisement -
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

2 × five =