জিমেইলের ব্যাকআপ নিন এবং নিজের ই-মেইলকে রক্ষা করুন

5
302
জিমেইলের ব্যাকআপ নিন এবং নিজের ই-মেইলকে রক্ষা করুন

2fun

-------------------------------------------------------------------------------------------------------
কপি পেস্ট করার দায়ে এই টিজে কে স্থায়ী ভাবে ব্লগ থেকে ব্যান করা হল।
অ্যাডমিন প্যানেল।
টিউনারপেজ
-------------------------------------------------------------------------------------------------------
জিমেইলের ব্যাকআপ নিন এবং নিজের ই-মেইলকে রক্ষা করুন

অনলাইনে যোগাযোগের অন্যতম বাহন হল ই-মেইল। সোশ্যাল মিডিয়া ওয়েবসাইটগুলো যোগাযোগের পথকে সুগম করে দিলেও ই-মেইল তার স্থান অক্ষুন্ন রেখেছে। ব্যক্তিগত ই-মেইল থেকে শুরু করে কর্পোরেট লেভেলের ই-মেইল সবগুলোই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্ট বলা যেতে পারে। আর নেটিজেনদের এত গুরুত্বপূর্ণ সম্পদ নিশ্চয় অরক্ষিত থাকতে পারে না।

হ্যাকারদের খপ্পরে পড়ে অনেকেই তাদের ব্যক্তিগত তথ্যগুলো হারাচ্ছেন। কিছুদিন পূর্বে জিমেইলের অনেক ব্যবহারকারীদের মেইল অদৃশ্য হয়ে গেছে। আবার এই সমস্যার ব্যখ্যা হিসেবে গুগল তাদের সার্ভার সমস্যার দোহাই দিয়েছে। আর এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণের একমাত্র উপায় কি হতে পারে? জানা না থাকলে আমি বলছি সেটি হল “ব্যাকআপ”।
কেন ব্যাকআপ নিবেন?
১. আপনার একাউন্ট হ্যাক হয়ে গেলেও ভয় নি। ব্যাকআপ নিয়ে রাখলে পূর্বের গুরুত্বপূর্ণ মেইলগুলো সহজেই একসেস করতে পারবেন।
২. অনেক সময় ভুল করে কোন জরুরী মেইল ডিলিট হয়ে গেলে ব্যাকআপে থাকা মেইল থেকে সেটি পেতে পারেন।
৩. বাংলাদেশি প্রেক্ষাপটে দেখা যায়, আমাদের ইন্টারনেট কানেকশন অনেক স্লো। যদি কখন পুরাতন মেইল পড়ার প্রয়োজন পড়ে স্লো কানেকশনের জন্য যদি আপনি মেইল একসেস করতে না পারেন তাহলে ব্যাকআপই শেষ সম্বল।
জিমেইল ব্যাকআপ নেওয়ার অনেক পদ্ধতি আছে। এখন আপনি সিদ্ধান্ত নিন কোন পথে আপনি হাটবেন। সবচাইতে সহজ পদ্ধতি হল ই-মেইল ফরওয়ার্ডিং। ব্যাকআপ প্রোগ্রাম ব্যবহার করেও এই কাজটি সহজে করা যায়। চলুন ই-মেইল ফরওয়ার্ডিং দিয়ে শুরু করা যাক।
পদ্ধতি ১ ই-মেইল ফরওয়ার্ডিং

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

সর্বপ্রথম জিমেইলে লগিন করে সেটিংস এ যান। সেখান থেকে Forwarding and POP/IMAP  ক্লিক করুন। তারপর Add a forwarding address এর নিচের বক্স থেকে যেই ই-মেইল অ্যাড্রেসে ফরওয়ার্ড করতে চান সেই অ্যাড্রেসটি দিয়ে সেভ চ্যাঞ্জেস এ ক্লিক করুন। ফরওয়ার্ডকৃত ই-মেইলে একটি কোড যাবে সেটি পূর্বের Forwarding and POP/IMAP এ গিয়ে পেস্ট করে দিয়ে ভেরিফাইতে ক্লিক করুন। ই-মেইল ফরওয়ার্ডিং এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হল আপনার মেইল বক্সে আগত নতুন মেইল আপনার ফরওয়ার্ডকৃত মেইলেও ডেলিভার্ড হবে। অর্থাৎ এক মেইলের দুই কপি।
পদ্ধতি ২ অনলাইন টুলের ব্যবহার

Backupify একটি অনলাইন টুল। জিমেইল বাদেও অন্যান্য সার্ভিসের ব্যাকআপ এটি রাখতে পারে। এদের ব্যাকআপ সার্ভিস অনেক নিরাপদ। ব্যাকআপ নেওয়া অনেক সহজ,বাড়তি ঝামেলার প্রয়োজন হয় না। সাইটটি ফ্রি এবং প্রিমিয়াম উভয় সার্ভিস প্রদান করে। সাইটটিতে গিয়ে একাউন্ট খুলে এখনই ব্যাকআপ নেওয়া শুরু করে দিন।
পদ্ধতি ৩ ডেস্কটপ অ্যাপ্লিকেশনের ব্যবহার

উপরের কোন পদ্ধতি পছন্দ না হলে ডেস্কটপ অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে দেখতে পাবেন। জিমেইল ব্যাকআপ নামক এই সফটওয়্যারটি দিয়ে সহজেই ব্যাকআপ নিতে পারেন। সফটওয়্যারটি ইন্সটল করে ইউজারনেম,পাসওয়ার্ড ও কত তারিখ থেকে কত তারিখের ই-মেইল ব্যাকআপ নিবেন তা উল্লেখ করে দিয়ে ব্যাকআপ নিয়ে নিন। তবে ব্যাকআপ নিতে হলে আপনার জিমেইলের IMAP সেটিংস এনাবেল থাকতে হবে। তানহলে ব্যাকআপ নেওয়ার সময় ইরর দেখাবে। ব্যাকআপগুলো আউটলুক দিয়ে দেখতে পারবেন।
এই তিনটি ছাড়াও আরো অনেক পদ্ধতি আছে। আমি সহজ তিনটি শেয়ার করলাম। আপনার এর থেকেও উত্তম কিছু থাকলে শেয়ার করতে ভুলবেন না। কাঙ্খিত সমালোচনা আশা করছি।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

5 মন্তব্য

  1. খুবই ভালো ও কাজের টিউন……. শেয়ার করার জন্ন আপনাকে ধন্নবাদ…

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

eight + ten =