Facebook Advertisement এর কথা ভাবছেন তার আগে কিছু নিয়ে নিন টিপস (সমস্যা ও সমাধান)

0
588

আপনি কি Facebook Advertising নিয়ে ভাবছেন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা আগের তুলনায় ফেসবুক ও টুইটার এর মত সামাজিক মিডিয়া প্লাটফর্মে উপর আরো সময় খরচ করে . একটি marketer অথবা একটি বিজ্ঞাপনদাতা হিসাবে আপনি ফেসবুকে বিজ্ঞাপনের ব্যাপারে গুরুত্ব না দেন বা অনিচ্ছুক হন, তাহলে আপনি লক্ষ লক্ষ ভোক্তা হারাবেন।

এর আগে, শুধুমাত্র গুগল অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিত বা গুগোলের মাধ্যমে অনলাইনে বিজ্ঞাপণ দেয়া যেত এর নাম Google Adwords কিন্তু এখন Google Adwords এর চেয়ে Facebook এ বিজ্ঞাপন দেয়া কম জরুরি না বরং কিছু ক্ষেত্রে এটি আরো বেশি ফল্প্রুশু।ফেসবুক গুগল Adwords প্রতিস্থাপন না কিন্তু এখনও এটি খুব কার্যকর , তবে অনেক সময় বেশ কিছু ভুলের কারোনে বা অনভিজ্ঞতার কারনে Facebook Advertisement এ কার্যকর ফল আসে না। ভালো ফল পেতে তাই আমি কিছু টিপস নিচে দিলাম আসা করি আপনাদের কাজে লাগবে।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

নিম্নলিখিত একটি নিখুঁত ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্রচার তৈরি করার কিছু টিপস :

1 . আপনার দর্শকদের কে টারগেট করুন।

শুধু ফেসবুকে বিজ্ঞাপন জন্য নয় যেকোন বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্যই ক্যাম্পেইন শুরু করার আগে আপনার জানা দরকার বা টার্গেট ক্লাইন্ট কারা তার সুস্পষ্ট ধারনা থাকা দরকার। আপনার ক্লাইন্ট কারা তাদের বাসস্থান তাদের বয়স ইত্যাদি। ফেসবুকের মত সামাজিক মিডিয়া ওয়েবসাইটে বেশির ভাগ ইউসার 12 বছর থেকে 35 বছর বয়সের । যাইহোক, তাদের বিষয়ে পুঙ্খানুপুঙ্খ গবেষণা পরিচালনা করতে হবে। তাদের চাহিদা তাদের ফেসবুকে দায়া সময়ের পরিমান তাদের রুচি, ভৌগোলিক অবস্থান, বৈবাহিক অবস্থান ইত্যাদি। অনেক সময় অনেক টাকা খরজ করে বিজ্ঞাপন দেয়ার পর ও ভালো ফল পাওয়া যায় না এর কারন হল অনভিজ্ঞতা এবং ভালো পরিকল্পনা না থাকা।

2. আপনার বিজ্ঞাপন তৈরি করুন

আপনার বিগাপন টি হবে একটি ছবি এবং একটি 100 শব্দ দ্বারা গঠিত। সুতরাং আপনাকে এর মধ্যেই আপনার প্রোডাক্ট বা সার্ভিস এর প্রচার করতে হবে। ফেসবুক একটি অনলাইন প্লাটফর্ম সুতরাং এখানে ইমেজ খুবি গুরুতবপুর্ন আমরা ফেসবুকে অনেক বিগাপন দেখি খেয়াল করে দেখুন আপনি কিন্তু ইমেজটি ই আগে দেখেন কিছু সময় ব্যাতিক্রম ও হয়।

তাই খুব হাই রেজুলেশন মানে স্পস্ট ইমেজ নির্বাচন করুন আর এমন ইমেজ নির্বাচন করুন যাতে ইমেজ দেখলে মানুষ আকৃস্ট হয় এবং বিজ্ঞাপন এর ভাসা বুঝতে পারে।

 

3 . নির্দিষ্ট কোন বিজ্ঞাপন নির্মাণ

আপনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হতে হবে বিজ্ঞাপন এমনভাবে তৈরি করা যাতে দর্শক আপনার বিজ্ঞাপন আগ্রহ নিয়ে দেখে এবিং খুব সহযেই বুঝতে পারে। বিজ্ঞাপনটি এমন ভাবে তৈরি করা প্রয়জন যাতে দর্শক যখন দেখবে তখন যেন তার সম্পূর্ন মোনযোগ ওই বিজ্ঞাপন এর দিকেই থাকে। আপনি অন্যান্য PPC প্ল্যাটফর্মের উপর কাজ করার অভিজ্ঞতা না থাকে তাহলে আপনি খুব সচেতন হওয়া প্রয়োজনথাকে।
5 থেকে 10 বিজ্ঞাপন তৈরি করা সবসময়ই ভালো কারণ বার বার এক জিনিশ বিরক্তিকর।

4 . গন্তব্য হিসেবে ফেসবুক ফ্যান পেজ সেট করুন

ল্যান্ডিং পেজ আপনার ফেসবুক পাতা হতে হবে। এছাড়াও আপনি ফেসবুক ফেন পেজ ব্যবহার করে আপনার বিজ্ঞাপন শিরোনাম সম্পাদনা করতে পারেন। এতে করে ভিসিটর আপনার সম্পরখে আপডেট জানতে পারবে এবং এপ্নিও সহজে জানাতে পারবেন।
এটি আপনার সঠিক গ্রাহক বাড়ানো ভাল উপায় হতে পারে।

 

5 . স্পনসর্ড এডস

স্পনসর্ড এড নতুন ফিচার ফেসবুক এর ওপরের অংশের দান দিকের এডগুলোর কথা বলছি আমি। (স্পনসর্ড এড হল সেই বিগাপন এতে ফেসবুক দর্শককে সেই বিজ্ঞাপন ই দেখায় যাতে তার আগ্রহ আছে বা সে দেখতে চায় তার প্রফাইল পছন্দ ইত্যাদির উপর নির্ভ্রর করে ফেসবুক তা নির্ধারন করে)
এছাড়াও এর দ্বারা আপনি আপনার ফেসবুক ফ্যান পেজ এর লাইক বারবে ফেসবুকে বিজ্ঞাপন স্পনসর্ড এডস ডিফল্টরূপে নির্বাচিত হয়। তবে আপনি চাইলে শুধুমাত্র স্পন্সর এডস বিজ্ঞাপনই দিতে পারবেন।

6 . দর্শন প্রতি খরচ ( CPM )

এর মানে আপনি যদি চান তাহলে কতযন দেখবে তা অনুযাই টাকা সোধ করবেন কতজন ক্লিক করল তা অনুযাই না। আপনি 100 ক্লিক পান আর ১ ক্লিক আপনাকে সমান ই টাকা সোধ করতে হবে কারোন আপনার বিল হবে ১০০০ দর্শন প্রতি মানে কত জন দেখেছে আপনার বিজ্ঞাপন তার উপর কতজন ক্লিক করেছে তার উপর নয়।

সুতরাং CPM আপনার বাজেট টাইট হলে ফেসবুক বিজ্ঞাপন শুরু করার সেরা উপায়.

7 . একটি উদ্দীপক অফার

একটি ইউসার অনলাইনে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে দৈনন্দিন শত শত বিজ্ঞাপন দেখে . সুতরাং কেন তিনি আপনার বিজ্ঞাপন শুধুমাত্র ক্লিক করবে? আপনি যদি তাদের আপনার বিজ্ঞাপন ক্লিক করাতে চান তাহলে বিনামূল্যে কুপন বা বিনামূল্যে সদস্যপদ প্রদান করা হবে এজাতিয় চমকপ্রদ কিছু লিখুন। আপনার বিজ্ঞাপন অন্যদের থেকে আলাদা হতে হবে এবং বিনামূল্যেকিছু অফার করা ভাল উপায় ।

 

8 . বাজেট

এটি অনেক গুরুতবপূর্ন পুরো এড ক্যাম্পেইনে আপনার বাজেট কত, খরজ কত করতে চান, প্রতিদিন বাজেট কত, আর এড ক্যাম্পেইনে চলবে কতদিন ইত্যাদি আগে ঠিক করে নেয়া প্রয়জন। খুব কম বাজেট হলে অনেক কিছু মাথায় রাখতে হবে বাজেট যদি হয় ৩০ ডলার এর নিচে, তাহলে এড ক্যাম্পেইন থেকে তেমন কিছু আসা না করাই ভালো কমপক্ষে ৫০ ডলার দিয়ে শুরু করা যেতে পারে আপনি যদি একদম নতুন হন তাহলে প্রথমে প্রতিদিন এর বাজেট করুন ২/৩ ডলার এবং দেখুন ফলাফল কেমন আসে তারপর আস্তে আস্তে বাজেট বারান।

আমাদের ব্লগঃ টেকসময়

ধন্যবাদ সবাইকে ।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

16 + 17 =