ফরমালিন ও ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত রাজশাহীর আম!

1
432
ফরমালিন ও ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত রাজশাহীর আম!

আয়নাল

আসসালামু আলাইকুম ওয়া রহমাতুল্লাহ বন্ধুরা। আমি আয়নাল। পছন্দ করি হেল্প করতে। ইসলামিক জীবন সম্পর্কে সকলের সাথে একটু জ্ঞান প্রচার করার জন্য আমার এবং আমার ৫ বন্ধু/ভাইদের এই ছোট্ট প্রয়াশ {islamicambit.com(এসো হে তরুন,ইসলামের কথা বলি)}। সকলের কাছে অনুরোধ -আসুন আমরা আমাদের ইসলামিক জ্ঞান সকলের সাথে শেয়ার করি এবং সকলেই সে অনুযায়ী আমল করি। ধন্যবাদ সকলকে
ফরমালিন ও ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত রাজশাহীর আম!

RajshahirAm Logo ফরমালিন ও ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত রাজশাহীর আম!

সম্পুর্নরুপে বানিজ্যিক কার্জক্রম অনুসারে আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, রাজশাহী/চাঁপাই থেকে সরাসরি আমাদের পার্টনার বাগান থেকে সারাদেশে আম সাপ্লাই করবো। আমরা ঢাকাতে হোম ডেলিভারি দিবো আর ঢাকার বাইরে সিটিগুলোতে কুরিয়ারে পাঠাবো আপনাকে কুরিয়ার থেকে সংগ্রহ করতে হবে। আমরা বাজার মূল্যের থেকে কম দামে সম্পুর্ন রুপে ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত আর ফরমালিন মুক্ত আম সারাদেশে সাপ্লাই দিবো। আমাদের প্রতিটা প্রেরন করা আম হবে ম্যানুয়ালি চেক করা ও আমাদের বিশেষ স্টিকার সমৃদ্ধ। এতে থেকে বুঝে যাবেন যে আমাদের প্রতিটা আম চেক করে পাঠানো হয়েছে। আমাদের আম ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত তাই হয়তো বাসায় আনার পরে কয়েকদিন রেখে খেতে হতে পারে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

ক্যালসিয়াম কার্বাইড কি?
ক্যালসিয়াম কার্বাইড এক ধরনের ক্যেমিক্যাল যার সংকেত হলো CaC2। ইহা পানির সাথে বিক্রিয়া করে ইথিলিন গ্যাস আর চুন তৈরি করে। এই ইথিলিন গ্যাসকে পলিমার বিক্রিয়া করা হলে পলিথিন তৈরি হয়। মানে বলতে পারেন পলিথিন তৈরির কাঁচামাল। কিন্তু এই গ্যাসের উদ্ভিদের একটা শরীর বৃত্তীয় ফাংশন আছে তা হলো কাচা ফল কে পাক্তে সাহায্য করে। তাই অসাধু ব্যাবসায়ীরা ফল দ্রুত পাকাতে ক্যালসিয়াম কার্বাইড দিয়ে থাকে। যাতে ফল দ্রুত পাকতে পারে। ক্যালসিয়াম কার্বাইড দেওয়া ফল বিষাক্ত এই ফল খেলে মানব দেহের বিভিন্ন জটিলতা ছারাও ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা আছে। কেনো রাজশাহীর/চাঁপাই এর আম এর ব্যাপারিরা ক্যালসিয়াম কার্বাইড মিক্সড করে না। আপনি যদি একেবারে রাজশাহীর প্রান্তিক পরযায়ে যান দেখবেন গাছ থেকে আম পুক্ত হওয়ার পরে এক্টূ শক্ত শক্ত থাকতে আম গাছ থেকে আহরন করা হয়। যাতে সেটা পরিবহনে সহজ হয়। এছারা অনেক দিন টিকে থাকে। ধরেন আজ কে এক বাগান থেকে ১ হাজার মন আম পারা হলো। এই ১ হাজার মন আম একসাথে বিক্রি হয়ে যায়। একেক এলাকার পাইকারী বিক্রেতা কিনে নিয়ে যায়। কিন্তু পাইকারী বিক্রেতা সেই আম বিক্রি করে ১০ থেকে ১৫ দিন ধরে। কিন্তু প্রথম দিন যে আম বিক্রি করা হয় সেটা অনেকটা কাঁচার মতই থাকা উচিত কিন্তু সেটা কিভাবে পাকায়? ধরেন এক বিক্রেতা ২০ মন আম কিনে আনলো । প্রথম দিনে টার্গেট ২ মন বিক্রি করা। তাই এরা ২ মনের ভিতরে ক্যালসিয়াম কার্বাইড মিক্সড পানি ছিটীয়ে দেয় আর অন্যগুলো আলাদা ভাবে গোডাউনে রেখে দেয়। এতে প্রথম রাতেই ২ মন আম পেকে যায়। আর সেই ২ মন নিয়ে বাজারে বিক্রি করতে যায়। আমাদের আমে কোন ক্যালসিয়াম কার্বাইড থাকবে না। So আপনি হয়তো বাসায় আনার পরে আম শক্ত শক্ত থাকতে পারে। তখন আপনাকে আমটা কয়েকদিন রেখে খেতে হবে। হয়তো ২ থেকে ৩ দিন। কয়েক দিন রেখে খেলেও আপনি পাবেন আসল আমের টেস্ট সাথে অনেক গুলো রোগের ঝুকি থেকে পরিত্রান।

ফরমালিন কি?
ফরমালিন এক ধরনের পিজারভিটীভ। ইহা ফরমালডিহাইড এর সাথে পানির মিক্সার। ফরমালডিহাইড এক ধরনের এলডিহাইড। ইহাকে মিথানল এর সাথে জারন করলে তৈরি হয়। আর মিথানল হইল কাঠের দোকানে বার্নিশ করাহয় সেই কেমিক্যাল দিয়ে। ইহা বাজারে স্প্রিট নামে পরিচিত। ফরমালিন সাধারনত মেডিকেল করলেজে লাশ সংরক্ষন এর কাজে ব্যাবহ্রিতি হয়। এছারা বিভিন্ন বায়োলজিক্যাল ল্যাবে ভিবিন্ন প্রানীর নমুনা সংরক্ষনে ইউজ হয়। আপনারা দেখবেন জাদুঘরে বিভিন্ন প্রায়নীকে বয়ামে পানির মত একটা কেমিক্যালে চুবিয়ে রাখা হয়। আসলে সেটিই ফরমালিন। এই ফরমালিন খুব ভালো পিজারভেটিভ। পিজারভেটিভ হইলো সেই ধরনের কেমিক্যাল যারা সব কিছু সংরক্ষন করে। পিজারভেটীভ এর ভিবিন্ন গ্রেড আছে। ফুড গ্রেড নন ফুড গ্রেড। নন ফুড গ্রেড গুলো খাওয়া যায় না আর সেগুলো চরম মাত্রায় বিষাক্ত। ফরমালিন হইল সেই নন ফুড গ্রেডের পিজারভেটিভ।

আম আলারা কেনো ফরমালিন ইউজ করেঃ কোন আমে যদি ক্যলসিয়াম কার্বাইড দেওয়া হয় তাহলে সেটি দ্রুত পাক্তে থাকে। সেটি বাজারে আসার পরেও পাকার কার্জক্রম চলতে থাকে। এক সময় ফলে পচন ধরতে থাকে সেটা ২ দিনের মাথায়। কোন আম ন্যাচারালি পাকলে পচন ধরে ৫ থেকে ৭ দিনের মাথায়। কিন্তু ক্যালসিয়াম কার্বাইড দেওয়া আম ২ দিনের মাথায় পচন ধরে। সো ব্যাবসায়ীরা যদি ২ দিনের মদ্ধে ক্যালসিয়াম কার্বাইড দেওয়া আম বিক্রি না করতে পারে তাহলে তারা এর উপর ফরমালিন দিয়ে দেয়। এর পর নিশ্চিন্তে কয়েক দিন নিয়ে বিক্রি করে। আমাদের আম যেমন ক্যালসিয়াম কার্বাইড মুক্ত তেমন ফরমালিন মুক্ত। সো আম হাতে পাওয়ার পরে আপনাকে কয়েক দিন রেখে খেতে হবে আর পেকে যাওয়ার পরে দ্রুত খেয়ে শেষ করতে হবে। অনেকটা আপার বাব দাদারা যেই কাজ করতো। তখন তো ব্যাবসায়িরা কসায় ছিলোনা তাই ফরমালিন বা ক্যাস্লিয়াম কার্বাইড ইউজ করতোনা।

যায় হোক আমারা কতিপয় রাজশাহীর সন্তান এই উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা টোটালি বানিজ্যিক ভাবে এই প্রজেক্ট রান করতেছি। আপনারা আগে বিক্যাশে পেইমেন্ট করলে আমরা আপনার ঠিকানায় আম পউছিয়ে দিবো। আমাদের প্রটিটা আমে আপনি পাবেন আমাদের লোগো সমৃদ্ধ স্টীকার। আমাদের ট্রড মার্ক, লাইসেন্স নাম্বার, আর আমাদের গভারমেন্ট রেজিস্টিক্রিত নাম সমৃদ্ধ ক্যাশ মেমো। So একেবারে আসল আম পাবেন।

আমরা আছি:-
ফেসবুক পেজে- রাজশাহীর আম – RajshahirAmLTD
ফেসবুক গ্রুপে- RajshahirAmLTD

Active থেকে নিয়মিত আপডেট দেখুন…

© রাজশাহীর আম – Rajshahir Am

Advertisement -
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

one × 2 =