ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

0
548
ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

ফেরী ওয়ালা

নিজের সম্পর্কে বলার কিছু নাই। ফেরীওয়ালার পাশাপাশি হাল্কাভাবে লেখাপড়া করছি। আসলে কম্পিউটার প্রযুক্তি সম্পর্কে আমার তেমন কোন ধারনা নাই। তবে শিখবার চেষ্টা করছি এবং নিজের জানা বিষয়গুলো প্রযুক্তি প্রেমীদের মধ্যে শেয়ার করছি। So, Go Discover IT & Takes enjoy!!
ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

islam- ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

সবাইকে সালাম ও শুভেচ্ছা। আশা করি সম্মানীত ভিজিটর ও লেখক বন্ধুগণ আপনারা সবাই ভাল আছেন। হ্যা বন্ধুরা আমিও ভাল আছি। বেশ কয়েকটা দিন পর আবারো হাজির হলাম আপনাদের সামনে। আজকের আলোচনার বিষয় ব্লাক লিস্ট ডোমেইন নিয়ে। আসলে ডোমেইন কি, ডোমেইন কোথা হতে নিতে হয় এই সব বিষয় অনেকেই ভাল জানেন তাছাড়া এই বিষয় নিয়ে প্রায় বেশ কয়েকটি পোস্ট করেছিলাম। যেখানে বিস্তারিত সংযোজন করে দিয়েছিলাম। তবুও আশা করি নতুন করে হলেও ডোমেইন নিয়ে অনেকেই মুখ খুলবেন না।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

যাইহোক ডোমেইন নিয়ে নই, আলোচনা করব ডোমেইন ব্লাক লিস্ট নিয়ে। অনেকেই এবার হয়ত ভাবছেন ওরে বাপরে, ব্লাক লিস্ট ডোমেইনটা কি? হ্যা সেই ব্যাপারেই বলতে যাচ্ছি……….!!

images.jpgss ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

১। আজকাল ডোমেইন কেনা তেমন বড় ব্যাপার নয়। দাম অল্প বলেই কিনে ফেলা যায়। এর পরে ওয়েবহোস্টিং কিনতে না পারলেও অসুবিধা নেই যেহেতু গুগল ব্লগস্পট দিয়ে অনায়াসেই নিজের ডোমেইন নেম দিয়ে ব্লগ সাইট বানিয়ে ফেলা যায় বিনামূল্যে। আজকে আমি এই ব্যাপারেই সামান্য কিছু জানাবো যা ডোমেইন কেনার আগে মনে রাখলে ভাল হবে। বেশ কিছু পাঠক আমাকে ইমেইল করেছেন, কমেন্ট করেছেন তারা ডোমেইন নেম কিনেছেন, ভালো ওয়েবসাইট বানিয়েছেন, তবুও কেন গুগল তাদের ওয়েবসাইটকে ক্রল করেনা, কেন ইন্ডেক্স করেনা। তারা হাজারো পদ্ধতি অনুসরণ করেছেন SEO’র ব্যাপারে। তবুও কোনো সাফল্য পাননি তারা। কেন এমন হচ্ছে? এমন যদি অবস্থা হয়, তাহলে নতুন ডোমেইন কিনে আবার সেটাকে পুরোনো ব্লগের সাথে যুক্ত করবেন? তাতে কিন্তু ফল ভালো নাও হতে পারে। বড়ই বিব্রত হওয়ার মতো অবস্থা এটা।

২। প্রথমেই যেটা জানার ইচ্ছে হতে পারে তা হল কেন হচ্ছে এমন? আমরা সাধারনত কি করি, ডমেইন কেনার সময়ে খুঁজে দেখি যে আমাদের কাঙ্খিত ডমেইনের নামটি পাওয়া যাচ্ছে কিনা, না পাওয়া গেলে অন্য নামের খোঁজ করি আমরা, তাইনা? একটু ভেবে বলুন তো, আপনারা যারা ইন্টারনেটে অনেকদিন ধরে আছেন, যারা ডোমেইন কিনেছেন অথবা কেনার কথা ভাবছেন, তারা কি কখনোও ডমেইন কেনার আগে সেই নাম পাওয়া যাচ্ছে কিনা সেটা খুঁজে দেখার পাশাপাশি এটা গুগলে সার্চ করে দেখেছেন যে আপনার আগে কেউ সেই ডোমেইন নাম রেজিস্টার করেছিলো কিনা? এটাকে বলে ডমেইন হিস্ট্রি। আপনারা কি ডোমেইন হিস্ট্রি সার্চ করে দেখেন? যে ডোমেইন নাম কিনতে যাচ্ছেন, সেই ডোমেইন ব্ল্যাক-লিস্টেড হয়ে আছে কিনা, সেই ডোমেইন ইতিপূর্বে এক বা একাধিক লিঙ্ক গুগলে থেকে গিয়েছে কিনা এইসব সার্চ করে দেখেন?

যেমন: আমি অনেক দিন পূর্বে pcmasterbd.com নামে একটি ডোমেইন নিয়ে ছিলাম। পরবর্তীতে রেজি: রিনিউ না করার কারনে সেটি বাদ হয়ে যায়। বর্তমানে উক্ত ডোমেইনটি যে কেউ নিজের নামে রেজি: করতে পারবেন। কিন্তু তাই বললে তো হবে না। দেখতে হবে ডেড লিংক কিরুপ? তাহলে গুগল সার্চে pcmasterbd.com নাম লিখলেই নিচের চিত্র আসবে। সেখানে দেখা যাচ্ছে অনেক ডেড লিংক তাহলে ডোমেইনটি রেজি: না করাটাই ভালো।

ScreenShot009 ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

৩। অনেক সময়েই এমন হয়, কেউ এই নামের ডোমেইন কিনেছিলো, পরে আর চালাতে না পেরে কিম্বা অন্য কোনো কারনে তা ছেড়ে দিয়েছেন, মানে আর রিনিউ করেননি। গুগলে সেই ডমেইনের একাধিক লিঙ্ক থেকে গিয়েছে। সেইগুলি সবই Dead link; এদিকে আপনিও সেই নাম কিনতে চেয়ে শুধুই চেকিং করে দেখলেন যে ডোমেইন নাম পাওয়া যাচ্ছে, কিনে ফেললেন, এবং নিজের ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেললেন। এর পরে ফলাফল হল এই যে গুগল প্রচুর Dead link দেখে সেই ডোমেইন নামটিকে supplemental list’এ তালিকাভুক্ত করে ফেললো, কিম্বা ব্ল্যাক-লিস্টে নিয়ে রাখলো। আপনি তো সেটা জানতেও পারলেন না, তাইনা? কিছুদিন পরে বিব্রত হতে শুরু করে দিলেন যে গুগল কেন আপনার ওয়েবসাইট ক্রল করেনা, কেন আপনার লিঙ্ক ইন্ডেক্স করেনা ইত্যাদি। যেহেতু আমরা সাধারনত ডমেইন হিস্ট্রি সার্চ করে দেখিনা তাই জানতেই পারিনা যে ঘটনা অন্যকিছু হয়ে আছে, তাই গুগল ক্রল করেনা, ইন্ডেক্স করেনা।

ScreenShot012 ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

৪।এইসব বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়ার চেয়ে আগেভাগেই দেখে নিয়ে ডোমেইন । এর জন্য আলাদা করে বিশেষ কষ্ট করতে হবেনা, কেনার আগে গুগলে সাদামাটা সার্চ করে দেখুন পূর্বের কোনো লিঙ্ক থেকে গিয়েছে কিনা। ধরুন আপনি কিনবেন domain.com, তাহলে গুগলে সার্চ দেবেন site:domain.com, দিয়ে দেখুন কোনো রেজাল্ট বের হয় কিনা।

ডোমেইন নারী- নক্ষত্র চেকিং করার কয়েকটি ভাল টুলস হচ্ছে- whois.com, scamadviser.com এবং http://whois.domaintools.com। তবে এর মধ্যে সবচেয়ে ভাল http://whois.domaintools.com। তাহলে পরীক্ষা হয়ে যাক- যেমন: পোস্টের আলোচনা অনুযায়ী আমার পূর্বের নেওয়া pcmasterbd.com ডোমেইনটি চেক করি। চেক করলে নিম্নের চিত্রের মত ফলাফল দেখাবে তথারুপ (লাল তীর চিহৃ):

ক। ১ বার রেজি: করা হয়েছিল।

খ। হুইস হিস্টোরি ১৮, এস. এস হিস্টোরি ১২ বার পরিবর্তন করা হয়েছিল।

গ। বর্তমানে ডোমেইনটি রেজি: করা নাই। অর্থাত ক্রয় করা যাবে কিংবা যে কেউ রেজি: করে নিতে পারবেন। আশা করি ব্যাপারটি বুঝেছেন। এই ভাবে যে ডোমেইনটি রেজি: করবেন তার বিষয় বস্তু ভালভাবে জানতে পারবেন।

ScreenShot011 ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

এমনও হতে পারে যে ডোমেইন কেনা হয়েছিলো আগে, কিন্তু তাতে ওয়েবসাইট বানানো হয়নি, সেক্ষেত্রে তেমন সমস্যা হবেনা। ডোমেইন হিস্ট্রি সার্চ করে দেখতে পারেন, আগের রেকর্ড থাকলে এমন কিছু দেখতে পারেন – Registrar History: 2 registrars with 2 drops. NS History: 2 changes on 2 unique name servers over 4 years. IP History: 9 changes on 5 unique name servers over 6 years. Whois History: 2,266 records have been archived since 2002-08-03. Reverse IP: 21 other sites hosted on this server. এইসব না দেখলে তাহলে বুঝবেন একেবারেই নতুন ডোমেইন কিনতে যাচ্ছেন।

ব্লাক লিস্ট প্রতিহত করতে ডোমেইন রেজি: করার কৌশল:

আসলে পূর্বেই বলেছি কোন ডোমেইন রেজি: একবার হবার পর পরবর্তীতে সেটি খালি হলে গুগল সার্চ বক্স্রে সার্চ করলে যদি অপ্রত্যাশিত অনেকগুলো ডেড লিংক আসে তাহলে কোনভাবেই ডোমেইনটি না নেওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। যদি ডেড লিংক না এসে হুইস রেকর্ড আসে তাহলেও হয়ত ঐ ডোমেইন ক্রয় করা যাবে। আসলে পারে যে ডোমেইন কেনা হয়েছিলো আগে, কিন্তু তাতে ওয়েবসাইট বানানো হয়নি, সেক্ষেত্রে তেমন সমস্যা হবেনা। ব্লাক লিস্ট প্রতিকারের আরেকটি বিষয় হল গুগল কর্তৃপক্ষের নিকট আপিল করা, বিস্তারিত তথ্যাদি তাদের সামনে উপস্থাপন করা এবং আপনার সাইট ও ডোমেইন নিয়ে কি করবেন তার সারমর্ম বুঝানো। তবে এটি হয়ত অনেকেই করতে পারবেন না। যাইহোক আপনারা জেনে অবাক হবেন যে- এই রকম কিছু বাংলা প্রযুক্তি বিষয়ক সাইট রয়েছে যেখানে একের অধিক রেজি: হয়েছিল অর্থাত পূনরায় রেজি: করা হয়। সেই সাইট গুলো এস.ই,ও সহ খুব ভাল চলছে। যেমন: আমাদের প্রিয় প্রযুক্তি সাইট: পিসিহেল্পলাইন বিডি.কম  ২ বার রেজি:,এবং  www.tunerpage.com ৪ বার রেজি: করা হয়েছে। প্রমাণ চিত্র নিম্নরুপ:

ক। পিসি হেল্প লাইন বিডি এর ক্ষেত্রে:

ScreenShot015 ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

খ। টিউনার পেইজের ক্ষেত্রে:

ScreenShot014 ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

এর মানে প্রতিয়মান হয় যে, অল্প কিছু ডেড লিংক থাকলে পরবর্তীতে আপনি উক্ত সাইটের মালিক হলে সাইটটি সঠিকভাবে SEO অনুসরন, পপুলারিটি করলেও কাংখিত বিষয়স্তু অর্জন করতে পারবেন। যেমনটি: পিসিহেল্পলাইন বিডি, টিউনারপেইজ সফলতার মুখ দেখেছে।

তাহলে বন্ধুরা আজ পর্যন্তই। অনেক ব্যস্ত রয়েছি, বাইরে যতে হবে। পরবর্তী পোস্টের আমন্ত্রন রইলো।সবাই ভাল থাকুন।–আল্লাহ্ হাফেজ-

24259 ডোমেইন রেজি: করবেন? সেটি ব্লাক লিস্টেড কিনা তা জানতে ও প্রতিকারের উপায় সহ আলোচনা!!

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

15 − nine =