চোর আসার আগেই বুদ্ধির খেলাঃ অবশ্যই জেনে নিন কিভাবে ডাটা লস প্রতিহত করবেন

1
317

প্রযুক্তি ব্যবসায়ীদের জন্য ডাটা অত্যন্ত গুরুত্ব পূর্ণ সম্পদ। সাধারণত দেখা যায় ক্ষুদ্র বিনিয়োগ কারিরা ডাটা রিকভারি বা প্রটেকশনের জন্য ব্যয় করতে প্রস্তুত থাকেন না। সিমান্টেক কর্তৃক পরিচালিত এক পরিসংখ্যানে দেখা যায় যে প্রায় ৫৭% ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা ডাটা সংরক্ষণের জন্য উপযুক্ত ব্যবস্থা নেন না। ফলে তারা কমবেশি ক্ষতির সম্মুখীন হন। আমরা ডাটার নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করব।

১)চূড়ান্ত অবস্থার জন্য প্রস্তুত থাকুন:
একজন দক্ষ ব্যবহারকারী হিসাবে আপনার মহামূল্যবান তথ্য আপনার কাছে নিশ্চয়ই জীবনীশক্তির চাইতে কিছু কম নয়। তাই তথ্য হারানো প্রতিহত করার জন্য আপনি যদি পূর্ব-প্রস্তুতি না নিয়ে থাকেন তাহলে আপনি আপনার জীবনী শক্তিকেই ঝুঁকিতে ফেলবেন।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

বিশেষজ্ঞরা ব্যবসায়িক কাজে ডাটা ব্যবহার করতে হলে শুরুতেই জরুরী অবস্থার জন্য তথ্য সংরক্ষণ ব্যবস্থা জোরদার করার দিকে নজর দেন।
যেমন ধরুন আপনি আপনার ব্যবসার জন্য স্বয়ংসম্পূর্ণ ডাটা সংরক্ষণ উপযোগী হার্ডওয়ার ব্যবহার করতে পারেন। আপনি চাইলে কোন ডাটা রিকভারি পরিসেবা সরবরাহকারী কোম্পানির সাথে চুক্তিবদ্ধ হতে পারেন। কিছু কিছু ডাটা রিকভারি ভেন্ডরের মেম্বার হবার মাধ্যমে আপনি বিশেষ ডিসকাউন্ট পেতে পারেন।

২)ব্যাকআপ রাখুন ও নিরাপদ থাকুন:
সবচেয়ে জরুরী হল প্রতিরোধ। বিশেষজ্ঞরা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংরক্ষণের জন্য পর্যাপ্ত ব্যয় করার জন্য পরামর্শ দেন। তথ্য ব্যাকআপ রাখার জন্য একটি কাঠামো বদ্ধ সুসংহত ব্যবস্থাপনা তৈরি করুন। আপনার সংরক্ষিত ডাটা ব্যাকআপ ঠিক আছে কিনা তা নিয়মিত ভাবে পরীক্ষা করুন। বিশেষ করে ডাটাবেজ ও সংকটপূর্ণ ডাটার ব্যাপারে সাবধান হন।

তথ্য ব্যাকআপ রাখার জন্য আপনি যে সফটওয়্যার ব্যবহার করেন সেটি নিয়মিত আপডেট করুন। যদিও আপনার মেশিনে অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যার ব্যবহৃত হচ্ছে তবুও কখন ধরে নেবেন না যে কোন ভাইরাস আপনার ডাটা আক্রমণ করবে না, তাই নিয়মিত অ্যান্টিভাইরাস দিয়ে সার্চ দিন। ব্যাকআপ সফটওয়্যার ও ভাইরাস প্রটেকশনের মাধ্যমে আপনি ডাটা লস করার সম্ভাবনা অনেকাংশে কমিয়ে ফেলতে পারেন।

৩) তথ্য খুঁজে পাচ্ছেন না? প্রথমেই ঘাবড়ে যাবেন না:
হতে পারে কোন ফাইলে ডাটা রেখেছেন তা আপনি ভুলে গিয়েছেন, তাই খুঁজে পাচ্ছেন না। তথ্য অনুসন্ধান করার জন্য আপনি সার্চ বাঁটন ব্যবহার করতে পারেন। এতে না পেলে রিসাইকেলবিন ও ট্র্যাশ বক্স খুঁজে দেখুন ।

৪)পেশাদার বিশেষজ্ঞদের সহায়তা নিন:
ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা সাধারণত তথ্য সংরক্ষণ করার করার জন্য কোন ভেন্ডরের পেছনে অনেক খরচ করতে চাইবেন না, কিন্তু যদি দাটা আপনার অর্থের চাইতেও মূল্যবান মনে হয় তবে পুরনো মনোভাব থেকে বেরিয়ে আসুন। আপনি যদি বিশেষজ্ঞ না হন তবে কোন তথ্য রিকভারি টুল বা ডায়াগনস্টিক টুলসের মাধ্যমে তথ্য পুনরুদ্ধারের চিন্তা থেকে বেরিয়ে আসুন, নয়ত আপনার কোন ভুলে হয়ত আপনি নিজেই তথ্য হারিয়ে ফেলবেন। তথ্য রিকভারি সার্ভিস প্রভাইডারের উপর আস্থা রাখার আগে কোম্পানির সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের নিকট থেকে জেনে নিন।

৫)ডাটা পুনরুদ্ধার করার প্রাথমিক জ্ঞান আয়ত্ত করুন:
আপনার হার্ড ড্রাইভ ক্রাশ করার প্রাথমিক লক্ষণ গুলো দেখে আপনি যদি সতর্ক থাকেন তবে আপনি অবশ্যই নিশ্চিত খতির হাথা থেকে বাঁচতে পারেন আপনি যদি হার্ড ডিস্ক থেকে শো শো শব্দ, ক্লিক ক্লিক শব্দ বা কোন প্রকার শব্দ পান তবে তৎক্ষণাৎ কম্পিতটার অফ করুন ও ডাটা রিকভারি টুল ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন। কম্পিউটার আন-প্লাগ করুন ও হার্ড ড্রাইভ সরিয়ে করুন।

মনে রাখবেন হার্ড ড্রাইভ স্থির বিদ্যুৎ ও ঝাঁকুনির জন্যও নষ্ট হতে পারে। আপনি কোন প্রসিদ্ধ ডাটা রিকভারি প্রভাইডারের সাহায্য নিন।

Advertisement -
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

7 − two =