গুগল এডসেন্স নিয়ে আমাদের ১৪টি ভূল ধারনা

1
348

গুগল আসলে কী চায়? গুগল কনটেন্ট ভালবাসে। কনটেন্ট বলতে এখানে শুধুমাত্র লেখাকে বুঝাচ্ছি – ছবি, গান, ভিডিও – এসবের কোনোটারই মূল্য নাই গুগলের কাছে। আপনি কখনই গুগল থেকে ভিজিটর পাবেন না যদি না আপনার ওয়েবসাইটে উচ্চমানের কনটেন্ট থাকে – নিজের কনটেন্ট লিখুন … কপি পেষ্ট কনটেন্ট দিয়ে চলবে না। বানান ভূল থেকে বিরত থাকুন, অহেতুক keyword ব্যবহার করবেন না ইত্যাদি ইত্যাদি।

GoogleAdsense গুগল এডসেন্স নিয়ে আমাদের ১৪টি ভূল ধারনা

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

তবে গুগলের এডসেন্স নিয়ে বেশি উল্টা-পাল্টা করলে, আপনার একাউন্ট বাজেয়াপ্ত হতে পারে। সেক্ষেত্রে আপনার সাথে গুগলের সম্পর্ক ওখানেই শেষ। আপনার অনলাইনে আয় করার একটি মূল সোর্স বন্ধ হয়ে যেতে পারে। নিচের কয়েকটি কারনে গুগলের একাউন্ট ব্যান হতে পারে কিংবা পরিশ্রম অনুযায়ী আয় থেকে বঞ্চিত হতে পারেন। তাই বিষয়গুলো পরিস্কার করে জেনে নিন।

১. শুধুমাত্র সার্চ ইঞ্জিনের জন্য ব্লগ বা ওয়েব সাইট বানালে চলবে না, কারন সার্চ ইঞ্জিন বড় জোর পাঠককে আপনার ওয়েবসাইটে নিয়ে আসবে। ক্লিক কিন্তু পাঠকই করবে। তাই লেখার সময় পাঠক এবং সার্চ ইঞ্জিন দু’টোকেই মনে রাখুন। পাঠক যাতে পড়ে স্বাচ্ছন্দ্য পায়, তাই পয়েন্ট আকারে, প্রয়োজনে ছবি দিয়ে ব্লগ পোষ্ট করুন।

২. শুধুমাত্র টাকা কামানোর উদ্দেশ্য থেকে ব্লগ বানানো থেকে বিরত থাকুন। বিগত কয়েক বছর ধরে অনেকেই এগুলো করেছেন। এবং পরিশেষ সময়টাই নস্ট হয়েছে। ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানালে, সেটা যথার্থভাবেই তৈরী করুন। নইলে, সেখানে কালে ভদ্রে পাঠক পাবেন। আবার সেই বিজ্ঞাপনে পাঠক ক্লিকও করবে না।

৩. High Paying Keyword Niche টার্গেট করে ব্লগ বানিয়েছেন, কিন্তু সে অনুযায়ী ব্লগে কনটেন্ট নাই। অর্থ্যাৎ, আপনাকে ভালো ভালো কনটেন্টও তৈরী করতে হবে। নইলে, সেই সাইটের মূল্য কি বলুন?

৪. অনলাইনে টাকা কামানো সহজ কাজ, এই ভেবে ব্লগ বানিয়েছেন আর ভেবেছেন – পাঠক হুড়োহুড়ি করে আপনার ওয়েবসাইটে আসবে আর ক্লিক করা শুরু করবে। এটা খুবই ভ্রান্ত একটি ধারনা। অনেকেই আজকাল কোনও রকমে একটি ওয়েব সাইট খুলে দেন। সবার মুখে যখন ওয়েব সাইটের কথা, সেখানে নিজের একটা না থাকলে কিভাবে চলে। আর সেটা থেকে যদি কিছু বিজ্ঞাপনের টাকাও পাওয়া যায় – মন্দ কি! কিন্তু সেটা আসলে হয় না। আপনি ঠিক মতো ট্রাফিকও পাবেন না। আর যা পাবেন, তা দিয়ে আপনার হোস্টিং খরচই হয়তো উঠবে না।

৫. নিজে নিজে বুদ্ধি করে একটা একটা করে ক্লিক করেন কিংবা অন্যকে ক্লিক করতে উৎসাহিত করেন।

৬. পড়তে অসুবিধা হয় এমন উৎকট ডিজাইন, অপ্রয়োজনীয় ছবি, শব্দ, widgets ব্যবহার করেছেন।

৭. এডসেন্স ব্যবহার করছেন, কিন্তু এডসেন্সের Channel ব্যবহার করছেন না। তাই কোন এ্যাড থেকে কয় টাকা কামাচ্ছেন, তা বুঝতে পারছেন না।

৮. গুগলের নিয়মকানুন কখনো পড়েননি – যেকোন সাইটেই এডসেন্স ব্যবহার করছেন। কিছু কিছু কনটেন্ট রয়েছে, যেগুলোতে বিজ্ঞাপন দেয়াটা নিয়মের ভেতর পরে না। তাই সেসকল পেজে গুগলের বিজ্ঞাপন দিলে আপনার একাউন্ট ব্যান হতে পারে।

৯. এমন কোনো পাতায় এ্যাড বসিয়েছেন, যেখানে কোনো কনটেন্টই নাই।

১০. একটির বেশি সচল এডসেন্স একাউন্ট খোলার চেষ্টা করছেন।

১১. অন্যদের CTR, Impressions, eCPM ইত্যাদি বলে দিয়েছেন। বিশেষ করে, বাংলাদেশীদের এই অভ্যাসটি খুবই প্রকট। তারা তাদের বেতন, ভাতা, আয়, উপাজর্ন সব কিছুই অন্যের সাথে শেয়ার করতে খুব পছন্দ করে। কত টাকায় কোন বিজ্ঞাপন পেয়েছেন – এগুলো খুবই ব্যবসায়ীক গোপনীয় বিষয়। এগুলো অন্যকে বলে দিলে, তখন তারাও একই জিনিস প্রয়োগ করবে। এবং বিষয়টা এক সময় গুগল টের পাবেই।

১২. ছবির সাথেই গুগলের এ্যাড বসিয়েছেন – ভুলেও ছবির গা ঘেষে এ্যাড বসাবেন না।

১৩. অহেতুক এ্যাডের কোড পরিবর্তের চেষ্টা করবেন না। যদি পরিবর্তন করতেই হয়, তাহলে এডসেন্স একাউন্ট থেকেই পরিবর্তন করুন।

১8. এমন টপিক নিয়ে ব্লগ বানিয়েছেন, যার Cost Per Click (CPC) খুবই কম। তাই আপনার আয়ও কম।

আবারো বলছি, গুগলের এডসেন্স পলিসিটি ভালো করে পড়ে নিন। তারপর বিজ্ঞাপন ব্যবহার করুন। ওহ আরেকটি কথা। এডসেন্স এখনও বাংলা ভাষা সমর্থন করে না। তাই বাংলায় তৈরী ওয়েব সাইটে এই বিজ্ঞাপন কাজ করবে না। এবং অসমর্থিত ভাষার ওয়েবপেজে এডসেন্স বসানোও একটি নিয়ম ভঙ্গের মধ্যে পড়বে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 + twenty =