প্রযুক্তি বিষয়ক খবর পার্ট-৬

9
364
প্রযুক্তি বিষয়ক খবর পার্ট-৬

চিন্তিত পথিক™

ஜ۩۞۩ஜ চিন্তিত পথিক™ প্রযুক্তিকে ভালোবসি-তাই প্রযুক্তির সাথে থাকতে চাই ஜ۩۞۩ஜ
প্রযুক্তি বিষয়ক খবর পার্ট-৬

বিস্ময়কর এক গ্রহের দুই সূর্য


একটি গ্রহ আবর্তন করছে একটি নয়, দুটি সূর্যকে। কেপলার টেলিস্কোপের মাধ্যমে এই প্রথম দেখা গেছে একটি গ্রহ একই কক্ষপথে দুটি সূর্যকে আবর্তন করছে। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা এ কথা জানায়। খবর বিবিসির। বিষয়টি যেন কাকতালীয়ভাবে স্টার ওয়ারস সিনেমার টেটুন গ্রহের সঙ্গে মিলে গেছে। বিজ্ঞানীরা বলছেন, সিনেমার কাল্পনিক চরিত্র লুক স্কাইওয়াকারের মতো কেউ হয়তো গ্রহটিতে নাও থাকতে পারেন। পৃথিবী থেকে ২০০ আলোকবর্ষ দূরে এই গ্রহটিতে দুটি সূর্য থাকায় সেখানে সূর্যাস্তও হয় দুবার। তবে কেপলার-১৬বি নামের এ গ্রহটির দুটি সূর্যই আমাদের সূর্যের চেয়ে ছোট। আমাদের সূর্যের তুলনায় একটির আয়তন ৬৯ শতাংশ ও অপরটি ২০ শতাংশ ছোট। সেখানে উপরিভাগের তাপমাত্রা মাইনাস ৭৩ থেকে মাইনাস ১০১ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে বলে ধারণা করা হচ্ছে। গ্রহটি একই কক্ষপথে প্রতি ২২৯ দিনে একবার সূর্যদ্বয়কে প্রদক্ষিণ করে।গবেষণা দলের সহযোগী অ্যালান বস বলেন, ‘কেপলারের মাধ্যমে এটি সত্যিই একটি অবিশ্বাস্য পর্যবেক্ষণ। এ গ্রহটিতে শনি গ্রহের মতো বসবাসের অনুপযোগী ঠান্ডা গ্যাস থাকতে পারে। আগে ধারণা করা হতো, কোনো গ্রহের হয়তো দুটি সূর্য থাকতে পারে। কিন্তু বৈজ্ঞানিকভাবে এটাই প্রথম নিশ্চিত করা হয়েছে।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

লিংক শেয়ারের ওয়েবসাইট নিয়ে আসছে ইউটিউবের দুই প্রতিষ্ঠাতা।

 শ্যাড হারলি এবং স্টিভ চেন। নাম দুইটি সর্বসাধারণের কাছে খুব বেশী পরিচিত না হলেও তাদের পরিচয় দিলেই চিনতে পারবে সবাই। ইউটিউব নামের যে ভিডিও শেয়ারিং সাইট আজ বিশ্বব্যাপী তুমুল জনপ্রিয়, সেই সাইটের প্রতিষ্ঠাতা নির্মাতা এই দুইজন। ইউটিউবকে তারা টেক জায়ান্ট গুগলের কাছে বিক্রি করে দেন ২০০৬ সালে। হারলি এবং চেন এবার কাজ করছেন আরেকটি ওয়েবসাইট নিয়ে। আরেক টেক জায়ান্ট ইয়াহু’র একটি প্রকল্প ছিল ডেলিসিয়াস নামে। এটি এক ধরনের সোস্যাল বুকমার্কিং সাইট। বিভিন্ন ব্লগ সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহারকারীদের মধ্যে এটি জনপ্রিয়তা পেলেও সাধারন মানুষের কাছে এই সার্ভিস জনপ্রিয়তা অর্জন করতে ব্যার্থ হয়। ২০০৩ সালে চালু হওয়া এই সার্ভিসটি বিভিন্ন লিংক শেয়ারিং এর জন্য কার্যকর একটি প্লাটফর্ম হিসেবে চালু হওয়ার সম্ভাবনা নিয়ে যাত্রা শুরু করে মুখ থুবড়ে পড়ে। এবার একেই সকলের নিকট পরিচিত করে তোলার দায়িত্বটি কাঁধে নিয়েছেন হারলি এবং চেন। এক সাক্ষাত্কারে হারলি বলেন, ‘প্রযুক্তি বিশ্বের মধ্যে ডেলিসিয়াস কিছু মাত্রায় জনপ্রিয়। আমাদের পরিকল্পনা, একে সর্বস্তরের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের মধ্যে পরিচিত করে তোলা।’ এটি করতে গিয়ে তারা সম্পূর্ণ নতুন রূপেই সাজাতে চান ডেলিসিয়াসকে। তবে ডেলিসিয়াসের ইন্টারফেসের ডিজাইনে তেমন কোনো পরিবর্তন হয়ত তারা করবেন না। পরিবর্তন যা করার করবেন ভেতরে। ভুল বানানে বিঘ্নিত হতে পারে নিরাপত্তা ইন্টারনেটে আমাদের প্রতিনিয়তই লিখতে হয় নানান বিষয়। ইমেইল বা ইন্টারনেটে কোনো কিছু সার্চ করতে গেলেও লিখতে হয় প্রয়োজনীয় অনেক কিছু। তবে লিখতে গেলে ভুল হয়ে গেলে তা নিরাপত্তায় হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে। নিরাপত্তা বিশ্লেষক প্রতিষ্ঠান সোফো সম্প্রতি এক গবেষণায় এই তথ্য প্রকাশ করেছে। কেবল ইমেইল করতে গিয়ে ইমেইল ঠিকানার একটি ডট ভুল হলেও তা সাইবার অপরাধীদের হাতে গিয়ে পড়তে পারে আর তাতে করে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হস্তগত হয়ে যেতে পারে হ্যাকারদের। সোফো’র গবেষণায় বলা হয়, গত ছয় মাসে ১,২০,০০০ ভুল ঠিকানায় পাঠানো মেইলে মোট তথ্যের পরিমাণ ২০ গিগাবাইট। এগুলোর অনেকগুলোতেই গুরুত্বপূর্ণ অনেক গোপন তথ্য ছিল। ইমেইলের ঠিকানা তৈরির সময় অনেক সময় সাব ডোমেইন চিহ্নিত করার জন্য ডট ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে ডট না দিলে তা সঠিক ঠিকানায় মেইলটি পাঠাতে ব্যার্থ হয়। তবে হ্যকাররা নানা কসরতের মাধ্যমে এই মেইলগুলো হস্তগত করতে পারে। গবেষকরা পরীক্ষামূলকভাবে এই ভুল ঠিকানায় পাঠানো মেইলগুলো হস্তগত করতে সমর্থ হওয়ায় এই বিষয়ে সকলের আরো অধিক মনোযোগী হবার বিষয়ে তারা দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন। অন্যাথায় নিজের অজান্তেই হ্যাকারদের হাতে তুলে দিতে হবে নানান তথ্য.

বিপ্লবের আভাস জানাবে সুপারকম্পিউটার।


বিশ্বের বড় বড় ঘটনাগুলোর ব্যাপারে আগেই আভাস দেবে কম্পিউটার। কোনো ঘটনা সম্পর্কে প্রকাশিত বিভিন্ন সংবাদ সুপারকম্পিউটারে প্রবেশ করিয়ে দিলে সেগুলো বিশ্লেষণ করে কি ঘটতে যাচ্ছে সে বিষয়ে ধারণা দেবে ওই যন্ত্রটি। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয়েস বিশ্ববিদ্যালয়ের গণনামূলক মানবিক, শিল্পকলা ও সামজিক বিজ্ঞান ইন্সটিটিউটের কালেভ লেটারু পরিচালিত ও ফার্স্ট মানডে সাময়িকীতে প্রকাশিত গবেষণা ফলাফলের বরাত দিয়ে বিবিসি এ খবর জানিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র সরকারের প্রকাশিত নথি, বিবিসি মনিটরিংয়ের সংবাদ সারমর্ম এবং নিউ ইয়র্ক টাইমসসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের অনলাইন সংস্করণে প্রকাশিত দশ কোটিরও বেশি নথি বিশ্লেষণ করে লেটারু ওই গবেষণাটি করেন। সংবাদের মেজাজ ও স্থান, এ দু’ধরনের সংবাদের ভিত্তিতে প্রতিবেদনগুলো বিশ্লেষণ করা হয়। মেজাজ অংশে দেখা হয় সংবাদগুলো শুভ সংবাদ না অশুভ সংবাদ, আর স্থান অংশে দেখা হয় ঘটনাটি কোথায় ঘটছে ও ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্টরা কে কোথায়। নির্র্দিষ্ট কিছু শব্দ যেমন টেরিবল, হরিফিক অথবা নাইস, শব্দগুলো অনুসন্ধানের মাধ্যমে মেজাজ অংশের সংবাদ নির্বাচন করা হয়, যাকে অটোমেটেড সেন্টিমেন্ট মাইনিং বলা হয়। অপরদিকে, জিওকোডিং’র মাধ্যমে স্থানের নাম যেমন কায়রো নির্বাচন করা হয়। তথ্যগুলো বিশ্লেষণের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের টেনেসি বিশ্ববিদ্যালয়ের নটিলাস নামক ইন্টেল কোম্পানির ১০২৪ নিহালেম কোর এসজিআই অ্যালটিক্স সুপারকম্পিউটার ব্যবহার করা হয়। কম্পিউটারটির প্রক্রিয়াকরণ ক্ষমতা ৮ দশমিক ২ টেরাফ্লপস। এ গবেষণায় ব্যবহৃত লক্ষ লক্ষ তথ্য বিশ্লেষণ করে মিসর ও লিবিয়ার গণঅভ্যুত্থানের আগেই দেশগুলোর নাগরিকদের জাতীয় মনোভাবের অবণতির প্রমাণ পাওয়া যায়। মিসরের প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের পতনের মাসখানেক আগে মিসরের গণমাধ্যমের অবস্থান তার বিপরীতে চলে গিয়েছিল। ৩০ বছরের শাসনামলে এর আগে মাত্র দু’বার মুবারক গণমাধ্যমে এ ধরনের পরিস্থিতির শিকার হয়েছিলেন। এছাড়া ১৯৯১ সালে কুয়েতে ইরাকি বাহিনীর বোমাবর্ষণ ও ২০০৩ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ইরাক দখলের ফলে বিশ্বব্যাপী যে প্রতিক্রিয়া হয়েছিল নটিলাসের বিশ্লেষণী চার্টে তার সঠিক প্রতিফলন পাওয়া যায়। লেটারু বলেন, মিসরের গ্রাফটি দেখলেই বোঝা যায় মুবারকের পতনের আগেই অনুমান করা যচ্ছে অপ্রত্যাশিত কিছু ঘটতে যাচ্ছে মিসরে। গ্রাফটিই জানাচ্ছে, পরিস্থিতি যে পর্যায়ে ছিল তাতে, মুবারক আর ক্ষমতায় থাকতে পারছেন না। আর সেটি তখনই বলে দেওয়া সম্ভব ছিল। লিবিয়ায় গণঅভ্যুত্থান শুরুর আগেও নটিলাসের লিবিয়া গ্রাফের সংকেতে বড় ধরনের পতন লক্ষ করা গেছে। সৌদি আরবের গ্রাফে দেখা যায়, দেশটিতে অস্থিরতা বিরাজ করছে, তবে তা ক্ষমতাসীনদের পতনের মতো কোন পরিস্থিতি তৈরি করে নি বলেও গ্রাফে দেখা যাচ্ছে বলে জানান লেটারু। ওসামা বিন লাদেনের অনুসন্ধানের বিষয়েও সুপারকম্পিউটারটি চমৎকার ফলাফল দিয়েছে বলে লেটারু জানান। কম্পিউটারটি ওসামার অবস্থান সংক্রান্ত প্রতিবেদনগুলোর স্থান বিশ্লেষণের মাধ্যমে ওসামার সম্ভাব্য অবস্থান উত্তর পাকিস্তানের ২শ’ কিলোমিটার একটি এলাকাকে চিহ্নিত করেছিল। অ্যাবোটাবাদ ওই ২শ’ কিলোমিটারের মধ্যেই পড়েছে বলে জানান লেটারু। নটিলাসের পদ্ধতিটিতে এ পর্যন্ত ঘটে যাওয়া বিষয়গুলোই শুধু পরীক্ষা করা হয়েছে বলে জানান লেটারু। তবে এ পদ্ধতির সাহায্যে বর্তমান ঘটনা বিশ্লেষণ করে ভবিষ্যতে সম্ভাব্য ঘটনাগুলোর আভাস সহজেই দেওয়া যাবে বলে দাবি করেন লেটারু। লেটারু বলেন, পদ্ধতিটি এত ভালভাবে কাজ করছে তাতে বলা যায়, এটি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের গোয়েন্দা বিভাগ থেকেও ভাল ফলাফল দিতে সক্ষম। পদ্ধতিটি অনেকটা অর্থনীতির ভবিষ্যদ্বাণী করার লগারিদমের মতো বলে জানান লেটারু। তিনি বলেন, আমি এটাকে আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেওয়ার মতো করে তৈরি করতে চাই। আবহাওয়া পূর্বাভাস সম্পূর্ণ ত্রুটিমুক্ত না, তবে বিক্ষিপ্ত অনুমানের চেয়ে এটি অবশ্যই বেশি ফলাফল দিচ্ছে।

সুত্র- ইউকে বিডি নিউস। ধন্যবাদ সবাই কে। ভালো থাকবেন ও নিয়মিত টিউনার পেইজ এর সাথেই থাকবেন। :-) :D

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

9 মন্তব্য

  1. দারুন হয়েছে । অনেক ধন্যবাদ চিন্তিত পথিক ভাইকে ।

  2. বাহ বাহ সুন্দর একটা পোস্ট তো ! বেশ ভালো লাগছে ছবি থাকায় !

  3. ছবি যোগ করে দিলাম। ছবি যোগ করাতে এখন আরো সুন্দর লাগছে। এতো সুন্দর একটি পরামর্শ দেওয়ার জন্য অনির্বাচিত ভাই কে ধন্যবাদ। :D

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

10 − 10 =