ঠিকমতো ঘুম না হলে কী হয়?

0
255

শিল্পোন্নত দেশগুলোর অন্তত দশ শতাংশ মানুষ ঘুমের সমস্যায় ভোগে৷ অথচ সুস্থভাবে জীবনযাপনের জন্য নিয়মিত ঘুম অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ পর্যাপ্ত ঘুম না হলে কী হতে পারে, তা গবেষণা করেছেন বিজ্ঞানীরা৷ বুধবার ভোর, ছয়টার মতো বাজে৷ ডানিয়েলা স্পেট বিছানা ত্যাগ করছেন৷ আগামী ৩৬ ঘণ্টা না ঘুমিয়ে থাকবেন তিনি৷ এটা একটা পরীক্ষা, যাতে স্বেচ্ছায় অংশ নিচ্ছেন তিনি৷ পেশায় সাংবাদিক ডানিয়েলা স্পেট এই বিষয়ে বলেন, ‘‘আমি ঘুমাতে ভালোবাসি৷ ফলে লম্বা সময় জেগে থাকাটা আমার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হবে৷ এমন নয় যে আমি কখনো রাত জাগিনি৷ কিন্তু তখন সকালে ঘুমিয়ে ক্ষতি পুষিয়ে নিয়েছি৷ তবে এবার আমি সকালেও ঘুমাবো না৷ চেষ্টা করবো কাল সন্ধ্যা অবধি সজাগ থাকতে৷ শরীরের উপর বেশিক্ষণ জেগে থাকার প্রভাব দেখতে চাই৷”

ঘুম বিশেষজ্ঞ ড. লেনার্ট ক্নাক গবেষণার দায়িত্ব নিয়েছেন৷ এই চিকিৎসক সাধারণত তাঁর রোগীদের ভালোভাবে ঘুমাতে সহায়তা করেন৷ তবে এবার বিপরীতটা জানতে আগ্রহী তিনি৷ ইচ্ছাকৃতভাবে না ঘুমানোর মাধ্যমে তা জানা যেতে পারে৷

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

0,,16841508_302,00 ঠিকমতো ঘুম না হলে কী হয়?

স্বাভাবিক অবস্থায় পরীক্ষা

ঘুমের ব্যাঘাত ঘটার পরিণতি জানতে ড. ক্নাক শুরুতে ডানিয়েলাকে স্বাভাবিক অবস্থায় পরীক্ষা করছেন৷ তিনি অনিয়মিত সিগন্যাল দেখতে এতটা সময় নিচ্ছেন তা মাপা হচ্ছে৷ দশ মিনিটের পরীক্ষা৷ এই বিষয়ে ড. ক্নাকে বলেন, ‘‘স্বাভাবিক অবস্থার ফলাফল বেশ ভালো এসেছে৷ তবে আগামীকাল একই পরীক্ষায় কী ফলাফল আসে তা আমি দেখতে আগ্রহী৷ এরপর দুটো ফলাফল তুলনা করবো৷”

না ঘুমিয়ে থাকা

একটানা ষোল ঘণ্টা না ঘুমিয়ে থাকা কোনো ব্যাপার নয়৷ অধিকাংশ মানুষই এই সময়টা না ঘুমিয়ে কাটায়৷ তবে দুপুরে খাওয়ার পর অনেকের ঘুম আসে৷ সন্ধ্যায় বেড়াতে যাওয়া, কফি পান আর ছবি দেখে ঘুম থেকে দূরে থাকা যায়৷ কিন্তু তারপর? ডানিয়েলা কিন্তু না ঘুমিয়ে থাকতে বদ্ধপরিকর৷ তিনি বলেন, ‘‘এখন প্রায় ভোর চারটা বাজে৷ আমি জেগে থাকার জন্য আর কী করবো তা ভেবে পাচ্ছি না৷ তবে আমি সজাগ থাকবোই৷”

পরীক্ষার দ্বিতীয় দিন

গত ত্রিশ ঘণ্টা ধরে না ঘুমিয়ে আছেন ডানিয়েলা৷ তাঁকে দেখলেই সেটা বোঝা যাচ্ছে৷ তাঁর এখন ঘুম দরকার৷ শরীরের যাবতীয় কার্যকলাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে নিতে, শক্তি ফিরে পেতে এটা দরকার৷

ঘুমে ব্যাঘাত ঘটলে মানুষ নানা রকম ভুল করতে পারে, অসুখ হতে পারে, দুর্ঘটনা ঘটতে পারে৷ যে নিয়মিত কম ঘুমায় তার স্বাস্থ্যের ওপর দীর্ঘমেয়াদি নেতিবাচক প্রভাব পড়ে৷ ড. লেনার্ট ক্নাক এর কথায়, ‘‘ঘুমের অভাবে শরীরে মূলত দু’ধরনের বড় জটিলতা দেখা দিতে পারে৷

প্রথমত হৃদযন্ত্রে সমস্যা, মাথা ব্যথা, ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ কিংবা স্ট্রোক হতে পারে৷ দ্বিতীয়ত বিষণ্ণতা এবং ভয়ের প্রবণতা বাড়তে পারে কম ঘুমের কারণে৷”

সজাগ শুয়ে থাকা

আবারও পরীক্ষা৷ ডানিয়েলাকে এবার একটি অন্ধকার ঘরে বিশ মিনিট সজাগ শুয়ে থাকতে হবে৷ এই টেস্টে যে পাশ করবে, সে হয়তো গাড়িও চালাতে পারবে৷ কিন্তু পাঁচ মিনিট পরেই মনিটরের সিগন্যালে সবকিছু পরিষ্কার হয়ে গেছে৷ ডানিয়েলা ঘুমিয়ে পড়েছে৷ অথচ রিঅ্যাকশন টেস্ট তখনো বাকি৷ তাই তাঁকে ঘুম থেকে তুলতে হলো৷ এই পরীক্ষায় প্রথমবার ডানিয়েলা গড়ে ২২০ মিলিসেকেন্ডে সাড়া দিয়েছিল৷ কিন্তু এখন?

ড. ক্নাক বলেন, ‘‘গতকালের তুলনায় দ্বিগুণের চেয়েও বেশি আস্তে সাড়া দিচ্ছেন ডানিয়েলা৷ আমাদের মনে হয় পরীক্ষায় ইতি টানা উচিত৷ কারণ এর চেয়ে খারাপ ফলাফল আর হতে পারে না৷”

পরিকল্পিত সময়ের এক ঘণ্টা আগেই ডানিয়েলা স্পেট এর পরীক্ষা শেষ হয়ে গেছে৷ ৩৫ ঘণ্টা না ঘুমিয়ে থাকা একটা অভিজ্ঞতা বটে৷

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

18 + twelve =