কোন অপারেটিং সিস্টেম? এনড্রয়েড, iOS নাকি উইন্ডোজ?

0
323

সারা পৃথিবীতে যখন স্মার্টফোনের বাজারদখল নিয়ে যুদ্ধ চলছে তখন আপনি বসে থাকবেন কেন? নিজের জন্য একটি স্মার্টফোন কেনার আগে আপনাকে জেনে নিতে হবে ঠিক কেমন মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম আপনার জন্য পারফেক্ট । তবে চলুন জেনে নেই কোন অপারেটিং সিস্টেমে কি কি ফিচার রয়েছে।

প্রথমেই আসা যাক iOS এর ব্যাপারে। টাচবেস্‌ড স্মার্টফোনের আইডিয়া প্রথম সবার সামনে উপস্থাপন করে অ্যাপল। ২০০৭ সালে তারা প্রথম বাজারে আনে আইফোন। আইফোনের সাথে তারা iOS অপারেটিং যুক্ত করে। যেহেতু বাজারে তখন অন্যকোন স্মার্টফোন ছিলনা তাই আইফোন এবং iOS এর আইডিয়াটা ছিল অসাধারণ। iOS1 দিয়ে শুরু করলেও বিভিন্ন পরিবর্তন-পরিমার্জন শেষে বর্তমানে  iOS7 বাজারে নতুন এসেছে। বর্তমানে স্মার্টফোনের বাজারে ১৩% দখল করে আছে iOS। iOS এর সবচেয়ে বড় সুবিধা হল যেকোনো অ্যাপস চালাতে গিয়ে এটি হ্যাং কিংবা ক্রেশ করেনা। এছাড়াও iOS সেটের ব্যাটারির পাওয়ার বেশিক্ষন থাকে। অন্যদিকে iOS সবচেয়ে বড় সমস্যা হল কোন গান বা ভিডিও আইটিউনস ছাড়া ব্যবহার করা কিংবা আদান প্রদান করা যায় না। iOS এর বিপক্ষে আরেকটি অভিযোগ ছিল এতে মাল্টিটাস্কিং কাজ করা যায় না। যদিও গ্রাহকদের দাবির প্রেক্ষিতে iOS এর সর্বশেষ ভার্শন iOS7  এ মাল্টি টাস্কিং সুবিধা যোগ করা হয়েছে।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

এন্ড্রয়েড মুলত ওপেনসোর্স ভিত্তিক একটি অপারেটিং সিস্টেম। ২০০৮ সালের দিকে টেক জায়ান্ট গুগল এটি কিনে নেয়। বর্তমান স্মার্টফোন বাজারের ৮০% দখল করে আছে এন্ড্রয়েড ভিত্তিক সেট। বর্তমানে বড় বড় মোবাইল সেট প্রস্তুতকারকরা এন্ড্রয়েডের জন্য সেট বানাচ্ছে বলে এন্ড্রয়েড সেটের বৈচিত্র্য অনেক বেশী। এন্ড্রয়েড এর আরেকটি বড় সুবিধা হল মুক্ত সফটওয়্যার ভিত্তিক হওয়ায় আপনি আপনার স্মার্টফোনকে নিজের মত করে কাস্টোমাইজ করতে পারবেন। বাজারে কমদামী স্মার্টফোন গুলো বেশীর ভাগ এন্ড্রয়েডেই পাওয়া যাচ্ছে। বর্তমানে গুগল প্লেস্টোরে রয়েছে প্রায় ১২ লাখের অধিক এন্ড্রয়েড অ্যাপস। ফ্রি এবং টাকার বিনিময়ে, দুইভাবেই পাওয়া যাবে সেসব অ্যাপস।

অ্যাপলের শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে মাইক্রোসফট অনেক আগেই উইন্ডোজ মোবাইল ছাড়লেও iOS এবং আন্ড্রোয়েড এর কাছে প্রতিযোগিতায় পড়ে কোন শক্ত অবস্থান করতে পারেনি। কিছুদিন আগে জায়ান্ট নকিয়াকে কিনে নিয়ে আবার স্মার্টফোনের বাজারে প্রতিযোগিতায় ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছে মাইক্রোসফট। উইন্ডোজ ফোনের জন্য iOS এবং আন্ড্রোয়েডের মত এত বেশী অ্যাপস না থাকলেও ভিন্ন ধর্মী ইন্টারফেসের কারনে এটি সহজেই গ্রাহকদের নজর কারবে। সেই সাথে রয়েছে এক্সবক্সের সব উত্তেজনাকর গেমস খেলার সুবিধা। মাইক্রোসফট আশা করছে খুব শীঘ্রই তারা চমক দেখাতে পারবে।

প্রতিটি অপারেটিং সিস্টেম সম্পর্কে জানা এইজন্য প্রয়োজন যে, আপনি সহজেই অপারেটিং সিস্টেম গুলোর উপকারিতা এবং দুর্বলতা বিবেচনা করতে পারবেন এবং তার পরেই নির্ধারণ করে নিতে পারবেন কোন অপারেটিং সিস্টেম আপনার জন্য প্রযোজ্য।nokia কোন অপারেটিং সিস্টেম? এনড্রয়েড, iOS নাকি উইন্ডোজ?

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

five × three =