নিজের জন্য বেছে নিতে পারেন সময়োপযোগী ৫টি পেশা

0
629

শিক্ষাগত যোগ্যতার সঙ্গে পেশার মিল না থাকায় কর্মক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে কষ্ট হয় l পিছিয়ে পড়তে হয় ক্যারিয়ার দৌড়ে l লেখাপড়ার নির্দিষ্ট বিষয়ের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে চাকরি জীবনে প্রবেশ করলে শীঘ্রই সফলতা পাওয়া সম্ভব l এ জন্য প্রয়োজন লক্ষ্য ও সিদ্ধান্ত l তাহলেই ধরা দেবে সাফল্য l এ বিষয়ে লিখেছেন- শামছুল হক রাসেল

বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায়, লেখাপড়া শেষ করে চাকরি নামক সোনার হরিণের পেছনে ছুটতে হয় l এর চেয়েও বড় সমস্যা হয় তখন, যখন দেখা যায় বাংলায় অনার্স করে ব্যাংকে, পরিসংখ্যান করে মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ অথবা ইংরেজি বিষয় নিয়ে পড়ে সাংবাদিকতা করতে হয় l অনেক সময় শিক্ষাগত যোগ্যতার সঙ্গে পেশার মিল না থাকায় প্রমোশন পেতে কষ্ট হয় l পিছিয়ে পড়তে হয় ক্যারিয়ার দৌড়ে l অনেকেই চিন্তা করেন বিষয়ভিত্তিক ক্যারিয়ার গড়ার l তবে লক্ষ্য ও সিদ্ধান্ত যদি ঠিক থাকে সাফল্য অনিবার্য l তাই সবার আগে জেনে নিতে হবে আমাদের দেশে কি ধরনের ক্যারিয়ার সেক্টর রয়েছে l পাশাপাশি এটাও জানা জরুরি, এসব সেক্টরে কি ধরনের যোগ্যতা প্রয়োজন l

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

career_ladder নিজের জন্য বেছে নিতে পারেন সময়োপযোগী ৫টি পেশা

মার্কেটিং কোম্পানি : বর্তমানে আমাদের দেশে সবচেয়ে বেশি লোক চাকরি করে মার্কেটিং কোম্পানিতে l বিভিন্ন কনজুমার পণ্য থেকে শুরু করে প্রসাধনসামগ্রী পর্যন্ত এরা মার্কেটিং করে থাকে l এসব কোম্পানির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো_ আবুল খায়ের কনজুমার প্রোডাক্ট লিমিটেড, আকিজ ফুডস লিমিটেড, স্কয়ার টয়লেট্রিজ লি., গ্লোব সফট ড্রিংকস লিমিটেড ইত্যাদি l এসব কোম্পানিতে সাধারণ সেলসম্যান হতে শুরু করে জেনারেল ম্যানেজার পদে লোক নেওয়া হয় l শিক্ষাগত যোগ্যতা, মেধা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে এখানে পদ দেওয়া হয়ে থাকে l

ওষুধশিল্প : বাংলাদেশ ওষুধশিল্প এখন অনেক দূর এগিয়েছে l দেশের চাহিদা পূরণ করে বিদেশেও ওষুধ রপ্তানি হচ্ছে l ওষুধ কোম্পানিগুলোতে সবচেয়ে বেশি লোক নেওয়া হয় মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভ পদে l মেডিকেল রিপ্রেজেন্টেটিভদের কাজ মূলত ফার্মেসি ও ওষুধ মার্কেটগুলো থেকে অর্ডার সরবরাহ করা l পরবর্তীতে ডেলিভারিম্যান গিয়ে সেই ওষুধ সরবরাহ করে l এ চাকরিতে বেতনের পাশাপাশি সেলস ইনসেনটিভও আছে l

ব্যাংকিং সেক্টর : এই সেক্টরের চাকরির সবচেয়ে বড় সুবিধা হলো চাকরির স্থায়িত্ব ও চাকরি শেষে পেনশন l আগে শুধু সরকারি ব্যাংকের ওপর নির্ভর থাকতে হতো l এখন দেশে অনেক বেসরকারি ব্যাংক রয়েছে l এসব ব্যাংকে জুনিয়র অফিসার পদ থেকে লোক নেওয়া শুরু হয় l প্রবেশনারি অফিসার হিসেবে কমপক্ষে মাস্টার্স পাস বা সমমানের হতে হবে, তবে এমবিএ পাস হলে ভালো হয় l এই পেশায় সময়মতো জীবনটাকে গোছানো যায় l অর্থাৎ একটি নির্দিষ্ট সময়ে অফিসে আসা এবং অফিস থেকে ফেরা l

সাংবাদিকতা : একটা সময় ছিল যখন পেশা হিসেবে সাংবাদিকতাকে অনেকেই কলুষ চোখে দেখত l তখন মনে করা হতো যে, কিছু করতে না পেরে সাংবাদিকতা পেশায় এসেছে l সময় বদলেছে l এই পেশায় এখন সম্মানের পাশাপাশি উপযুক্ত সম্মানীও পাওয়া যায় l বর্তমানে প্রিন্ট মিডিয়ার পাশাপাশি ইলেকট্রনিক মিডিয়া অনেক দূর এগিয়েছে l সাংবাদিকদের চাহিদাও অনেক বেড়ে গেছে l সুতরাং যে কেউই লেখাপড়ার পাঠ চুকিয়ে এই পেশায় প্রবেশ করতে পারেন l সাংবাদিকতার ওপর যারা পড়াশোনা করেছেন তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয় l

টেলিকম সেক্টর : প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে হাজার হাজার বেকার যুবক-যুবতী এ পেশায় নিয়োজিত রয়েছে l কল সেন্টারের নিম্ন থেকে ঊধর্্বতন কর্মকর্তা এবং কাস্টমার কেয়ার থেকে মার্কেটিং পর্যন্ত এই পেশায় যে কেউ নিজেকে সম্পৃক্ত করতে পারেন l কমপক্ষে গ্রাজুয়েশন করে এই পেশায় প্রবেশ করলে যে কেউ সফলতার পথে পা রাখতে পারেন l এগিয়ে যেতে পারেন সামনের দিকে l নিজেকে আগে সময়ের সঙ্গে তৈরি করতে হবে l নিতে হবে সঠিক সিদ্ধান্ত l তাহলেই যে কোনো পেশা বা অবস্থানেই দক্ষতার সঙ্গে মেধাকে বিকশিত করা যাবে l

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

মন্তব্য দিন আপনার