উইন্ডোজকে নিরাপদে রাখুন শক্তিশালী স্যান্ডবক্স ভাইরাস থেকে

1
285

পিসি ব্যবহার করছেন আর ভাইরাসের ঝামেলায় পড়েননি এমন মানুষ পৃথিবীতে নেই। অনেকেই বলবেন লিনাক্স বেজড ওএসের কথা, যেখানে ভাইরাস একরকম নেই বললেই চলে। কিন্তু নানাবিধ কারনে এগুলো খুবই সীমাবদ্ধ, এবং যারা ব্যবহার করেন তারা অধিকাংশই ডুয়েল বুটে উইন্ডোজ রাখেন। তাই ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কারোরই কম না। নানাভাবে ভাইরাসের মোকাবিলা করা হয়।

images উইন্ডোজকে নিরাপদে রাখুন শক্তিশালী স্যান্ডবক্স ভাইরাস থেকে

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

প্রথমত, অবশ্যই নানাবিধ এন্টিভাইরাস ব্যবহার। ব্যক্তিগতভাবে আমি এন্টিভাইরাসে বিরক্ত। অহেতুক পিসির রিসোর্স নিয়ে নেয়, মানে পিসিটি তার কর্মক্ষমতার কিছু অংশ লীজ দিয়ে দেয় এই এন্টিভাইরাস সফটওয়্যারকে। তারপরে বাংলাদেশের বাস্তবতায় এন্টিভাইরাস কিছুটা অসুবিধাজনক, কারন এগুলো রেগুলার আপডেট না করলে ভাইরাস ডিটেক্ট করার ক্ষমতা অনেক অনেক কমে যায়। ঢাল তলোয়ার ছাড়া নিধিরাম সর্দার হয়ে তখন শুধু উদর পূর্তি করতে থাকে। তাছাড়া প্রতিবছর লাইসেন্স কিনতে হয়। এছাড়া কোন এন্টিভাইরাসই শতভাগ নিশ্চয়তা দিতে পারে না ভাইরাস ডিটেক্ট করার। অনেক সময়ই দেখা যায়, একটা এন্টিভাইরাস যেটাকে ভাইরাস মনে করছে অন্যটা তাকে ছাড়পত্র দিয়ে দিচ্ছে। ব্যবহারকারী হচ্ছেন বিভ্রান্ত।

দ্বিতীয়তঃ, অনেক দক্ষ ব্যবহারকারী বিভিন্ন ডিস্ক ক্লোনিং সফটওয়্যার ব্যবহার করে ক্লিন উইন্ডোজ ব্যাকআপ নিয়ে রাখেন, যা দিয়ে পরে খুব দ্রুত ই্নফেক্টেড উইন্ডোজ সরিয়ে ক্লিন উইন্ডোজ ইনস্টল করা যায়। কিন্তু এটা আমি নিজে করলেও এখানেও সেই সমস্যা থেকে যায়। কখনও না কখনও ভাইরাস ঢুকে পড়েই।

তাহলে ভাইরাস মুক্ত পৃথিবী কি সম্ভব না??


এটা আসলে নিজের কাছে নির্ভর করে। আমরা যদি অচেনা ইনফেক্টেড সফটওয়্যার ব্যবহার না করি তাহলে ভাইরাস ঢুকবে না। কিন্তু তা কি করা সম্ভব? সম্ভব না। তাহলে?

এমনকি কোন উপায় আছে যে আমি নিশ্চিন্তে সব প্রোগ্রাম চালাতে পারব ভাইরাসের চিন্তা না করে?


সুখের বিষয়, আছে। এই প্রযুক্তিটির নাম স্যান্ডবক্স। স্যান্ডবক্স এমন একটি প্রযুক্তি যেখানে ভার্চুয়াল মেশিনে আপনার প্রোগ্রামটি রান হয়। তার ফলে অরিজিনাল অপারেটিং সিস্টেম ইনফেক্টেড হয় না। যেসব প্রোগ্রাম আপনার সন্দেহজনক লাগে, বা যেগুলো নিরাপদ উৎস থেকে সংগ্রহ করা হয় নি, সেগুলো স্যান্ডবক্সে চালালে আপনি কাজও করতে পারবেন, ভাইরাসও কিছু করতে পারবে না।

স্যান্ডবক্স আপনার প্রগ্রাম আর উইন্ডোজের মধ্যে একটা দেয়াল তৈরী করে। আপনি এমনকি ভাইরাস যুক্ত ফাইলও নিশ্চিন্তে চালাতে পারেন এভাবে। আপনার উইন্ডোজ ক্ষতিগ্রস্থ হবে না। তবে প্রোগামকে এলাও করা মানে যেহেতু সাময়িক কন্ট্রোল তার হাতে দিয়ে দেওয়া, খুব ক্ষতিকারক প্রোগ্রাম হলে আপনার ডাটা কিন্তু চুরি করতেই পারে। যদিও তার সম্ভাবনা অনেক কম। শুধু একটা ব্যাপারে নিশ্চিন্ত থাকতে পারেন, ভাইরাস ছড়িয়ে পড়বে না।

সাম্প্রতিক কিছু এন্টিভাইরাসে স্যান্ডবক্স বিল্ট ইন থাকে। ক্যাসপারস্কি,বিটডিফেন্ডার সহ অনেক সামনের সারির কোম্পানিই তাদের বিভিন্ন এন্টিভাইরাস প্যাকেজে স্যান্ডবক্স যুক্ত করেছেন।আবার অণেক কোম্পানি শুধু স্যান্ডবক্স সল্যুশনই দেয়।

আপনি যদি নেট থেকে কোন সফটওয়্যার নামান বা তার আইডেন্টিটি সম্পর্কে নিশ্চিত না হতে পারেন, তাহলে সেটি স্যান্ডবক্সে চালান। অনেক নিরাপদ থাকবেন।

আসলে কোন কিছুই আপনাকে সুরক্ষা দিতে পারবে না, যদি না আপনি সচেতন হন। নিজে সচেতন থাকুন, সুরক্ষিত থাকুন।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

14 − eight =