ইমেইল এবং ফোনে কড়া নজরদারি চলছে ভারতেরও

0
287

জাতীয় নিরাপত্তার প্রশ্নে আমেরিকার দেখানো পথে হাঁটল ভারতও। বিশ্বের বৃহত্তম উদার গণতান্ত্রিক দেশও এবার তার নাগরিকদের স্বাধীনতার ডানা ছাঁটতে চলেছে। ভারত সরকার ও দেশের গোয়েন্দা এজেন্সিগুলি এবার থেকে দেশের যাবতীয় ই মেল ও ফোন কল ট্যাপ করার প্রযুক্তি বসিয়ে দেশের মধ্যে ঘটে চলা যাবতীয় আর্থিক লেনদেন ও ফোনের বাক্যালাপের উপর ব্যাপক নজরদারি ব্যবস্থা কার্যকর করল। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে নজরদারি চালাতে আদালত ও সংসদের থেকে কোনও াগাম অনুমতিরও দরকার নেই।

internet ইমেইল এবং ফোনে কড়া নজরদারি চলছে ভারতেরও

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

সরকারি সূত্র ও গোয়েন্দা এজেন্সিগুলি সাফ জানিয়েছে, জাতীয় নিরাপত্তা,কালো টাকার লেনদেন, জঙ্গিদের কাছে টাকা পৌঁছনো, নাশকতা,জঙ্গি হামলা সহ সবরকম দেশ বিরোধী কাজকর্ম রুখতে এটি একটি সুসংহত ব্যবস্থা। এই ব্যবস্থা কার্যকর করা নিয়ে কোনওরকম আপস করবে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের ইন্টারনেট রিসার্চার সিন্থিয়া ওয়াং জানিয়েছেন, ভারত যদি নিজেকে কর্তৃত্বশালী ও স্বৈরাচারী রাষ্ট্র হিসেবে দেখাতে না চায় তাহলে এটা আগে ঠিক করতে হবে গোপন তথ্যগুলি কে বা কারা জোগাড় করে কাদের স্বার্থে কোথায় সংরক্ষিত করবেন। কারণ দেশের স্বার্থের নামে কোনও রাজনৈতিক স্বার্থে যেন গোটা ব্যবস্থাটা কাজে লাগানো না হয়। সেটা হলে ক্ষমতার চূড়ান্ত অপব্যবহার শুরু হয়ে যাবে। সেইসঙ্গে সুনিশ্চিত করতে হবে নাগরিকদের ব্যক্তি স্বাধীনতা ও গোপনীয়তাও।

খবরে প্রকাশ, জুলিয়েন অ্যাসাঞ্জ, উইকিলিকসের বিদ্রোহ, হালে ঘটে যাওয়া এডওয়ার্ড স্নোডেনের তথ্য ফাঁস সহ একাধিক ঘটনায় সরকারি খবরদারি ও স্বৈরাচার নিয়ে তোলপাড় হয়েছে বিভিন্ন মহলে। তারপরও নাগরিকদের উপর নজরদারি সুনিশ্চিত করতে বজ্র আঁটুনি তৈরি করতে চাইছে ভারত সরকারের গোয়েন্দা বিভাগগুলি। ফলে র, আইবি, সিবিআই, এনআইএ, ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্ট, ভিজিল্যান্স কমিশনের কাছে দেশের যাবতীয় আর্থিক লেনদেনের দৈনিক তথ্য পৌমছে যাবে। পড়া যাবে সব কোটি কোটি ই মেল। মনে করলেই আড়ি পাতা যাবে সব মোবাইলের সব কথাবার্তার উপর। সরকারি বিনিদ্র নজর থাকবে ফেসবুক, ট্যুইটারের সব অ্যাকাউন্টের উপর।  কিন্তু সেন্ট্রাল মনিটরিং সিস্টেম (সিএমএস)-এর মাধ্যমে সরকারের হাতে আসা তথ্যের যাতে অপব্যবহার না হয় তা সুনিশ্চিত করতে এখনও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি সরকার। আম আদমির জন্য রক্ষাকবচের কোনও উপায় বাতলায়নি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

মন্তব্য দিন আপনার