গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

0
353
এটি 283 পর্বের গেমস জোন সিরিজ টিউনের 180 তম পর্ব
গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমওয়ালা

হ্যালো! আমি ফাহাদ! গেমওয়ালা হয়ে টিউনারপেজে রয়েছি অনেকদিন ধরেই। আমি একজন পুরোনো টিউনার এই টিউনারপেজের। গেমস নিয়ে রয়েছি আমি তোমাদেরই সাথে। আশা করি আরো বেশ কিছুদিন থাকতে পারবো।
গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

বার্নআউট রেসিং গেমস সিরিজের ৫ম সংস্করণ হলো বার্নআউট প্যারাডাইস এবং মোট ৭তম সংস্করণ সব মিলিয়ে। গেমটি নির্মাণ করেছে ক্রিটেরিয়ন গেমস এবং প্রকাশ করেছে ইলেক্ট্রনিক আর্টস। গেমটি ২০০৮ সালের জানুয়ারী মাসে প্লে-স্টেশন ৩ এবং এক্সবক্স ৩৬০ গেমস কনসোলের জন্য মুক্তি পায় এবং পরে ফেব্রুয়ারী, ২০০৮ সালে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ ভিক্তিক পিসির জন্যও মুক্তি পায়।

বার্নআউট প্যারাডাইস গেমটি বার্নআউট সিরিজের প্রথম গেম যেটি পিসির জন্য মুক্তি পেয়েছে। বর্তমানে নিড ফর স্পিড এর প্রধাণ নির্মাতা ক্রিটেরিয়ন গেমস গেমটির গ্রাফিক্স টেকনোলজি আরো বিস্তৃত করেছে। এছাড়া মাল্টিপ্লেয়ার খেলার সুবির্ধাথে প্লেয়ার একসাথে ৩টি ৪:৩ সাইজের মনিটর সংযোগ করতে পারবে পলিভিশন রেটিও মাধ্যমে খেলার জন্য।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

বার্নআউট প্যারাডাইস

 গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

নির্মাতা:

ক্রিটেরিয়ন গেমস

প্রকাশক:

ইলেক্ট্রনিক আর্টস

 

সিরিজ:

বার্নআউট

ইঞ্জিণ:

রেন্ডারওয়ার

খেলা যাবে:

প্লে-স্টেশন ৩, এক্সবক্স ৩৬০ এবং মাইক্রোসফট উইন্ডোজ

মুক্তি পেয়েছে:

জানুয়ারী-ফেব্রুয়ারী, ২০০৮,

ফেব্রুয়ারী-মার্চ ২০০৯  (দ্যা আল্টিমেইট বক্স)

ধরণ:

রেসিং

 

খেলার ধরণ:

সিঙ্গেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার

 

ট্রেইলার ভিডিও:

www.youtube.com/watch?v=I053bNHvGc4

www.youtube.com/watch?v=HmQWkoRi5zo

www.youtube.com/watch?v=l-j-sAmtmoA

সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টস:

কমপক্ষে:

উইন্ডোজ এক্সপি সার্ভিস প্যাক ২,

পেন্টিয়াম ৪ ২.৮ গিগাহার্জ গতির প্রসেসর,

১ গিগাবাইট র‌্যাম,

জিফোর্স ৬৬০০ অথবা রাডিয়ন এক্স১৩০০ মডেলের গ্রাফিক্স কার্ড,

৪ গিগাবাইট ফ্রি হার্ডডিক্স স্পেস,

ডাইরেক্ট এক্স ৯.০সি সাথে শেডার মডেল ৩.০

 

ভালো ভাবে খেলতে হলে:

ডুয়াল কোর ২.২ গিগাহার্জ গতির প্রসেসর,

২ গিগাবাইট র‌্যাম,

রাডিয়ন এক্স১৯০০ মডেলের গ্রাফিক্স কার্ড,

৭ গিগাবাইট ফ্রি হার্ডডিক্স স্পেস,

উইন্ডোজ এক্সপি সার্ভিস প্যাক ৩,

ডাইরেক্ট এক্স ৯.০সি সাথে শেডার মডেল ৩.০

 গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমটির গেম-প্লে সেট করা হয়েছে ফিকশনাল “প্যারাডাইস সিটি” তে। এটি একটি ওপেন ওয়ার্ল্ড ভিডিও গেম যাতে প্লেয়ার কয়েক ধরণের রেসে অংশগ্রহণ করতে পারে। এছাড়াও অনলাইনেও খেলা যাবে, যেখানে এডিশনাল মোডস রয়েছে। গেমটির ফ্রি আপগ্রেড রয়েছে যাতে মোটরসাইকেল এবং টাইম-অফ-ডে সার্কেল অনর্-ভুক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও সাথে রয়েছে পেইডএবল ডাউনলোডেবল কনটেন্স যাতে নতুন নতুন সব গাড়ি এবং ফিকশনাল বিগ সার্ফ আইল্যান্ড রয়েছে।

গেমটিতে প্লেয়ার তার নিচের ইচ্ছে মতো খেলতে পারবে। নেই কোনো নিয়মমাফিক রুলস। গেমটির অফিসিয়াল ভার্সনে রাত-দিনের পরিবেশ নেই তবে একটি ডাউনলোডেবল কনটেন্ট এ এটি রয়েছে।

সিরিজের পূর্বেও গেমগুলোতে “ক্রাশ মোড” বার্নআউট প্যারাডাইস গেমটিতে নতুন রূপে এবং “শোটাইম” নামে  এসেছে। যা গেমটিতে যেকোনো সময় ব্যবহার করা যাবে। গেমটিতে ট্রাফিক, রেস রুটস ইত্যাদি নিজস্বভাবে সেটিং করে নেওয়া যাবে।

গেমটির ড্যামেজ সিস্টেম আরো আপগ্রেড করা হয়েছে। এখন ক্র্যাশ টাইপ দুই ধরণের ক্র্যাশের পর গাড়ির অবস’া ভেদে। যদি ক্র্যাশের পর প্লেয়ার চারটি চাকাই অক্ষত রাখতে পারে তাহেল ক্র্যাশের পরও সে রেস করে যেতে পারবে। একে “ড্রাইভ এওয়ে” বলা হয়। আর যদি ক্র্যাশে কোনো একটি চাকা নষ্ট হয়ে যায় তবে রাস-ার পাশে গাড়িটির ইঞ্জিণ ক্ষতিগ্রস’ হবে এবং থেমে যাবে। প্লেয়ার কে গাড়ি ঠিক করা পর্যন- অপেক্ষা করতে হবে ।

গেমটির গাড়িসমূহ এখন মেনুফেকচার এবং মডেল নাম আছে, যেগুলো বাস-বিক দুনিয়া থেকে নেওয়া হয়েছে। তবে গেমটিতে গাড়িসমূহের নিজস্বতা করা যায় না শুধুমাত্র রং বদলানো ছাড়া। রং বদলানো যায় গাড়ি চালিয়ে পেইন্ট শপে গিয়ে অথবা গাড়ি খরিদ করার সময়। এছাড়া গাড়ি বুষ্ট এবং নষ্ট গাড়ি রিপেয়ার করার জন্য প্লেয়ারকে যথাক্রমে গ্যাস স্টেশন এবং রিপেয়ার স্টেশনে যেতে হবে।

গেমটির ডাউনলোডেবল কনটেন্স সমূহের মধ্যে রয়েছে:

ডাউনলোডেবল কনটেন্স

ফিচার

বার্নআউট পার্টি প্যাক (৫ ফেব্রুয়ারী, ২০০৯) ফ্রিবার্ন চ্যালেঞ্জ মোড
দ্যা আল্টিমেইট বক্স (মার্চ, ২০০৯) Cagney, মোটরবাইট, পার্টি প্যাক এবং আপগ্রেড প্যাক
লেজেন্ডারি কারস (৭ নভেম্বর, ২০০৮) চারটি বোনাস গাড়ি
টয় কারস (৫ মার্চ, ২০০৯) টয় গাড়ির আদলে তৈরি তিনটি প্যাকের গাড়ি সমূহ
বুষ্ট স্পেশালস (১২ মার্চ, ২০০৯) দুটি সুপারকার
কপস এবং রবারস প্যাক (৬ ফেব্রুয়ারী, ২০০৯) সিরিজের আগের গেমসগুলোর রিবুট
বিগ সার্ফ আইল্যান্ড প্যাক (১১ জুন, ২০০৯) নতুন একটি আইল্যান্ড

গেমটিতে ব্যবহার করা হয়েছে সাউন্ডট্যাক যা ইএ ট্র্যাক্স সিস্টেমে আনা হয়েছে। গানগুলো ধারাবাহিক অথবা র‌্যান্ডম মোডে প্লে করা যাবে। তবে নির্দিষ্ট রেসে নির্দিষ্ট গান সেট করার ফিচারও রয়েছে এবং গান মুছে দেওয়াও যায়। গানগুলো গেমটির ফিকশনাল রেডি স্টেশন “ক্র্যাশ রেডিও” থেকে প্রচারিত হবে যার হোষ্ট ডিজে এটোমিকা। গেমটিতে গান রয়েছে ৯২ টি।

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

ডাউনলোড করে নাও নিচের যেকোনো একটি ওয়েবসাইট হতে:

 or

http://www.freedownloadgamez.info/2012/12/free-download-game-burnout-paradise.html

or

thepiratebay.sx/torrent/4699736

or

http://www.hottergaming.com/2013/04/burnout-paradise-ultimate-box-free.html

or

http://www.cakpesgame.com/2013/05/burnout-paradise-ultimate-box-pc-full.html

 

আমার লেখা গেমস জোন শুধুমাত্র ফেসবুকে আমার নিজস্ব এবং গেমস জোনের আসল পেজ www.facebook.com/games.zone.bd এই পেজটাতে আমি শেয়ার করে থাকি। বাকি কোনো পেজে আমার গেমস জোনের পোষ্ট শেয়ার করা হয় না। যদি করে থাকে তাহলে তারা আমার পারমিশন ছাড়াই এ কাজ টি করেছে। আপনারা যদি ফেসবুকে আমার গেমস জোনের পোষ্ট সমূহ অন্যান্য পেজে পেয়ে থাকেন তাহলে একটু কষ্ট করে আমাকে জানিয়ে দেবেন প্লিজ। বহু কষ্ট করে বহু সময় খরচ করে গেমস জোনের এক একটি পর্ব লিখি আমি।

গেমস জোন মুলত টিউনারপেজ (www.tunerpage.com) ব্লগে আমি নিয়মিত এবং প্রথম থেকে লেখা আরম্ভ করেছিলাম। সেখানে গেমস জোনের মোট পর্বের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ১৮৮টি। আমি নিজে টিউনারপেজ, টেকটিউনস এবং বাংলা ফ্যামিলি ব্লগে গেমস জোন টিউন করে থাকি। আগে পিসি হেল্পলাইনে করতাম এখন করি না। তাই আপনারা যদি নিচের ৪ টি ব্লগের বাইরে অন্য কোনো ব্লগে আমার গেমস জোনের কপি দেখে থাকেন তাহলে দয়া করে কমেন্টে জানান অথবা ফেসবুকেও আমাকে জানাতে পারেন (fb.com/talented.fahad)

www.tunerpage.com

www.techtunes.com.bd

www.banglafamily.com

>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>><<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<

গেমস জোন :: Burnout Paradise (২০০৮/রেসিং/ডুয়াল কোর)

Series Navigation << গেমস জোন :: Hitman: Absolution (২০১২/একশন-এডভেঞ্চার/ডুয়াল কোর)গেমস জোন :: Assassin’s Creed (২০০৭) >>
টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

eight + sixteen =