গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

0
252
এটি 283 পর্বের গেমস জোন সিরিজ টিউনের 178 তম পর্ব
গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমওয়ালা

হ্যালো! আমি ফাহাদ! গেমওয়ালা হয়ে টিউনারপেজে রয়েছি অনেকদিন ধরেই। আমি একজন পুরোনো টিউনার এই টিউনারপেজের। গেমস নিয়ে রয়েছি আমি তোমাদেরই সাথে। আশা করি আরো বেশ কিছুদিন থাকতে পারবো।
গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

একটা কথা স্পষ্ট করে বলে রাখছি, আমার লেখা গেমস জোন শুধুমাত্র ফেসবুকে আমার নিজস্ব এবং গেমস জোনের আসল পেজ www.facebook.com/games.zone.bd এই পেজটাতে আমি শেয়ার করে থাকি। বাকি কোনো পেজে আমার গেমস জোনের পোষ্ট শেয়ার করা হয় না। যদি করে থাকে তাহলে তারা আমার পারমিশন ছাড়াই এ কাজ টি করেছে। আপনারা যদি ফেসবুকে আমার গেমস জোনের পোষ্ট সমূহ অন্যান্য পেজে পেয়ে থাকেন তাহলে একটু কষ্ট করে আমাকে জানিয়ে দেবেন প্লিজ। বহু কষ্ট করে বহু সময় খরচ করে গেমস জোনের এক একটি পর্ব লিখি আমি।

গেমস জোন মুলত টিউনারপেজ (www.tunerpage.com) ব্লগে আমি নিয়মিত এবং প্রথম থেকে লেখা আরম্ভ করেছিলাম। সেখানে গেমস জোনের মোট পর্বের সংখ্যা এখন পর্যন্ত ১৭২টি। আমি নিজে টিউনারপেজ, টেকটিউনস এবং বাংলা ফ্যামিলি ব্লগে গেমস জোন টিউন করে থাকি। আগে পিসি হেল্পলাইনে করতাম এখন করি না। তাই আপনারা যদি নিচের ৪ টি ব্লগের বাইরে অন্য কোনো ব্লগে আমার গেমস জোনের কপি দেখে থাকেন তাহলে দয়া করে কমেন্টে জানান অথবা ফেসবুকেও আমাকে জানাতে পারেন (fb.com/talented.fahad)

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

www.tunerpage.com

www.techtunes.com.bd

www.banglafamily.com

 

>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>>><<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<<

ইদানিং দেখতে পাচ্ছি বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলের টেক অনুষ্ঠানের গেমস বিভাগে আমার গেমস জোনের স্ক্রিপ্ট পড়া হচ্ছে! টিভিতে নিজের হাতের লেখা শুনতে ভালোই লাগে!হাহাহাহা! এই যে বাংলায় কভার দিচ্ছি দুদিন পর দেখবো বাজারে বাংলায় ডিভিডির কভার পাওয়া যাচ্ছে! হতেও পারে!

আজকের গেমস জোনে থাকছে রেসিডেন্ট ইভিল ৪ এবং গিয়ারস অফ ওয়ারস এই দুটি গেমসের সম্মিলিত একটি গেম। আজকের গেম ডার্ক সেক্টর।

ডার্ক সেক্টর একটি থার্ড পারসন শুটার ভিডিও গেম। নির্মাণ করেছে ডিজিটাল এক্সট্রিমস। গেমটি মুলত এক্সবক্স ৩৬০ গেমস কনসোলের গেম। তবে গেমটি এক্সবক্স ৩৬০, প্লে-স্টেশন ৩ এবং পিসিতে পাওয়া যাচ্ছে।  গেমটি ২০০৮ সালে বিশ্বব্যাপি মুক্তি পায়।

গেমটি ফিকশনাল ল্যাসরিয়ার ইর্স্টানাল ব্লোকে সেট করা হয়েছে। গেমটিতে তোমাকে সিআইএ “ক্লিন আপ ম্যান” হেইডেন ট্যানোর ভূমিকায় খেলতে হবে। এজেন্ট মেজনারকে ইন্টারসেপ্ট করতে গিয়ে ট্যানোর ডান হাত টেকনোসাইট ভাইরাসের দ্বারা আক্রান্ত হয়। এর ফলে সে তিনমুখী বুমেরাং ছোড়তে পারে!

ডার্ক সেক্টর

 গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

নির্মাতা:

ডিজিটাল এক্সট্রিমস

নোভিই ডিক্স (পিসি)

প্রকাশক:

ডি৩ পাবলিশার,

এসপায়ার মিডিয়া

নোভিই ডিক্স (রাশিয়ায়)

ইঞ্জিণ:

এভোলুশন ইঞ্জিণ

খেলা যাবে:

পিসি, এক্সবক্স ৩৬০ এবং প্লে-স্টেশন ৩ তে।

মুক্তি পেয়েছে:

মার্চ-মে ২০০৮ সালে।

ধরণ:

থার্ড পারসন শুটার

খেলার ধরণ:

সিঙ্গেল এবং মাল্টিপ্লেয়ার

সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টস:

ইন্টেল কোর ২ ডুয়ো ২.৪ গিগাহার্জ অথবা এএমডি এথলন ৬৪ এক্স২ ডুয়াল কোর ৪০০০+ প্রসেসর,

জিফোর্স ৮৮০০ জিটিএস অথবা রাডিয়ন এইচডি ২৯০০ প্রো গ্রাফিক্স কার্ড,

২ গিগাবাইট র‌্যাম,

৬.৫ গিগাবাইট ফ্রি হার্ডডিক্স স্পেস,

ডাইরেক্ট এক্স ৯.০সি সাথে শেডার মডেল ৩.০

উইন্ডোজ এক্সপি সার্ভিস প্যাক ৩ সহ।

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

স্টোরিলাইন:

গেমটি শুরু হয় ট্যানোর একটি গুলাগ কম্পাউন্ডের উপর আক্রমণের মধ্য দিয়ে। ট্যানো সমস্ত শত্রুর হয়ে কাজ করতে রবার্ট মেজনারকে খোঁজার জন্য। মেজনার একজন এজেন্ট যে ল্যাসরিয়াতে টেকনোসাইট ভাইরাসের উদ্বাবক। ট্যানো বিল্ডিংয়ে সি৪ বোমা ফিট করে এরপর হিউম্যান আকৃতির মেটাল ফিগার যাদেরকে নেমেসিস নামে ডাকা হয় তাদের সাথে যুদ্ধ করে। তবে সেখানে সে পেরে উঠতে পারে না নেমেসিসদের সাথে, হঠাৎ একটি জোড়ালো আঘাতে সে জ্ঞান হারায়। কয়েক ঘন্টা পর জ্ঞান ফিরলে ট্যানো দেখতে পায় যে সে মেজনার এর সামনা সামনি অবস্থান করছে। ট্যানো তার অস্ত্রের দিকে হাত বাড়ালে নেমেসিসরা ট্যানোর ডান হাতে খাঁমচি মারে। এতে টেকনোসাইট ভাইরাস ট্যানোর হাতের ভিতর ঢুকে পড়ে। ট্যানো আগের সেট করা সি৪ বোমটা কোনো ভাবে একটিভ করে এবং পালিয়ে আসতে সক্ষম হয়।

এরপর টেকনোসাইট ভাইরাসের দ্বারা তার ডান হাত আক্রান্ত হয়। সে রেডিও স্টেশনে আসে এবং কিছু সোল্জারদের সাথে যুদ্ধ করে। যুদ্ধে সে তার ডান হাত হতে বুমেরাং এর ব্যবহার করে। রেডিও স্টেশনে এসে ট্যানোর তার বস এডির সাথে যোগাযোগ করে। এডি ট্যানোকে “স্লিপার এজেন্ট” ইয়ারগো ম্যানসিক এর সাথে মিট আপ করতে বলে। ওর সাথে মিট আপ করতে যেয়ে ট্যানো হেজমাট সোল্জার এবং আক্রান্ত সিভিলিয়ানদের সাথে যুদ্ধ বাধে। যুদ্ধে ট্যানো মেজনার এর আওয়াজ শুনতে পায় “এই রোগ কেউই সারতে পারবে নাহ!! হাহাহাহা!”

ঘটনাচক্রে, ট্যানো ইয়ারগোকে খুঁজে পায়। ইয়ারগো ট্যানো পরবর্তী মিশন আপডেট দেয় এবং আক্রান্ত হাতের জন্য বুস্টার দেয়। কিন্তু ট্যানো বুস্টারটি নেয় না। ট্যানো এর পর জানতে পারে যে মেজনার আক্রান্তকে রিক্যাপচার করতে চায় একটি পুরাতন ট্রান্সমিটারে। যেটি একটি পুরাতন চার্চে রাখা আছে।

এরপর ট্যানো চার্চে যায় এবং সোল্জার ও আক্রান্ত সিভিলিয়াদের সাথে যুদ্ধ করে। ঘটনাচক্রে সে চার্চের ক্যাটাকোম্বসে ঢুকে পড়ে এবং ট্রান্সমিটারটি খুঁজে পায় এবং ধ্বংস করে সি৪ বোমের সাহায্যে।

এডির সাথে আবারো যোগাযোগের পর, ট্যানো জানতে পারে যে মেজনার একটি জাহাজের সাহায্যে ভাইরাসকে ল্যাসরিয়া হতে নিয়ে যাচ্ছে অন্যান্য দেশে ছড়িয়ে দেবার জন্য। যে জাহাজটিকে ধরার জন্য বোট নিয়ে রওনা হলেও খবর পায় যে মেজনার এর লোকরা ইয়ারগো কে ধরে নিয়ে গেছে। এরপর বাধ্য হয়ে ইয়ারগোকে মুক্ত করতে বেরিয়ে পরে ট্যানো। এর পরের কাহিনী গেমটি খেলে জেনেনিও!

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

গেমটির গেম-প্লে একটি ক্রিমুখী বুমেরাংকে ঘিরে সেট করা হয়েছে। যেটি প্রতিবার ছোঁড়ার পর ট্যানোর কাছে এসে পড়ে। এই বুমেরাংটি দুরবর্তী শত্রুকে ঘায়েল করতে, পরিবেশবাদী পাজল সলভ করতে এবং বিভিন্ন আইটেম পিক আপ করতে ব্যবহার করা যাবে।

গেমটির ক্যামেরা ট্যানোর কাঁধের উপর রাখা হয়েছে যা গেমটিতে থার্ড পারসন শুটার উপাদান এনে দেয়। বলতে গেলে রেসিডেন্ট ইভিল ৪ এর ডুপ্লিকেইট এটি!! গেমটিতে কোনো হেড আপ ডিসপ্লে নেই গুলি কাউন্টার ছাড়া।

গেমটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছিল সেই ২০০০ সালের ফেব্রুয়ারী মাস থেকে। তবে কিছু সমস্যার কারণে প্রায় চার বছর গেমটির নির্মাণ কাজ বন্ধ ছিল। পরে ২০০৪ সালে পুরোদমে গেমটির নির্মাণ কাজ শুরু হয়। গেমটির অফিসিয়াল ভাবে প্রথম দেখানো হয় ২০০৫ সালে। যখন এক্সবক্স ৩৬০ এর রিলিজের আশেপাশের দিনে। এরপর গেমটিকে শুধুমাত্র এক্সবক্স ৩৬০ এর জন্য মুক্তি দেওয়া হয় ২০০৮ সালে।

পরে ২০০৯ সালে অন্য নির্মাতা গেমটিতে শুধুমাত্র রাশিয়াতে পিসি ভার্সনের জন্য মুক্তি দেয়। তবে নেটের মাধ্যমে তুমি যেকোনো দেশে গেমটি ডাউনলোড করে খেলতে পারো।

ডাউনলোড:

ftp://serv1.2fun.ge/games/Dark%20Sector/Dark_Sector_2fun.ge.Wanted.zip

ftp://serv1.2fun.ge/games/Dark%20Sector/Dark_Sector_2fun.ge.part1.rar

ftp://serv1.2fun.ge/games/Dark%20Sector/Dark_Sector_2fun.ge.part2.rar

ftp://serv1.2fun.ge/games/Dark%20Sector/Dark_Sector_2fun.ge.part3.rar

গেমস জোন :: Dark Sector (2008)

Series Navigation << গেমস জোন :: Remember Me (রিটিউন/২০১৩)গেমস জোন :: Hitman: Absolution (২০১২/একশন-এডভেঞ্চার/ডুয়াল কোর) >>
টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

19 − 14 =