উইন্ডোজ এক্সপি বুট না হলে করণীয় কিছু পদক্ষেপ ট্রিকস বা টিপস

1
900
উইন্ডোজ এক্সপি বুট না হলে করণীয় কিছু পদক্ষেপ ট্রিকস বা টিপস

তাসনুভা মাহমুদ

কমপিউটার জগৎ-এর নিয়মিত একজন প্রফেশনাল কনটেন্ট রাইটার। ব্লগ লিখতে ভালোবাসি, কবি হলে কবিতা লিখতাম জন্মেছি প্রযুক্তি প্রেমী হয়ে তাই টেকনোলজি ব্লগ লিখাই আমার পেশা এবং নেশা।
উইন্ডোজ এক্সপি বুট না হলে করণীয় কিছু পদক্ষেপ ট্রিকস বা টিপস

নানা কারনে উইন্ডোজ এক্সপি অনেক সময় বুট হয়না বা চালু হয়না এর পেছনে রয়েছে নানান সব কারন সমূহ। ব্যবহারকারীরা চেষ্টা করে দেখতে পারেন কেনো উইন্ডোজ এক্সপি বুট হচ্ছে না এবং সে অনুযায়ী কাজ করে সিস্টেমকে বুট করার কার্যকর পদক্ষেপ নিতে পারেন। আসা করি কাজে লাগবে আপনার।

নষ্ট হওয়া Boot.ini ফিক্স করা

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

যেহেতু উইন্ডোজ এক্সপি অপারেটিং সিস্টেম চালু হয় লোড হবার জন্য। Ntldr প্রোগ্রাম Boot.ini ফাইলকে নির্দেশ করে কোথায় অপারেটিং সিস্টেমের ফাইল অবস্থান করে এবং কোন অপশনকে অ্যানাবল রাখতে হবে যাতে অপারেটিং সিস্টেম লোড হতে থাকবে। সুতরাং কোনো সমস্যা যদি Boot.ini ফাইলে দৃঢ়ভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়ে যায়, তাহলে এটি উইন্ডোজকে যথাযথভাবে বুটিংয়ের অক্ষম করে দেয়।

যদি আপনি মনে করেন বুটিংয়ের ফাইল নষ্ট হবার কারণেই উইন্ডোজ এক্সপি বুট হচ্ছে না, সেক্ষেত্রে সমস্যা ফিক্স করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন বিশেষ ধরনের রিকোভারি কন্সোল ভার্সন Bootcfg টুল। এজন্য আপনাকে অবশ্যই প্রথমে সিস্টেম বুট করতে হবে উইন্ডোজ এক্সপি সিডি দিয়ে এবং রিকোভারি কন্সোলে এক্সেস করতে হবে। উইন্ডোজ এক্সপি সিডি দিয়ে সিস্টেম বুট করতে চাইলে নিচে বর্ণিত পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে।

সিডি-রম ড্রাইভে উইন্ডোজ এক্সপি সিডি ঢুকিয়ে Ctrl+Alt+Delete কী চাপতে হবে কমপিউটারকে রিবুট করার জন্য। সিস্টেম সিডি থেকে বুট হবার পর প্রম্পট অনুসরণ করুন, যা সেটআপ রান করানোর জন্য প্রয়োজনীয় প্রাথমিক ফাইলগুলো লোড করবে। ওয়েলকাম স্ক্রিন পর্দায় আবির্ভূত হলে R চাপুন রিকোভারি কন্সোল চালু করার জন্য।

রিকোভারি কন্সোল মেনু প্রদর্শন করে ফোল্ডার যা ধারণ করে অপারেটিং সিস্টেমের জন্য প্রয়োজনীয় ফাইল এবং যে অপারেটিং সিস্টেমে লগ করতে চান, তা সিলেক্ট করার জন্য প্রম্পট করবে। এক্ষেত্রে মেনু নম্বর চাপলেই কাজ হবে। এরপর অ্যাডমিনিস্ট্রেটর পাসওয়ার্ড দিয়ে এন্টার করলেই রিকোভারি কন্সোল পাবেন।

এবার রিকোভারি কন্সোল কমান্ড প্রম্পট থেকে Bootcfg টুল চালু করতে হবে। Bootcfg কমান্ডটি ব্যবহার হয় বুট কনফিগারেশন ও রিকোভারির জন্য। বেশিরভাগ কমপিউটারে এক্ষেত্রে ব্যবহার হয় Boot.ini ফাইল। Bootcfg চালু করতে চাইলে Bootcfg /Parameter টাইপ করে এন্টার চাপুন। এখানে প্যারামিটার বলতে নিচে বর্ণিত প্যারামিটারগুলোর মধ্যে একটিকে বোঝাচ্ছে :

* Bootcfg /Add>বুট লিস্টে উইন্ডোজ ইনস্টলেশন যুক্ত করা ।
* Bootcfg /scan> উইন্ডোজ ইনস্টলেশনের জন্য সব ডিস্ক স্ক্যান করে এবং ফল প্রদর্শন করে।
* Bootcfg /List>Boot.ini ফাইলে প্রতিটি এন্ট্রির লিস্ট করে।
* Bootcfg /Default>মূল বুট এন্ট্রি হিসেবে সেট করে ডিফল্ট অপারেটিং সিস্টেম।
* Bootcfg /Rebuild>Boot.ini ফাইল সম্পূর্ণরূপে নতুনভাবে তৈরি করে ব্যবহারকারীকে প্রতিটি ধাপ নিশ্চিত করতে হবে।
* Bootcfg /Redirect> সুনির্দিষ্ট কনফিগারেশন সম্বলিত বুট লোডারে রিডিরেকশন অ্যানাবল করে। যেমন, Bootcfg /redirect com1 115200 এবং bootcfg /redirect useBiosSettings।
* Bootcfg /Disableredirect>বুট লোডারে রিডিরেকশনকে ডিজ্যাবল করে।

করাপ্ট হওয়া পার্টিশন বুট সেক্টর ফিক্স করা


পার্টিশন বুট সেক্টর হলো হার্ডডিস্ক পার্টিশনের একটি ছোট অংশ, যা ধারণ করে অপারেটিং সিস্টেমের ফাইল সিস্টেমের তথ্য যেমন- এনটিএফএস ও ফ্যাট৩২। যেহেতু এটি খুব ছোট মেশিন ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রাম, যা অপারেটিং সিস্টেমের জন্য গুরুত্বপূর্ণ সাহায্যকারী হিসেবে লোড হয়। যদি আপনি মনে করেন, পার্টিশন বুট সেক্টরের করাপ্ট বা নষ্ট হওয়ার জন্য উইন্ডোজ এক্সপি কাজ করছে না, তাহলে বিশেষ ধরনের রিকোভারি কন্সোল টুল ব্যবহার করতে পারেন, যা Fixboot হিসেবে পরিচিত। এই টুল সমস্যা ফিক্স করার জন্য ব্যবহার হয়। উইন্ডোজ এক্সপি সিডি সহযোগে সিস্টেম বুট করুন এবং রিকোভারি কন্সোলে এক্সেস করুন।

রিকোভারি কন্সোল কমান্ড প্রম্পট থেকে Fixboot ব্যবহার করতে চাইলে টাইপ করুন Fixboot [drive name].

এখানে ড্রাইভ নেম বলতে সেই ড্রাইভকে বুঝানো হয়েছে, যেখানে আপনি নতুন পার্টিশন বুট সেক্টরকে রাখতে চাচ্ছেন।

অটোমেটিক রিস্টার্ট ডিজ্যাবল করা


যখন উইন্ডোজ মারাত্মক এররের মুখোমুখি হয়, তখন এই এররকে হ্যান্ডেল করার জন্য উইন্ডোজের ডিফল্ট সেটিং সিস্টেমকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে রিবুট করে। যদি এক্সপি বুটের সময় এই এরর সংঘটিত হয়, তাহলে অপারেটিং সিস্টেম রিবুট সাইকলের মধ্যে থেমে যাবে স্বাভাবিক রিস্টার্টের পরিবর্তে। এক্ষেত্রে automatically restarting on system failure অপশনকে ডিজ্যাবল করতে হবে।

উইন্ডোজ এক্সপি বুটআপের সময় একটি মেসেজ দেখা যায় Please select the operating system to start বা বিপ সিগন্যাল শোনা গেলে F8 ফাংশন কী চাপুন উইন্ডোজ অ্যাডভান্সড অপশন মেনু প্রদর্শন করার জন্য। এর পর সিলেক্ট করুন Disable the Automatic Restart On System Failure অপশন এবং এন্টার চাপুন। উইন্ডোজ থেমে যাবে যখনই কোনো এররের মুখোমুখি হবে এবং মেসেজ ডিসপ্লে¬ করবে।

ইন-প্লেস আপগ্রেড কার্যকর করা


যদি এক্সপি সিস্টেম রিপেয়ার করতে ব্যর্থ হন এবং আপনার কাছে সাম্প্রতিক ব্যাকআপ নেই, তাহলে কার্যকর করতে পারেন ইন-প্লেস (in-place) আপগ্রেড। এ কাজ করার জন্য একই ফোল্ডারে অপারেটিং সিস্টেমকে রিইনস্টল করতে হবে। মনে হবে আপনি সিস্টেমকে উইন্ডোজের এক ভার্সন থেকে আরেক ভার্সনে আপগ্রেড করছেন। ইন-প্লেস আপগ্রেড আপনার সিস্টেমের অনেক সমস্যা সমাধান করতে পারবে। যদি না পারে তাহলে উইন্ডোজ বুট সমস্যা থাকবে।

উইন্ডোজ এক্সপি’র ইন-প্লেস আপগ্রেড বেশ সহজ। এই কাজটি করতে চাইলে ড্রাইভে উইন্ডোজ এক্সপি সিডি ঢুকিয়ে সিস্টেম রিস্টার্ট করুন এবং বুট করুন সিডি থেকে। উইন্ডোজ এক্সপি সেটআপ স্ক্রিন আবির্ভূত হবার পর এন্টার চাপুন এক্সপি সেটআপ প্রক্রিয়া চালু করার জন্য। লাইসেন্স এগ্রিমেন্ট পেজ আসার পর F8 কী চাপতে হবে সম্মতি জ্ঞাপন করার জন্য। এরপর সেটআপ হার্ডডিস্কে উইন্ডোজের পূর্ববর্তী ইনস্টলেশন খুঁজে দেখবে। পূর্ববর্তী ইনস্টলেশন খুঁজে পেলে আপনি দ্বিতীয় এক্সপি সেটআপ স্ক্রিন পাবেন, যা চিত্র-১-এ দেখানো হয়েছে।

এই স্ক্রিনে আপনাকে প্রম্পট করা হবে R চাপার জন্য যা সিলেক্ট করা ইনস্টলেশনকে রিপেয়ার করবে। অথবা ESC কী চাপতে হবে উইন্ডোজের নতুন কপি ইনস্টল করার জন্য। এক্ষেত্রে রিপেয়ার অপারেশনের উদ্যোগ ইন-প্লেস আপগ্রেডের সমার্থক। সুতরাং আপনাকে R চাপতে হবে। এ কাজটি করলে Setup সিস্টেমের ডিস্ক ড্রাইভ পরীক্ষা করবে। এরপর শুরু করবে ইন-প্লেস আপগ্রেডের কাজ।

লক্ষণীয়, ইন-প্লেস আপগ্রেড বা রিপেয়ার ইনস্টলেশন কার্যকর করার পর আপনাকে অবশ্যই উইন্ডোজের সব আপডেট রিইনস্টল করতে হবে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

11 − two =