কম্পিউটার স্লো রান করার জন্য দায়ী কে? পর্ব ৪ (মাল্টিমিডিয়া)

1
367

শুভ সকাল সবাইকে। আজকে আরেকটি পর্ব নিয়ে এসেছি আপনাদের মাঝে। আমরা জানি কম্পিউটার স্লো হবার পেছনে বেশ কিছু কারন রয়েছে। আপনার কমপিউটারে ব্যবহার হওয়া কোনো কোনো সফটওয়্যার এ ধরনের সমস্যার কারণ হতে পারে, যা আমরা অনেকেই জানি না বা বুঝি না৷ কারণ, কোনো কোনো প্রোগ্রাম ব্যাকগ্রাউন্ডে রান হয়, যা বিপুল পরিমাণে রিসোর্স অধিগ্রহণ করে৷ এমনকি এসব প্রোগ্রাম যখন নিষ্ক্রিয় থাকে, তখনও অপ্রয়োজনীয়ভাবে ৠাম অধিগ্রহণ করে থাকে৷প্রথম পর্ব এবং দ্বিতীয় পর্বতৃতীয় পর্ব দেখুন এখনে আজকের পর্বে আলোচনা করব ইন্টারনেট নিয়ে।

Slow-computer-speed কম্পিউটার স্লো রান করার জন্য দায়ী কে? পর্ব ৪ (মাল্টিমিডিয়া)মাল্টিমিডিয়া


প্লেয়ার প্রদর্শন করে ঝাঁকুনিপূর্ণ ডিসপ্লে : মুভি প্লে করা, মিউজিক শোনা এবং মিডিয়া ফাইল অর্গানাইজ করা ইত্যাদি কাজ পিসির ওপর ব্যাপক লোড ফেলে৷ এছাড়াও প্রস্তুতকারকরা তাদের মাল্টিমিডিয়া পণ্যকে সুসজ্জিত করে বিপুলসংখ্যক ফাংশন, আকর্ষণীয় ইন্টারফেস, স্বয়ংক্রিয় ওয়েব কানেকশন এবং এনিমেশন দিয়ে৷ যারা মাল্টিপল প্রোগ্রাম ব্যবহার করে মুভি ও মিউজিক ফাইলগুলোকে ক্যাটাগরাইজ ও মূল্যায়ন করার জন্য৷ ফলে পিসির পারফরমেন্স স্টার্ট হওয়ার পর থেকেই কমতে থাকবে৷ এর ভালো দৃষ্টান্ত হলো পিনাকল মেডিসেন্টার৷

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

মিডিয়া সেন্টার তাত্ক্ষণিকভাবে ইনস্টল করে এসকিউএল সার্ভর মাল্টিমিডিয়া কানেকশন ম্যানেজ করার জন্য৷ যদি আপনি সার্ভারকে পুরোপুরিভাবে এড়িয়ে যান, তাহলেও এটি প্রতিবার সিস্টেম স্টার্ট করার সময় ৫০ মে. বা.-এর বেশি মেমরি ব্যবহার করে৷ এমনকি প্রকৃত প্রোগ্রাম ওপেন না করেই৷ যদি এতে সোয়াপ ফাইল যুক্ত থাকে তাহলে এটি ১০০ মে. বা.-এ উন্নীত হয়৷ যখন আপনি টেলিভিশন দেখতে চান, তখনই প্রোগ্রাম লোড হওয়া উচিত৷ কিন্তু এক্ষেত্রে স্টার্ট হতে ১৫ সেকেন্ড সময় নেয়৷ মেডিসেন্টার ব্যাপকভাবে সিপিইউ ক্যাপাসিটি অধিগ্রহণ করে৷ ফলে অন্য কোনো প্রোগ্রাম আর রান হতে পারে না সেই সময়৷ এ অবস্থার সামান্য উন্নতি হয়েছে৷ ফলে টিভি প্রোগ্রাম রেকর্ডিংয়ের সময় সিপিইউর ব্যবহার কদাচিত্ ৬০% অতিক্রম করে৷

উইন্ডোজে আইটিউনের পারফরমেন্সের ক্ষেত্রে দুর্নাম রয়েছে৷ যদিও এর কোনো যৌক্তিকতা নেই৷ আইটিউনে মিউজিক শোনার জন্য দরকার হয় ১২ শতাংশ সিপিইউর রিসোর্স৷ পক্ষান্তরে সিপিইউর ব্যবহার এনকোডিংয়ের সময় ৯০ শতাংশ পর্যন্ত লক্ষ করা যায়৷ কারণ, এই প্রোগ্রামটি সেগুলোকে বাইডিফল্ট AAC ফরমেটে রূপান্তর করে৷ তবে প্রোগ্রাম গোগ্রাসে প্রচুর ৠাম অধিগ্রহণ করে এমনকি যখন এটি অপারেট করে না৷

মিডিয়া প্লেয়ার ক্ল্যাসিক বেশ রিসোর্স সেভ করতে পারে অডিও বা ভিডি ফাইল প্লে করার সময়৷ এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ কেননা, এইচডি ফিল্ম পুরো সিপিইউ ক্যাপাসিটি গ্রহণ করে৷ তবে এর ব্যতিক্রম দেখা যায় হালকা ধরনের প্লেয়ারের ক্ষেত্রে৷ আপনি কোনো ঝাঁকুনি ছাড়াই মুভি উপভোগ করতে পারবেন৷ যখন ডিভিডি প্লে করা হয় তখন মিডিয়া প্লেয়ার ক্ল্যাসিক নিরোর শো টাইমের চেয়ে ১১ শতাংশ কম সিপিইউ রিসোর্স ব্যবহার করে৷ এই ফ্রি অ্যাপ্লিকেশনটি কম রিসোর্স ব্যবহার করে৷ এমনকি কুইকটাইম ও রিয়েল প্লেয়ারের চেয়ে কম৷

রিয়েল প্লেয়ারও সিস্টেমকে ধীর করে৷ রিয়েল প্লেয়ারের ইন্টারফেসটি সম্পূর্ণ সেট হতে ২০ সেকেন্ড. সময় নেয়৷ এর কারণ প্লেয়ার প্রতিবার স্টার্টের সময় স্বয়ংক্রিয়ভাবে ইন্টারনেটে যুক্ত হতে চেষ্টা করে৷আসা করি ভালো লেগেছে মন্তব্য করতে ভুলে যাবেন না। ধন্যবাদ।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

মন্তব্য দিন আপনার