প্রযুক্তির নতুন আবিস্কার ‘বাতাসেই চলবে গাড়ি’

2
557
প্রযুক্তির নতুন আবিস্কার 'বাতাসেই চলবে গাড়ি'

আজব টেক

আজব টেকনোলজির সকস্ত খবর নিয়ে আমি আছি আপনাদের পাশে টিউনারপেজের সাথে। ভুল হলে ক্ষমা করে দিবেন। ধন্যবাদ সবাইকে আমার প্রোফাইল এ আসার জন্য।
প্রযুক্তির নতুন আবিস্কার 'বাতাসেই চলবে গাড়ি'

সালাম সবাইকে আসা করি ভালো আছেন। আজব টেক নিয়ে এসেছে আজকে প্রযুক্তির নতুন একটি খবর নিয়ে। আপনি যদি ভবিষ্যতে গাড়ির কথা ভাবেন, তাহলে পিটার ডিয়ারম্যানের ভক্সহল নোভার কথা চিন্তা করতে পারেন। হাতে বানানো এই যানটি চালাতে গ্যাসোলিন প্রয়োজন নেই, দরকার নেই ব্যাটারিও। গলফ কার্টের মতো শব্দ করা ইঞ্জিনটি চলবে শুধু তরল বাতাস ব্যবহারের মাধ্যমে। এটাই সম্ভবত পৃথিবীর সবচেয়ে পরিবেশ বান্ধব গাড়ি- এমনটাই জানিয়েছে ইয়াহু।

ডিয়ারম্যানের গাড়িটি অনেকটা বাষ্পীয় ইঞ্জিনের মতো কাজ করে। যদিও এতে বাষ্পের বদলে ব্যবহার হবে তরল বাতাস। মাইনাস ৩০০ ডিগি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় বাতাস তরলে পরিণত হয়। এই তরল বাতাসটিকে ইঞ্জিনে প্রবাহিত হওয়ার আগে ধীরে ধীরে গরম করা হয় এবং এক পর্যায়ে ফুটতে শুরু করে। তারপরই এটি গ্যাসে পরিণত হয় এবং পিস্টনে পাম্পিং শুরু করে।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

car প্রযুক্তির নতুন আবিস্কার 'বাতাসেই চলবে গাড়ি'

‘গাড়িটি কোন দূষণ করবে না কারণ এটাতে ব্যবহার হবে শুধু বাতাস। গাড়িটি চালাতে আমরা কোন কিছু পোড়াচ্ছি না। আমরা শুধু পরিবেশের তাপ এবং তরল বাতাস ব্যবহার করছি ’ লন্ডনে গাড়িটি পরীক্ষামূলকভাবে চালানোর সময় বর্ণনা করেন ৬১ বছর বয়স্ক এই আবিষ্কারক। তরল বাতাস পছন্দের কারণ হিসেবে ডিয়ারম্যান বিশ্বাস করেন, তার গাড়িটিই হবে গ্রহের সবচেয়ে টেকসই গাড়ি। যার ইঞ্জিনটি খুবই হালকা। ব্যাটারি চালিত গাড়ি রিচার্জ হতে ঘণ্টাখানেক সময় নেয়। তবে বাতাসে চালিত গাড়িটি রিচার্র্জ হতে  তেলচালিত গাড়ির মতোই সময় দরকার হবে।

 

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

2 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

three − three =