যে গাড়িগুলো কাঁপিয়ে দিবে ভবিষ্যতের পৃথিবী

21
602

চলুন এক পলকে বিশ্বের সবচেয়ে বিখ্যাত কনসেপ্ট কারের ডিজাইন দেখি…

১। গাড়িটির নাম দেওয়া হয়েছে helix.গাড়িটি সম্পর্কে সবচেয়ে মজার ব্যাপার হল এটি দুইরকম এনার্জি ইউজ করতে পারবে।এটি যেমন ইলেকট্রিক এনার্জি ইউজ করবে তেমনি চলতি অবস্থায় বাতাস থেকেও এনার্জি কালেক্ট করতে পারবে।

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

২। গাড়িটি মুলত একটা বিশাল পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে প্রচলিত গাড়ির সংজ্ঞায়। এটিকে শুধু গাড়ি বললে ভুল হবে।এটি আসলে গাড়ি কাম স্পীড বোট বললেই বেশি মানাবে।কারন এটি জলে স্থলে দু জায়গাতেই এর অবাধ বিচরণ হবে।

৩। দু চাকার এই গাড়িটি ছবিতে দেখেই বোঝা যায় এর ক্ষমতা সমন্ধে।অস্বাভাবিক গতির এই গাড়িটি পৃথিবীর বাসিন্দাদের জন্য একটি চমক হবে নিঃসন্দেহে।

৪। অসাধারন ডিজাইন আর একেবারেই ইউনিক।আরেকটি বিশেষত্ব হল খুবই শক্তিশালী বডি সাথে শক্তিশালী ইঞ্জিনের কম্বিনেসান।

৫। এই গাড়িটির ছাদ বা রুফ আসলে নরমাল রুফ নয়।এটি আসলে একটি সোলার প্যানেল।ফুয়েলের সাথে সৌরশক্তির ব্যাবহার গাড়িটিকে গ্রহণযোগ্যতা বাড়িয়ে দিবে অনেকখানি।

৬। বর্তমানে পৃথিবীর সবচেয়ে দামি গাড়ি বুগাত্তি ভেরনের ক্লাসিক এডিশন থেকে এর ধারনা নেয়া হয়েছে সাথে যোগ হচ্ছে অনেক নতুন সুযোগসুবিধা।

৭। এই গাড়িটির ডিজাইনারের লক্ষ্য গাড়িটি জাপানের হাই স্পীড বুলেট ট্রেইনের সমান গতির হবে।

৮। অটোম্যাটেড কন্ট্রোল সিস্টেমের পারফেক্ট উদাহরন হতে যাচ্ছে এটি। আপনি নিজের ইচ্ছেমত ঘুম বা কফি খেয়ে নিতে পারবেন গাড়ির ভেতরেই।গাড়ি নিজেই নিজেকে চালাবে,আপনার ড্রাইভিং নিয়ে মাথা না ঘামালেও চলবে।

৯। পুরো গাড়িটি কার্বন ফাইবার স্কিন দিয়ে তৈরি।

 

মূল আর্টিকেল

সূত্রঃ সুখবর২৪.কম

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

21 মন্তব্য

  1. ভাই জান এই গুলা তো মাথা নষ্ট গাড়ি!! কোনটা রাইখ্যা কোনটা লোমূ বুইজ্জা উঠত হারি ন ।

  2. কমেন্টের জন্য ধন্যবাদ সবাইকে। সবার কাছে একটি মতামত জানতে চাই। টিউনার পেইজ কি কোন প্রযুক্তি ব্লগ? এখানে কি প্রযুক্তি বিষয়ক কোন নিউজ শেয়ার করা যায়? যদি যায় তাহলে ধরুন, গুগল আজকে একটি নতুন পন্য বাজারে ছাড়ল, অনেকেই সেটা জানেনা। কেউ একজন এসে খবরটি শেয়ার করল, সবার ভাল লাগল খবরটি। তখন কেউ কেউ জানতে চাইল খবরটির রেফারেন্স কি? সূত্র কি? কোথায় পেয়েছেন? তাই শেয়ার করার সময় খবরের সাথে তার সূত্র উল্লেখ করে দেয়া হল। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সূত্র উল্লেখ ব্যাতীত কোন খবর শেয়ার করা কপিরাইট আইন লঙ্ঘনের আওতায় পড়ে। এমতাবস্তায় আপনাদের মন্তব্য কি? এভাবে খবর শেয়ার করা কি স্প্যামিং কিংবা অ্যাডভার্টাইজের পর্যায়ে পড়ে? হ্যা, সুখবর সাইট টি আমার, খবরগুলো আমি অনেক বাংলা ইংরেজী গনমাধ্যম থেকে যোগাড় করে প্রথমে আমার সাইটে প্রকাশ করি, তারপর প্রযুক্তি বিষয়ে উতসাহী মানুষদের কাছে ভাল লাগা খবর গুলো শেয়ার করি। এখন খবর তো কেউ নিজে লেখে না, খবর হল একটি ঘটনা যা ঘটে যায়, এবং সে বিষয়ে কেউ একজন বাংলা বা ইংরেজী তে লেখে তারপর অন্যরা সেটা শেয়ার করে। এ ব্যাপারটি অ্যাডভার্টাইজের কাতারে পড়ে কিনা সে ব্যাপারে আপনাদের মন্তব্য জানতা চাই। আর যদি খবর শেয়ার করা আপনাদের বিরক্তির কারন হয়ে থাকে তবে জানাবেন, আমি বিরত থাকব। সবাইকে আবারো ধন্যবাদ।

  3. আমার তো অলরেডি এর থেকে তিনটা আছে, বাকীগুলা কি কিনে ফেলবো নাকি ??

  4. খুব সুন্দর, কিন্তু ভাই নিজে থেকে কিছু লেখার চেষ্টা করুন।

      • সহমত ! কারণ আপমার নিজের লেখা বলতে তো কিছু দেখছিনা! আপনার সব লেখা সুখবর২৪.কম থেকে নেওয়া। যদি সুখবর২৪.কম আপনার নিজের হয় তাহলে আপনি আর এই লেখাটি লিখবেন না। অনেক অ্যাড দিছেন আর না। ধন্যবাদ।

মন্তব্য দিন আপনার