ভিনগ্রহের প্রাণী বা এলিয়েন (Aliens) এক রহস্যময় জগত, পর্বঃ- ১

5
895

আশা করছি সবাই ভাল আছেন বেশ। এলিয়েন নিয়ে কিছু মানুষের খুব আগ্রহ আছে আমাদের পৃথিবীর। কেউ ভাবেন ইহা কেবল ই মাত্র বিভ্রম আবার কেউবা ভাবেন ইহার অস্তিত্য আমাদের মতনই অস্বীকার করা যাবে না। তাই এলিয়েন দেন বেশ কিছু বিস্তারিত আলচনা করব আপনাদের সাথে শুরুতে বলে নিচ্ছি আমি wikipedea থেকে সমস্ত তথ্য নিয়েছি। ধন্যবাদ জানাই উইকি কে।

ভিনগ্রহের প্রাণী বা এলিয়েন (Aliens) বলতে পৃথিবী-ভিন্ন মহাকাশের অন্য কোনো স্থানের প্রাণকে বোঝায়। অনেকেই ভিনগ্রহের প্রাণী বলতে মানুষের আকৃতির প্রাণী বুঝে থাকলেও বস্তুত যেকোনো ধরণের প্রাণীই এতালিকায় ধর্তব্য হতে পারে- এধারণায় পৃথিবী-ভিন্ন অন্য জগতের একটা সূক্ষ্ম ব্যাকটেরিয়াও ভিনগ্রহের প্রাণী হতে পারে। 

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

ভিনগ্রহের প্রাণী বা এলিয়েন (Aliens) এক রহস্যময় জগত, পর্বঃ- ১

শব্দগত ভাবে ব্যাখ্যা

ইংরেজি aliens শব্দটি অনাকাঙ্ক্ষিত বা অনাহুত কিংবা অপরিচিত আগন্তুককে বোঝাতে ব্যবহৃত হয়। ভিনগ্রহের প্রাণীদের সম্পর্কে পৃথিবীর মানুষের অজ্ঞতাই মূলত এই অপরিচিত প্রাণীদের জন্য aliens নামটি বরাদ্দ করেছে। বাংলায় পৃথিবী-ভিন্ন অন্যগ্রহের প্রাণকে একত্রে ভিনগ্রহের প্রাণী বলা হয়েছে। তবে গ্রহ ছাড়াও অন্যান্য ক্ষেত্রের প্রাণও এর আওতায় অন্তর্ভুক্ত।

এলিয়েন ভাষা

এটি বলতে সেই সব ভাষাকে বুঝানো হয় যা কোন বহির্জাগতিক প্রাণী তার কথ্য ভাষা রূপে ব্যবহার করে থাকে। এই ধরণের কাল্পনিক ভাষার অধ্যয়নকারীরা একে জিনোলিংগোইস্টিকস (xenolinguistics) অথবা এক্সওলিংগোইস্টিকস (exolinguistics) নামকরণ করেছেন এবং বিজ্ঞান কল্পকাহিনীর ব্যবহারের মধ্য দিয়ে এটি এর রাস্তা খুঁজে পেয়েছে।

১৯৮৬ সালে জিনোলিংগোইস্টিকস নামটি প্রথম ব্যবহার করেছিল শিলা ফিঞ্চ তার একটি বিজ্ঞান কল্পকাহিনী ট্রায়াড উপন্যাসে।

প্রজন্মের বিজ্ঞান কল্পকাহিনীর লেখকরা এলিয়েন ভাষা নিয়ে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছেন। তাদের কিছু তাদের কল্পকাহিনীর চরিত্রের জন্য কৃত্রিম ভাষা তৈরি করেছে, আবার অন্যান্যারা এই সমস্যাটি সমাধান করেছে এক ধরণের বিশেষ সার্বজনীন অনুবাদকের সাহায্যে অথবা অন্যান্য কল্পনাপ্রসূত প্রযুক্তি মাধ্যমে। 

জীবনযাত্রা

জীবনযাত্রায় অন্যতম একটি উপাদান পোষাক। বিজ্ঞানের কাছে ভিনগ্রহের প্রাণীদের পোষাক-পরিচ্ছদের ব্যাপারে কোনো তথ্য নেই। যারা, ভিনগ্রহের প্রাণী দেখেছেন বলে দাবি করেন, তাদের বক্তব্য হলো ভিনগ্রহের এসব বুদ্ধিমান প্রাণীরা পোষাক হিসেবে কিছুই পরে না। এব্যাপারে মানুষের তত্ত্বটি হলো যেহেতু তারা অতিবুদ্ধিমান, তাই পোষাক-পরিচ্ছদের বাহুল্য ত্যাগ করতে শিখে নিয়েছে। তবে তারা মাথায় হুড পরিধান করে থাকে বলে অনেকের দাবি। কারো দাবি, তারা লম্বা লম্বা জোব্বা পরে থাকে। 

ভিনগ্রহের প্রাণী বা এলিয়েন (Aliens) এক রহস্যময় জগত, পর্বঃ- ১

ভিনগ্রহের প্রাণীরা নাকি স্কুলেও পড়ে, তবে শুধুমাত্র আকৃতিতে লম্বারা স্কুলে পড়ার সুযোগ পায়। যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের কোনো এক বনের ভিতরে একদল ভিনগ্রহের প্রাণীকে তাদের শিক্ষক পড়াচ্ছিলেন -এই দৃশ্য দেখে বিখ্যাত লেখক হোয়াইটি স্ট্রেইকার তাঁর সিক্রেট স্কুল: প্রিপারেশন ফর কন্ট্রাক্ট বইতে এদের কথা লিখেছিলেন। এ নিয়ে যথেষ্ট বিতর্কও হয়েছিলো। 

ধন্যবাদ সবাই কে। ভালো থাকবেন ও নিয়মিত টিউনারপেইজ এর সাথেই থাকবেন।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

5 মন্তব্য

    • ভাই এটা তো শুধু পর্ব ১ !
      সেজন্য বেশি বড় লেখিনি!
      আপনাকেও মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ!…

মন্তব্য দিন আপনার