ইন্টারনেটের নিরাপত্তা ও অটোরান বন্ধ করে কিভাবে রুখে দিবেন কমপিউটারের ভাইরাস…

1
331

দিন দিন বাড়ছে ইন্টারনেটের ব্যবহার। পাশাপাশি ইন্টারনেটের নিরাপত্তা নিয়ে ঝুঁকিও বাড়ছে। হ্যাকারদের অব্যাহত আক্রমণে কেবল ব্যক্তিই নয়, বড় বড় প্রতিষ্ঠানও সাইবার আক্রমণের শিকার হচ্ছে। পাশাপাশি নানা ধরনের ভাইরাস, ম্যালওয়্যার, স্পাইওয়্যারসহ অন্যান্য ক্ষতিকর উপাদান দিয়েও প্রতিনিয়তই ঝামেলার মুখোমুখি হতে পারেন যে কেউ। তবে পর্যাপ্ত সতকর্তা গ্রহণ করতে পারলে এসব ঝামেলা থেকে রেহাই পাওয়া যেতে পারে। অনলাইনে নিরাপদে থাকার কিছু টিপস এখানে তুলে ধরা হলো।

ইন্টারনেটের নিরাপত্তা

**নিজের ব্যক্তিগত ইমেইল ঠিকানাটি সবাইকে দেবেন না। কেবল বন্ধু এবং বিশ্বস্ত ব্যক্তিদের সঙ্গেই ইমেইল ঠিকানাটি শেয়ার করুন। যত্রতত্র ইমেইল ঠিকানা শেয়ার করলে আর কিছু হোক না হোক, প্রচুর পরিমাণে স্প্যাম মেইলে ভরে যাবে আপনার ইমেইল।
**অনলাইনে অপরিচিতদের থেকে দূরে থাকুন। অনলাইনে বিভিন্ন সাইট থেকে বিভিন্ন আকর্ষণীয় অফারে ভরে যেতে পারে আপনার ইমেইলের ইনবক্স অথবা আপনার ব্লগের দেয়াল। ফেসবুকেও অপরিচিত অনেকের কাছ থেকেই আসতে পারে বন্ধুত্বের অনুরোধ। এসব অফারে বা অনুরোধে সাড়া দেবেন না। কারণ এসবের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে কোনো না কোনো হ্যাকার। ফেসবুকে বন্ধুত্বের অনুরোধে সাড়া দিতে কেবল বিশ্বস্ত ও পরিচিত অথবা বন্ধুদের পরিচিতদেরই বেছে নিন।
**পাসওয়ার্ড নিয়ে সতর্ক থাকুন। নিজের পাসওয়ার্ডটি কারো সঙ্গেই শেয়ার করবেন না। এমনকি নিজের ব্রাউজারেও পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ না করাই ভালো। পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত রাখার জন্য ভালো এবং বিশ্বস্ত কোনো পাসওয়ার্ড ম্যানেজমেন্ট টুলস ব্যবহার করুন। আর শেয়ার করার বিষয়টি একেবারেই ভুলে যান।
**পাসওয়ার্ড নিয়ে সতর্ক থাকুন। নিজের পাসওয়ার্ডটি কারো সঙ্গেই শেয়ার করবেন না। এমনকি নিজের ব্রাউজারেও পাসওয়ার্ড সংরক্ষণ না করাই ভালো। পাসওয়ার্ড সুরক্ষিত রাখার জন্য ভালো এবং বিশ্বস্ত কোনো পাসওয়ার্ড ম্যানেজমেন্ট টুলস ব্যবহার করুন। আর শেয়ার করার বিষয়টি একেবারেই ভুলে যান।
**আর্থিক লেনদেনে সতর্ক থাকুন। এখন ইকমার্সের এই যুগে এসে অনলাইনে কেনাকাটা একটি নৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। আর এই সুযোগে অনেক ক্ষেত্রেই আপনার ক্রেডিট কার্ড বা সংশ্লিষ্ট তথ্য চুরি হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই বিশ্বস্ত সাইট ছাড়া আপনার আর্থিক লেনদেনের কোনো তথ্য দেবেন না।

কমপিউটারের ভাইরাস.

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

কম্পিউটারে ভাইরাস ছড়ানোর জন্য দায়ী পেনড্রাইভ। ডাটা স্থানান্তরের জন্য যখন কম্পিউটারে পেনড্রাইভ লাগানো হয় তখন অনেক সময় পেনড্রাইভ অটো ওপেন হয়ে যায় এবং পেনড্রাইভে ভাইরাস থাকলে তা কম্পিউটারে ছড়িয়ে পড়ে। পেনড্রাইভের অটোরান বন্ধ করে দিলে এবং পেনড্রাইভ না খুলে টাস্কবারের নেভিগেটর থেকে বা ফোল্ডার অপশনের মাধ্যমে পেনড্রাইভ ব্যবহার করলে, কম্পিউটারে ভাইরাস তুলনামূলকভাবে কম ছড়াবে। পেনড্রাইভের অটোরান বন্ধ করার জন্য প্রথমে Start মেনু থেকে Run-এ ক্লিক করে gpedit.msc লিখে ok-তে ক্লিক করুন। যে উইন্ডোটি আসবে সেটিতে User configuration-এর বাম পাশের (+) এ ক্লিক করে Administrative Templates-এর বাম পাশের (+) এ ক্লিক করুন। তারপর System-এ ক্লিক করলে দেখবেন ডান পাশের উইন্ডোতে Turn off Autoplay নামে একটি লেখা এসেছে। সেটিতে ডবল ক্লিক করে Enable নির্বাচন করে Turn off Autoplay on অংশে All drives নির্বাচন করে ok করে বেরিয়ে আসুন।

আমার ব্লগ দেখতে পারেন

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

fourteen − 5 =