জানার শেষ নেই। তাই অজানা কিছু তথ্য আপনার জন্য। (পর্ব-৩)

14
1696
জানার শেষ নেই। তাই অজানা কিছু তথ্য আপনার জন্য। (পর্ব-৩)

Zahid

***২ বছর ধরে আমার প্রেমিকার অভিযুগ আমি নাকি তাকে কম সময় দেই আর কম ভালোবসি. তাকে কি করে বুঝাই যে আমার ভালবাসার সচ্ছ একটা অংশ টিউনার পেজের জন্য.
***আমার বন্ধুরা আমাকে সবসময় বলত যে তুই যাকে ভালোবাসবি তার যেন অবস্যই একটা সন্দুর বোন থাকে মানে তুর যেন একটা শালী থাকে. যাতে আমরা মজা করতে পারি। তাই টিউনার পেজের মডারেটরদের কাছে জানতে চাচ্ছি যে আমার কি কোনো শালী আছে মানে টিউনার পেজের কি কোনো বোন আছে?
জানার শেষ নেই। তাই অজানা কিছু তথ্য আপনার জন্য। (পর্ব-৩)

আস-সালামু-আলাইকুম।

আশা করি মহান আল্লাহ্‌র রহমতে সবাই ভালো আছেন। আজ আপনাদের নতুন কিছু তথ্য জানাতে আসলাম। আজ দিলাম এর ৩য় পর্ব। হয়ত এর অনেক তথ্য আপনি জানেন, হয়ত অনেক তথ্য জানেন না। জানার শেষ নেই। চলুন জেনে নেই নতুন আরও কিছু তথ্য।

ইন্টারনেট সম্পর্কে কিছু জানা-অজানা তথ্যঃ

Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

১. ইন্টারনেট প্রতিদিন প্রায় ২৪৭ বিলিয়ন মেইল আদান-প্রদান করা হয়!! এর মাঝে ৮১% অর্থাৎ ২০০ বিলিয়নই হলো “স্প্যাম(Spam)”!!

২. ৫৯% আমেরিকানই ইন্টারনেট ব্যাবহার করার সময় টিভি দেখে থাকেন!!

৩. আমেরিকায় টিনেজাররা সপ্তাহে ৩১ ঘণ্টা সময় ইন্টারনেট ব্যাবহার করে থাকে!!

৪. ইন্টারনেট ব্যাবহারকারীদের মধ্যে ৪৯% পুরুষ এবং ৫১% নারী!!

৫. টুইটারে মোট ১৫০ মিলিয়ন রেজিস্টার্ড ইউজার রয়েছে!!

৬. ফেসবুকে একটিভ ইউজারের সংখ্যা বর্তমানে ৪০০ মিলিয়ন!!

7. সবচেয়ে মারাত্মক তথ্যটি হচ্ছে  বার্মাতে অনুমতি ছাড়া ইন্টারনেট ব্যাবহার করা নিষিদ্ধ!! আপনি যদি অনুমতি ছাড়া ইন্টারনেট ব্যাবহার করেন তবে আপনাকে জেল খাটতে হবে!!

সিংহ সম্পর্কে কয়েকটি জানা-অজানা মজার তথ্যঃ

জানার শেষ নেই। তাই অজানা কিছু তথ্য আপনার জন্য। (পর্ব-৩)

► সিংহ যখন হাঁটে তখন তাদের পায়ের গোড়ালি মাটি স্পর্শ করে না।।

► সিংহ সর্বোচ্চ ৩৬ মাইল/ঘণ্টা (৫৮ কিলোমিটার/ঘণ্টা) বেগে দৌড়তে পারে।। তবে তা খুব বেশি সময়ের জন্য নয়।।

► একসময় আফ্রিকা, দক্ষিন ইউরোপ, এশিয়াতে প্রচুর পরিমানে সিংহ দেখা যেতো।। তবে বর্তমানে তাদের মূল আবাস্থল হলো আফ্রিকা।। তবে কিছু কিছু এখনো ভারতের “গিরবনে” দেখা যায়।।

► একটি পূর্ণবয়স্ক সিংহের প্রতিদিন ১৫ পাউন্ড (৭ কেজি) মাংসের প্রয়োজন হয়।। তবে একটি সিংহ একবারে ৬০ পাউন্ড (২৭ কেজি) পর্যন্ত মাংস খেতে পারে।।

► একটি পূর্ণবয়স্ক সিংহের ওজন হতে পারে ৩৩০ থেকে ৫৫০ পাউন্ড পর্যন্ত (১৫০ থেকে ২৫০ কেজি)।।

গরু সম্পর্কে জানা-অজানা ১০টি মজাদার তথ্যঃ

জানার শেষ নেই। তাই অজানা কিছু তথ্য আপনার জন্য। (পর্ব-৩)

১. ১৮৫০ সালের আগে, প্রায় প্রতিটি পরিবারই গরু পালন করতো!!

২. পৃথিবীর কোন দেশটিতে সবচেয়ে বেশি গরু আছে জানেন?? ইন্ডিয়াতে(ভারত)!!

৩. একটা গরুকে একা একা সিঁড়ি দিয়ে উপরে উঠতে পারে, কিন্তু নামতে পারে না।।

৪. একটা গাভী তার জীবনদশায় মোটামুটি ২০০০০০-৩৫০০০০ গ্লাস দুধ উৎপাদন করতে পারে।।(অবশ্যই সেটা নির্ভর করে ভালো/খারাপ জাতের গরুর উপর)

৫. একটা গরু একদিনে প্রায় ১৪ বার উঠাবসা করে!!

৬. একটা গরু দিনের ৬-৭ ঘণ্টা খাবার খেয়ে এবং প্রায় ৮ ঘণ্টা সেই খাবার যাবর কেটে কাটায়!!

৭. একটা গরু দিনে প্রায় ৩৫ গ্যালন পানি খেতে পারে!!

৮. গরুর গন্ধশক্তি প্রবল।। এটি প্রায় ৬ মাইল দূর থেকে কোনো কিছুর গন্ধ পেতে পারে!!

৯. একটা গাভীর একদিনে সবচেয়ে বেশি দুধ দেয়ার রেকর্ডটি(!!) রয়েছে Urbe Blanca নামক একটি গাভীর দখলে!! এটি একদিনে ২৪১ পাউন্ড দুধ দিয়ে রেকর্ডটি নিজের দখলে নেয়!!

১০. এযাবতকালে সবচেয়ে বেশি দিন বাঁচা গরুটির নাম হলো Big Bertha, যে তার ৪৯তম জন্মদিনের ৩ মাস আগে মৃত্যুবরণ করে।।

আমাজন বনের  রাজা “অ্যানাকোন্ডা” সম্পর্কে কিছু সত্য এবং মজার তথ্যঃ

জানার শেষ নেই। তাই অজানা কিছু তথ্য আপনার জন্য। (পর্ব-৩)

১. অ্যানাকোন্ডার মূলত চার প্রকারের প্রজাতি দেখতে পাওয়া যায়।। ডার্ক স্পটেড অ্যানাকোন্ডা, হলুদ অ্যানাকোন্ডা, সবুজ অ্যানাকোন্ডা, বলিভিয়ান অ্যানাকোন্ডা।।

২. সবুজ অ্যানাকোন্ডা (অ্যানাকোন্ডা সাপের প্রধান প্রজাতি) হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় সাপ।। এটি সর্বোচ্চ ৩০ ফুট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে এবং এর ওজন হতে পারে ২২৭ কেজি পর্যন্ত!!

৩. অ্যানাকোন্ডার প্রধান খাদ্য তালিকায় রয়েছে ইঁদুর, ব্যাঙ, কচ্ছপ, শুকর, হরিণ, ইত্যাদি।।

৪. অ্যানাকোন্ডার শিকার ধরার পদ্ধতি অন্যান্য সাপের মত নয়।। এটি তার শিকারকে ছোবল দেয় না(যদিও ছোবল দেয়ার জন্য যথেষ্ট বড় বড় দাঁত রয়েছে)!! বরঞ্চ, এটি তার শিকারকে পেঁচিয়ে ধরে শ্বাসরুদ্ধ করে মেরে ফেলে।। এরপর আস্তে আস্তে পুরো শরীরটাই গিলে নেয়!!

৫. একটি পূর্ণবয়স্ক ভেড়া/ছাগল/শুকর খাওয়ার পর একটি অ্যানাকোন্ডা প্রায় এক মাস না খেয়ে থাকতে পারে।। এর মাঝে এর খাবারের প্রয়োজন পড়ে না!!

৬. যদি শিকার খুঁজে না পাওয়া যায় তবে একটি অ্যানাকোন্ডা বড় একটি শিকারের পর অন্যকিছু না খেয়েও প্রায় ১ বছর কাটিয়ে দিতে পারে!!

৭. অ্যানাকোন্ডা পানির নিচে একটানা ১০ মিনিট পর্যন্ত দম না নিয়ে থাকতে পারে!! এরপর অক্সিজেনের প্রয়োজনে একে পানির উপরিভাগে চলে আসতে হয়!!

৮. মেয়ে অ্যানাকোন্ডা পুরুষ অ্যানাকোন্ডার চেয়ে সাইজে বড় হয়!!

৯. অন্যান্য সাপের সাথে অ্যানাকোন্ডার আরো একটি জায়গায় অমিল রয়েছে।। অন্যান্য সাপ যেখানে ডিম পাড়ে(পাইথন, কোবরা, ইত্যাদি) সেখানে অ্যানাকোন্ডা সরাসরি বাচ্চা জন্ম দেয়!! একটা মেয়ে অ্যানাকোন্ডা একসাথে ২৫-৩০টি বাচ্চা প্রসব করতে পারে!!

১০. একটি বাচ্চা অ্যানাকোন্ডা জন্মের সময়ই ২ ফুট লম্বা হয়ে থাকে এবং সাতার কাটার পারদর্শী হয়(আমি এতো বুইড়া হয়ে গেলাম, তাও পারি না)!! শুধু তাই নয়, এরা জন্মের সাথে সাথে শিকার ধরা শুরু করতে পারে!!

১১. একটি অ্যানাকোন্ডা দিনে ২০ কেজি পর্যন্ত খাবার গিলতে(খেতে) পারে।।

১২. অ্যানাকোন্ডা মানুষকে এড়িয়ে চলে।। এমনকি মানুষের গাঁয়ের গন্ধ পেলেই তারা লুকিয়ে পড়ে!! উল্টো মানুষ তাদের চামড়া এবং দাঁতের দামের জন্য গভীর বনে ঢুঁকে অ্যানাকোন্ডা শিকার করে!!

তথ্য গুলো সংগ্রহ করা।

বিঃদ্রঃ এই টিউনটির উদ্দেশ্য আপনাকে নতুন কিছু তথ্য জানানো, আপনাকে  বাংলা বানান শেখানো নয়। তাই যদি কোন বানান ভুল হয়ে থাকে আশা করব ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। কারন কিছু কিছু অতি উৎসাহী লোক নতুন কিছু শিখে অনুপ্রাণিত করার চাইতে বানান ভুল নিয়েই বেশি কথা বলে। আপনি যদি এই টিউন টি পরে নতুন কিছু জানতে পারেন তাহলেই এই টিউনটির উদ্দেশ্য সফল হবে।

টিউনারপেজের নতুন টিউন আপনাকে ইমেইল করব?
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting
Unlimited Web Hosting

14 মন্তব্য

  1. এত তথ্য মাথায় ঢুকলে তো আমার মাথা ফাইট্টা যাইব :D

    • সাজাব ভাই, তাহলে সব তথ্য মাথায় না রেখে কিছু তথ্য মনে রাখেন. তাহলে মাথার উপর থেকে চাপ কমবে.

  2. ভুল হওয়াটা স্বাভাবিক। আর তা ধরিয়ে দেয়াও অন্যায় কিছু নয়।

    আপনার টিউনগুলো অসম্ভব সুন্দর। এমন দুর্লভ টিউন পাওয়া যায়না।
    আরও টিউন-এর অপেক্ষায় রইলাম।
    ধন্যবাদ।

    • ধন্যবাদ আলিফ ভাই আপনাকে। আমিও আপনার সাথে একমত যে ভুল হওয়া স্বাভাবিক আর কেউ যদি আমার সেই ভুলটা ধরিয়ে দেয় তবে সেটা আমার জন্যই ভালো। কারন তাতে আমি ভবিষ্যতে সতর্ক হতে পারব। কিন্তু কোন সিনিওর টিউনার (যে নিজে তার প্রায় সব টিউন- এ বানান ভুল করে থাকেন) যদি এসব বিষয় নিয়ে হাসাহাসি করেন তাহলে আসলে মনোবল নষ্ট হয়ে যায়। Positively ভুল ধরিয়ে দেয়া অবশ্যই ভালো।

      আমার সেই টিউন টি দেখে নিতে পারেন নিচের লিঙ্ক থেকে।
      http://www.techtunes.com.bd/mobileo/tune-id/১২২৮৩০

      উপর থেকে ১৫ নম্বর মন্তব্যটি পরুন। এভাবে ভুল ধরা কি ঠিক।

  3. ধন্যবাদ শাওন ভাই আপনাকে। তথ্য গুলো আসলে বিভিন্ন উৎস থেকে সংগ্রহ করা। তাই সব উৎস না দিয়ে কেবল “তথ্য গুলো সংগ্রহ করা” এটা বলেছি। আর সম্প্রতি আমার একটি টিউন এ সামান্য দুটু বানান ভুল নিয়ে খুব নেগেটিভ মন্তব্বের শিকার হয়েছি। অথচ যে মন্তব্যটি করেছে সে নিজের তার প্রতি টিউন এ বানান ভুলের প্রতিযোগিতায় নামেন। তাই বলেছি যে “কিছু কিছু অতি উৎসাহী লোক নতুন কিছু শিখে অনুপ্রাণিত করার চাইতে বানান ভুল নিয়েই বেশি কথা বলে”।

    আপনার সাজেশনের জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।

  4. অনেক কিছু জানলাম, অনেক ধন্যবাদ . :)

    “তথ্য গুলো সংগ্রহ করা।” উত্স দিয়ে দিলে ভালো হত . আর বানানের বিষয়টা না লেখলেই কি নয় ? কেউ তো আপনাকে কিছু boleni !

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here

7 + 17 =