সাইবার সুপারউইপন ভাইরাস

2
285

নাম ‘সাইবার সুপারউইপন’। বিশেষজ্ঞদের দেয়া নামের এই কম্পিউটার ভাইরাসটি ইরানের পরমাণু স্থাপনার উদ্দেশ্যে তৈরি হয়েছিলো । কিন্তু এটি এখন চীনে আঘাত করেছে। চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায়, ভাইরাসটি কয়েক লাখ কম্পিউটারে ছড়িয়ে পড়েছে। অন্য একটি সূত্রমতে, ভাইরাসটি কমপক্ষে ৬০ লাখ কম্পিউটারে সংক্রমিত হয়েছে।
এটর মাধ্যমে সফটওয়্যার ক্ষতিগ্রস্ত হবার পাশাপাশি কম্পিউটারের নিয়ন্ত্রণব্যবস্থাও ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা প্রকাশ করছেন।

অ্যান্টিভাইরাস সার্ভিস প্রোভাইডার রাইজিং ইন্টারন্যাশনাল সফটওয়্যারের প্রকৌশলী ওয়াং জানান, ভাইরাসটি এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যা তথ্য চুরি করার পরিবর্তে কম্পিউটার নেটওয়ার্কের নিয়ন্ত্রণব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দেবে। এটি যে কোন প্রতিষ্ঠানের নেটওয়ার্ক-ব্যবস্থা ধ্বংস করতে সক্ষম । আর যদি এটি কোনো প্রতিষ্ঠানের কম্পিউটার নেটওয়ার্ক-ব্যবস্থা ধ্বংস করতে সক্ষম হয়, তাহলে ওই প্রতিষ্ঠানটি মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। গত জুন মাসে প্রথম ভাইরাসটি শনাক্ত করা হয়। কয়েক দিন আগে ভাইরাসটি ইরানের পরমাণু স্থাপনার কম্পিউটার নেটওয়ার্কে ব্যাপকভাবে আঘাত হানে। এ ছাড়া এটি ভারত, পাকিস্তান ও ইন্দোনেশিয়ার কিছু কম্পিউটার নেটওয়ার্কে আঘাত হেনেছে। চীনের ইনফরমেশন টেকনোলজি সিকিউরিটি ইভালুয়েশন সেন্টারের পরিচালক ইউ জিয়াওকিও বলেন, ভাইরাসটি আঘাত হানলেও কোনো কম্পিউটার নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, এমন কোনো খবর আমরা এখন পর্যন্ত পাইনি। কাজেই, ভাইরাসটিকে যতটা ভয়ংকর ভাবা হচ্ছে, আসলে ততটা নয়।

Advertisement

এখন সময়ই বলে দেবে আসলেই ভাইরাস টি কতটা বিপদজনক ।

2 মন্তব্য

  1. হুম সুন্দর একটা নিউজ, আসলে ইরান পরমানু শক্তিধর হোক তা অনেকেই চায়না, তাই তাকে ধংস করার হীন ষড়যন্ত্র, ইনশাআল্লাহ সব ষড়যন্ত্র নস্যাত হয়ে যাবে

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here