বিসিএ নিয়ে ওভারল একটা পোষ্ট!!  FavoriteLoadingবুকমার্ক

বাংলাদেশ বনাম ভারতের স্ব স্ব হ্যাকার গ্রুপ কর্তৃক ঘোষিত সাইবার ওয়ারের দামামার এখন চলছে দ্বিতীয় পর্যায়। প্রথম পর্যায়ে বাংলাদেশী হ্যাকার গ্রুপরা মোটামুটি কাপিয়ে দিয়ছে ভারতকে, হ্যাক হয়েছে সরাকারী-বেসরকারী প্রায় হাজার বিশেক সাইট। আর সাথে যোগ দেন আমাদের বাংলাদেশ থেকে অসংখ্য সচেতন জনতা, যারা স্বেচ্ছায় অংশ গ্রহন করে এই ওয়ারে। কেউ আছে প্রতিনিয়ত উতসাহ দিয়ে, কেউবা ফোন কল, অনেকেই করছেন ইমেইল। যারা এখনো এই সম্বন্দে কিছু জানেন না তারা চোখ রাখুন বিসিএর গ্রুপে।

অনেকেই অনেক রাত পর্যন্ত জেগে থাকছেন এই কর্মকান্ডের খোজ খবর নিতে এবং সবার একই কথা

“যাও বাংলাদেশ এগিয়ে যাও, এগিয়ে যাও দুর্বার গতিতে……আমরা আছি তোমাদের সাথে….”

উপরের অংশ থেকেই বুঝা যায় যে কতটা নাড়া দিয়েছে তাদের মনে এই অন্যায় অবিচারের প্রতিবাদে ডাক দেয়া সাইবার ওয়ার।

বাংলাদেশের সর্ব বৃহৎ ও অন্যতম এথিকাল হ্যাকার গ্রুপ বাংলাদেশ সাইবার আর্মির প্রায় সকল সদস্যরাই প্রতিনিয়ত এই কাজে অংশগ্রহন করে তাদের উপস্থিতি জানান দিচ্ছেন এবং ভারতের বাংলাদেশের প্রতি অনাচারের প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠছেন। এছাড়াও এতে রয়েছে দেশের অন্যান্য গ্রুপ গুলো।

আর সাইবার ওয়ার এর শুরু দিন থেকেই অচিন্তনীয় সরব রয়েছেন প্রায় সকল দেশ প্রেমী বিসিএ মেম্বারই, অন্তত গ্রুপের কার্যক্রম তো তাই বলে। আসলেই খুব কম উপলক্ষ্যতেই এমন কোলাহল অংশগ্রহ্ন লক্ষ্য করা যায়।

বিসিএ এর অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সাদমান তানজিম এক প্রশ্নের জবাবে জানান, বাংলাদেশের অন্যান্য হ্যাকার গ্রুপ ছাড়াও বিসিএর মেম্বাররা হ্যাক করছে ইন্ডীয়ার ১০০০০+ (দশ হাজারের ও বেশি) অতীব গুরুত্বপূর্ণ ওয়েব সাইট, এর মাঝে রয়েছে ৫০ টির ও বেশি সরাকারি সাইট এবং এর পাশাপাশি রয়েছে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন বেসরকারী সাইট। হসপিটাল, স্কুল, ইউনিভার্সিটি, আইটি কোম্পানি সহ পারায় সকল গুরূত্বপূর্ন সেকটরেই আঘাত হাঞ্ছে তারা। লক্ষ্য একটাই ভারতের অন্যায়ের তীব্র প্রতিবাদ যা এখন পর্যন্ত সরকারকে নিতে দেখা যায় নি।

উল্লেখ্য বিসিএ এর প্রায় প্রতিটি ডিফেস পেইজ এ যে সাতটি দাবি তুলে ধরা হয় সেগুলো হল

০০১. সীমান্তে বাংলাদেশি নাগরিকদের সাথে বিএসএফ এর অমানবিক আচরন বন্ধ করা

০০২. টিপাই মুখি বাধ নির্মান বন্ধ করা

০০৩. তিস্তার পানি ঠিক ভাবে সরবরাহ করা

০০৪. বাংলাদেশি ওয়েব সাইট গুলোকে যত্র তত্র ভাবে নষ হ্যাক না করা

০০৫. ভারতের এন্টি বাংলাদেশমূলক আচরন বন্ধ করা

০০৬. বাংলাদেশী টিভি চ্যানেলে গুলকে ভারতে প্রবেশাধিকার দেওয়া

০০৭. এবার থেকে সর্বদা এমন কোন কাজ করতে পারবেনা যা বাংলাদেশের স্বার্থের হানি করে

সব সময় ওয়ারের সর্বশেষ আপডেত থাকতে লাইক করতে পারেন বিসিএ এর পেইজটি কিংবা জয়েন করতে পারেন আমাদের গ্রুপে যেয়ে  ।

উল্লেখ্যঃ অনেকেই একে হিন্দু মুসলমানদের মাঝে ওয়ার ভাবছেন যা সম্পূর্ণ ভ্রান্ত ধারনা। এই ওয়ারের জন্য দায়ি ইন্ডিয়ার অমানিবিক আচরন বাংলাদেশের প্রতি।

collected :(BCA)

এই জাতীয় আরো টিউন

3 মতামত গুলো

আপনিও লিখুন মতামতের উত্তর

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

20 − fourteen =