সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

0
76
সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

wellcome1212

ব্যাসিক্যালি সার্চ-ইঞ্জিন মার্কেটিং নিয়ে কাজ করি।কাজের সুবাধে অনেক কিছুই করতে হয়।সেজন্যই কোন একসময় ব্লগিং এ আসা
সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

নবাগত ফ্রিলান্সারদের কাজের ক্ষেত্র হিসাবে বেশীর ভাগ সময়ই 1st চয়েজ হিসাবে চলে আসে এসইও এর কথা।কিন্তু এসইও যে একটা চলমান বিষয়।এখানে আপনাকে টিকে থাকতে হলে সবসময় শিখে যেতে হবে।কেননা google সহ অন্যান্য সার্চ -ইঞ্জিন প্রতিনিয়ত তাদের Algorithm চ্যাঞ্জ করে।যারফলে রাঙ্কিং সিস্টেমটাও চ্যাঞ্জ হয়ে যায়।যাইহোক তারা যেহেতু বসে নেই আমাদেরও মোটেও বসে থাকা যাবে না।আমাদের শিখতে হবে।অনেক ভূমিকা হলো এবার কাজে চলে যাই-

Basically SEO টা প্রতিনিয়ত change হয়।change বলতে এসইও এর প্রত্যেকটা সেক্টরেই change হয়। ৪-৫ বছর আগের এসইও আর এই ২০১৬-১৭ এর এসইও এর মধ্যে হাজারো পার্থক্য। so আমাদের latest এসইও করেই সার্চ-ইঞ্জিন এ রাঙ্ক করতে হবে।এই latest এসইও এর মূলত ১৩ টা রোল নিয়ে আমরা আজকে আলোচনা করব।
এই ১৩টি role আমাদের অবশ্যই মানতে হবে যদি আমরা সার্চ-রেজাল্টে জায়গা করে নিতে চাই।so let go-
১) Site Structure:

সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে
যখনই কোন ক্লাইন্টের সাইট হাতে পাবেন বা সেটা নিজের সাইটই হোক না কেন এসইও করার আগে সাইটের structure creak করে নিবেন সবার আগে।structure ঠিক না থাকলে সেই সাইট google ঠিকমতো বুজতে পারবে না যার ফলে এসইও করেও আশানূরূপ ফল পাবেন না। মানে আমরা সাইট এর এসইও করছি আর করছি অথচ google বুজতেই পারছে আমাদের সাইট কীসের উপর base করে করা।শেষে সে না বুজে হয়ত অন্য কী-ওর্য়াডে আমাদের সাইট রাঙ্ক করে ফেলবে।তাহলে কী হলো?তাছড়া-
coding গত ভুল থাকার কারনে google ঠিক ভাবে বুজতেই পারতেছে না যে আমাদের সাইট এর মান কেমন।তাই structure চেক করার জন্য চলে যান https://validator.w3.org।চেক রেজাল্টে ভুল গুলা কপি করে ক্লাইন্টকে পাঠিয়ে ঠিক করতে বলেন।এটা আমাদের কাজ না,ডিজাইনারের কাজ।সমস্যা সমাধান হয়ে গেলে এবার সামনের দিকে আগান।

২)right permalink setup:

আমাদের সঠিক ভাবে পারমালিঙ্ক সেটাপ করতে হবে,তা না হলে আমরা এসইও এর বড় একটা Benefit থেকে বঞ্চিত হব।এজন্য দরকার সঠিক কীওর্য়াড নির্বাচন।আগের দিন আর নেই এখন আপনাকে advance level এর কী-ওয়ার্ড রিচার্চ জানতেই হবে।কেননা আপনি এমন একটা কী-ওয়ার্ড select করলেন যেটার সার্চ-ভলিউম খুবই ভালো।কিন্তু সেখানে কম্পিটিটরদের অবস্থান খুব শক্ত।তাহলে কিন্তু আপনি আপনার সেই কী-ওয়ার্ড নিয়ে তেমন কিছুই করতে পারবেন না।
সেজন্য কীভাবে কম্পিটিটরদের অবস্থান পর্যালোচনা করে সঠিক কী-ওয়ার্ড সিলেক্ট করবেন সেটা নিয়ে ইউটিউবে আমার একটি ভিডিও আছে।কন্টেন্টটি পড়ার পড়ে সেটা আগে দেখে নিন।সেখানে লিঙ্ক-বিল্ডিং প্রসেস নিয়েও আলোচনা করা হয়েছে

ভিডিও দেখুন এখানে

সো কীওয়ার্ডটি আস্তে করে পারলিঙ্কে বসিয়ে দিন।মনে রাখবেন বর্তমানে প্রায় এসইও এর ৮০% কাজই কন্টেন্ড এর উপস্থাপন এর ভিতর হয়ে যায়।

৩)টেকনিক্যালি টাইটেল লেখাঃ

সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

আপনাকে রাঙ্ক পাইতে হলে প্রথম চমকটা টাইটেলেই থাকতে হবে।কেননা গুগল টাইটেল আর পারমালিঙ্ক দেখেই বুজে ফেলে এটা কীসের কন্টেন্ট।তাই টাইটেলে আর পারমালিঙ্কে একই কিওয়ার্ড রাখার পাশাপাশি টেকনিক অবলম্বন করন।যখন google টাইটেল আর পারমালিঙ্কে হুবহ কী-ওয়ার্ড দেখবে তখনই সে বুজে যাবে আমার লেখা কী-সম্পর্কে।

৪)ভিজিটরকে সাচ্ছন্দ্য বোধ করানঃ

আমি যদি আপনাকে টানা গাইডলাইন দেই তাহলে আপনি খুব তাড়াতাড়ি বোরিং হয়ে যাবেন,ফলে আমার সাইটে আপনার আর থাকতে মন চাইবে না,আপনার চোখ লোড নিতে পারবে না।তাই আপনার সাইটে কন্টেন্টে ডেকোরেশন করুন।কন্টেন্টে ইমেজ,ভিডিও ইত্যাদি দেন।ফলে ভিজিটর সাইটে অনেক ক্ষন থাকবে আর বাউন্সরেট কমবে ।যেমনঃএই কন্টেন্টে আমরা ইমেজ দিয়ে যতটা পারছি সাজিয়ে তুলার চেস্টা করছি

৫)নিয়মিত হাই-কোয়ালিটি কন্টেন্ট লিখুনঃ

আপনি দরকার হলে মাসে একটি কনেন্ট লিখুন।তবে সেটা নিয়মিত হওয়া চাই।অনিয়মিত কন্টেন্ট google এর কাছে সাইটের মান কমায়।আপনি এই সপ্তাহে দুইটি কন্টেন্ট লিখলেন।তারপরে একমাস কোন খবর নাই।আবার একমাস পড়ে কোন এক সপ্তাহে একবারেই সাতটি কন্টেন্ট পাবলিশ করলেন! এটা কোন কিছু হলো!!! আপনাকে নিয়মিত হতে হবে।তবে হা কন্টেন্ট কিন্তু হাইকোয়ালিটি হওয়া চাই।মানে ২০০০ ওয়ার্ড এর আশেপাশে।কিভাবে হাইকোয়ালিটি কন্টেন্ট লিখবেন সে সম্পর্কে তাহের চৌধুরি সুমন ভাইয়ের একটি আর্টিকেল পড়ুন এখানে
http://bn.taherchowdhury.com/writing-guide/

৬)ভাল রিলেটেড সাইটকে লিঙ্ক দেনঃ

সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

কথায় আছে ,রতনে রতন চিনে আর………।বাকিটা বললাম না।এখন আপনি যদি একটা ভাল রিলেটেড সাইটকে ব্যাকলিঙ্ক দেন তাহলে গুগল আপনার সাইটকে সেই সাইটের মতো মনে করবে যেহেতু সেই সাইটের সাথে আপনার একটা লিঙ্কিং আছে ।সেই সাইটটি ভাল হলে গুগল আপনার সাইটকেও ভাল মনে করবে।আর সেটি খারাপ হলে গুগল আপনার সাইটকে কি ভাল মনে করবে ??না সে আপনার সাইটকেও খারাপ ভাববে।তাই ফেসবুক,ওকিপিডিয়া,ইউটিউব কে লিঙ্ক দেন,সেইসাথে রিলেটেড হাই-কোয়ালিটি সাইটে লিঙ্ক দেন।তবে সেটা আপনার সাইটের সাথে রিলেটেড হতে হবে

৭) ১ম ১০০টি শব্দের মধ্যেই আপনার-কীওয়ার্ড রাখুনএতে করে গুগল যখন আপনার টাইটেল,পারমালিঙ্ক আর কন্টেন্ট এর শুরুতেই কী-ওর্য়াড দেওতে পাবে সে সেটাকে খুব গুরুত্ব দিবে।

৮) সমার্থক কী-ওর্য়াড ব্যবহারঃ

আপনার সাইটে মেইন কী-ওয়ার্ড গুলোর পাশাপাশি সমার্থক কী-ওর্য়াড ব্যবাহার করুন যেমন:top school in Bangladesh আপনার কীওয়ার্ড হলে আপনি সেইসাথে top college,top university সমার্থক হিসাবে ব্যাবহার করুন।এতে আপনার মেইন কী-ওয়ার্ড এর শক্তি বৃদ্বি পাবে।যেমনঃআপনার কী-ওয়ার্ড Dhaka হলে আপনি আপনার কন্টেন্টে Dhaka university, Dhaka college, top place in Dhaka যোগ করুন।তাহলে গুগল সহজেই আপানার কি-ওর্য়াড চিনে ফেলবে।

৯)ইমেজ অলটার ট্যাগ এ কী-ওর্য়াড রাখুন।তবে ছবির রিয়েল আল্টার ট্যাগ…ই দিবেন।গুগল কিন্তু এখন বুজতে পারেসাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

১০) ক্লাইন্টকে বলে ওয়েব-লোডিং স্পিড ঠিক করুন।স্পিড চেক করার জন্য https://gtmetrix.com এ যান।

সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

স্পিড ৮০ এর উপর হতে হওয়া চাই।না হলে ক্লাইন্টেকে বলুন

১১)সোস্যাল শেয়ারঃসাইটে সোস্যাল শেয়ার বাটন রাখুন,যাতে করে ভিজিটর আপনার পোস্ট শেয়ার করতে পারে।

১২)সাইট রেসপন্সিব হতে হবেঃ

সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

মানে আপনার সাইট যেন মোবাইল,কম্পিউটার,ট্যাব হতে ভালোভাবে ব্রাউজ করা যায়।কারন,মোবাইল দিয়ে ব্রাউজিং এর সময় যদি সাইট ঠিক মতো শো না করে তাহলে কিন্তু এসইও করেও ভিজিটর ধরে রাখতে পারবেন না।যেহেতু অধিকাংশ মানুষই মোবাইল দিয়ে ব্রাউজ করে।so এটা আগে ঠিক করতে হবে।আর সাইট যদি ওয়ার্ডপ্রেসে হলে খুবই ভালো।কেননা বর্তমানে ওর্য়াডপ্রেসের প্রায় ৯৫% theme ই রেসপন্সিব।

১৩)এক পোস্টের সাথে অন্য পোস্টের ইন্টারলিঙ্ক করানঃ

সাম্প্রতিক সময়ে যে ১৩ টি এসইও টেকনিক সাইট রাঙ্ক করবে

যাতে করে সার্চ-ইঞ্জিন এবং ভিজিটর উভয়য়েই খুব সহজেই কন্টেন্ট খুজে পায়।মানে,ধরুন আপনি আমাদের এইপোস্টটি দেখলেন আর পোস্টি আপনার কাছে ভালো লেগে গেলো।আর এই আর্টিকেল এর নিচে আমরা যদি অন্য একটা পোস্টের লিঙ্ক দেই তাহলে আপনি কিন্তু অন্য সাইটেও ভিসিট করতে আগ্রহ করবেন।এতে আমাদের সাইটে average duration /visitor বাড়বে সেইসাথে বাউন্সও হবে না।এটা সাইটের জন্যন্য খুবই ভালো।

আজকে আপাদত এই পর্যন্তই।আবার ৭ দিনের ভিতর দেখা হবে ইনশাল্লাহ।আল্লাহ হাফেজ