গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।

0
141
গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।

Omit Datta

Hello, Welcome to my profile.


I am a graphic designer with 3+ years of experience. Based on simplicity, creativity and out of the box thoughts last 3+ years I have designed many logos, icons, banners, flyers and business cards.I'm hard-working and always promised to the objective is your satisfaction.
গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।

গোল্ডেন রেশিও কি ?

 

 

প্রথম কথা হচ্ছে গোল্ডেন রেশিও সৃষ্টির প্রায় সব জায়গায় আছে, প্রকৃতি মানুষের শরীর, মহাকাশ আরো বিভিন্ন জায়গায়। অনেক বিখ্যাত শিল্পী তাদের কাজে এই গোল্ডেন রেশিও ব্যবহার করেছে। Golden Ratio বা  সোনালী অনুপাতকে প্রকাশ করা হয় ল্যাটিন অক্ষর (PHI/ ফাই) দ্বারা। PHI  “ফাই”বা “G” এর অংক মান = ১ .৬১৮। এটা আসলে আর কিছুই নয়, একটা গাণিতিক অনুপাত মাত্র যার মান 1.618033988

নিচের সংখাগুলোর দিকে একটু মনোযোগ সহকারে লক্ষ্য করুন,

১, ১, ২, ৩, ৫, ৮, ১৩, ২১, ৩৪, ৫৫, ৮৯, ১৪৪, ২৩৩, ৩৭৭, ৬১০, ৯৮৭, ১৫৯৭, ২৫৮৪, ৪১৮১

উপরের সংখ্যা গুলোতে দেখুন প্রতিটি সংখ্যা তার আগের দুইটি সংখ্যার যোগফলের সমান।এটি একটি সংখ্যার সিরিজ।এই সিরিজটি আবিস্কার করেছেন ইটালিয়ান গনিতবিদ ফিবনেসি।তাই এটিকে ফিবনেসি সিরিজও বলা হয়।
এবার প্রত্যেক সংখ্যাকে তার আগের সংখ্যা দ্বারা ভাগ করুন।ভাগ করতে করতে দেখবান প্রত্যেক ভাগফল ১.৬১৮০৩৩ এর কাছাকাছি এবং ১৩তম সংখ্যার পরে সবগুলো ভাগফল একই হয় অর্থাৎ ১.৬১৮০৩৩ হয়।যেহেতু এই ভাগফলটি দুটো সংখ্যার অনুপাত,তাই ভাগফলটিকে বলা হয় গোল্ডেন রেশিও বা সোনালী অনুপাত।

গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।

 

এখন কথা হচ্ছে আমরা ডিজাইন এ কেনো গোল্ডেন রেশিও ব্যবহার করবো, লাভ কি, যে রেশিও মানব, দেহে, প্রকৃতিতে ব্যবহার করে এতো সুন্দর সুন্দর জিনিস সৃষ্টি করা হয়েছে, অনেক বিখ্যাত শিল্পী এই রেশিও ব্যবহার করে তাদের বিখ্যাত কাজ করেছে সেই রেশিও যদি আমরা গ্রাফিক ডিজাইন এ ব্যবহার করি সেটাও ও সুন্দর হবে না? আর আমাদের ব্রেইন এই রেশিও খুব ভালো করে চেনে তাই এই রেশিও ব্যবহার করে ডিজাইন করলে সেটা খুব ভালো ভাবে গ্রহন করে। বিখ্যাত কোম্পানির লোগো যেমন Apple, Adidas, Honda, Toyota, Mercedes-Benz, CocaCola, Pepsi, National Geography ইত্যাদি আরো অনেক বড় বড় কোম্পানি  PHI ব্যবহার করেছে।

গোল্ডেন রেশিও একটি বিশাল জগত। গোল্ডেন রেশিওর জগতে আমি পুরোপুরি নতুন। এখন পর্যন্ত যতটুকু জানতে পেরেছি সেটা দিয়েই ২৫ টা অ্যানিম্যাল লোগোর একটি প্রোজেক্ট তৈরি করলাম। বিশ্বের অনেক ডিজাইনারই গোল্ডেন রেশিও বা সার্কেল গ্রিড দিয়ে অনেক অ্যানিম্যাল প্রোজেক্ট তৈরি করেছে। কাঠবিড়ালি, হাঙ্গর, হামিংবার্ড, হরিন, হাতি, শেয়াল ইত্যাদি সবচেয়ে কমন। তাই চেষ্টা করেছি যেসব অ্যানিম্যালগুলো গোল্ডেন রেশিও বা সার্কেল গ্রিডের ক্ষেত্রে কম ব্যবহৃত হয়েছে সেই সকল অ্যানিম্যাল গুলো ব্যবহার করতে। আশা করছি পুরো প্রজেক্টটাই আপনাদের ভালো লাগবে।

 

 

গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।গোল্ডেন রেশিও !!! যা আপনার সম্পূর্ণ ডিজাইনটিকেই আকর্ষণীয় করে তুলতে পারে।

 

 

পুরো প্রজেক্টটি দেখতে পারবেন এখানে

যেকোনো প্রয়োজনে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে পারেন।