জানুন সেরা ১০ ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকার সম্পর্কে সাথে বোনাস

0
981

আসসালামু ওয়ালাইকুম,

সবাই ক্যামন আছেন ? নিশ্চয়ই ভাল আছেন।

আজকে আমি আপনাদের জানাব সারা বিশ্বের সেরা ১০ ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকার সম্পর্কে। তো চলুন জানি।

যেহেতু আমরা হ্যাকার সম্পর্কে জানব তাই হাকিং হ্যাকার এর ধরন সম্পর্কে জেনে নেই প্রথমে। এর পর সারা বিশ্বের সেরা ১০ ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকার সম্পর্কে ভিডিও দেখব ও সেই সাথে ২০১৬ তে আই ছি ছি র বার্ষিক পুরষ্কার পাওয়া মুস্তাফিজের ভিডিও দেখব।

আপনাদের প্রাথমিক ভাবে জানানোর জন্য এইখান থেকে হ্যাকিং বিষয়ের কিছু বর্ণনা নিচে দিলাম।

হ্যাকিং কি?

হ্যাকিং একটি প্রক্রিয়া যেখানে কেউ কোন বৈধ অনুমতি ছাড়া কোন কম্পিউটার বা কম্পিউটার নেটওয়ার্কে প্রবেশ করে। যারা এ হ্যাকিং করে তারা হচ্ছে হ্যাকার। এসব কথা তোমরা প্রায় সবাই জান। আমরা প্রায় সবাই জানি হ্যাকিং বলতে শুধু কোন ওয়েব সাইট হ্যাকিং আবার অনেকের ধারনা হ্যাকিং মানে শুধু কম্পিউটার বা কম্পিউটার নেটওয়ার্ক  হ্যাক করা, আসলে কি তাই? না আসলে তা না। হ্যাকিং অনেক ধরনের হতে পারে। তোমার মোবাইল ফোন, ল্যান্ড ফোন, গাড়ি ট্র্যাকিং, বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স ও  ডিজিটাল যন্ত্র বৈধ অনুমতি ছাড়া ব্যবহার করলে তা ও হ্যাকিং এর আওতায় পড়ে।  হ্যাকাররা সাধারনত এসব ইলেকট্রনিক্স যন্ত্রের ত্রুটি বের করে তা দিয়েই হ্যাক করে।

এবার আসি হ্যাকার কে বা কি?

হ্যাকারঃ যে ব্যক্তি হ্যাকিং practice করে তাকেই হ্যাকার বলে। এরা যে সিস্টেম হ্যাকিং করবে ঐ সিস্টেমের গঠন, কার্য প্রনালী, কিভাবে কাজ করে সহ সকল তথ্য জানে। আগে তো কম্পিউটারের এত প্রচলন ছিলনা তখন হ্যাকার রা ফোন হ্যাকিং করত। ফোন হ্যকার দের বলা হত Phreaker এবং এ প্রক্রিয়া কে বলা হ্য Phreaking। এরা বিভিন্ন টেলিকমনিকেশন সিস্টেমকে হ্যাক করে নিজের প্রয়োজনে ব্যবহার করত।

তিন প্রকারের হ্যকার রয়েছেঃ

বলে রাখি হ্যাকারদের চিহ্নিত  করা হয় Hat বা টুপি দিয়ে।

  1. White hat hacker
  2. Grey hat hacker
  3. Black hat hacker

 

White hat hacker: White hat hacker  একটি সিকিউরিটি সিস্টেমের ত্রুটি গুলো বের করে এবং ঐ সিকিউরিটি সিস্টেমের মালিকে ত্রুটি দ্রুত জানায়। এবার সিকিউরিটি সিস্টেমটি হতে পারে একটি কম্পিউটার, একটি কম্পিউটার নেটওয়ার্কে্‌ একটি ওয়েব সাইট, একটি সফটোয়ার ইত্যাদি।

Grey hat hacker: Grey hat hacker হচ্ছে দু মুখো সাপ। কেন বলছি এবার তা ব্যাখ্যা করি। এরা যখন একটি একটি সিকিউরিটি সিস্টেমের ত্রুটি গুলো বের করে তখন সে তার মন মত কাজ করবে। তার মন ঐ সময় কি চায় সে তাই করবে। সে ইচ্ছে করলে ঐ সিকিউরিটি সিস্টেমের মালিকে ত্রুটি জানাতে ও পারে অথবা ইনফরমেশন গুলো দেখতে পারে বা নষ্ট ও করতে পারে। আবার তা নিজের স্বার্থের জন্য ও ব্যবহার করতে পারে।

Black hat hacker: আর সবছেয়ে ভয়ংকর হ্যাকার হচ্ছে এ Black hat hacker। এরা কোন একটি সিকিউরিটি সিস্টেমের ত্রুটি গুলো বের করলে দ্রুত ঐ ত্রুটি কে নিজের স্বার্থে কাজে লাগায়। ঐ সিস্টেম নষ্ট করে। বিভিন্ন ভাইরাস ছড়িয়ে দেয়। ভাবিষ্যতে নিজে আবার যেন ঢুকতে পারে সে পথ রাখে। সর্বোপরি ঐ সিস্টেমের অধিনে যে সকল সাব-সিস্টেম রয়েছে সে গুলোতেও ঢুকতে চেষ্টা করে।

দেখুন সারা বিশ্বের সেরা ১০ ব্ল্যাক হ্যাট হ্যাকার সম্পর্কে

https://www.youtube.com/watch?v=Ry2H4wn1iZc

 

দেখুন ২০১৬ তে আই ছি ছি র বার্ষিক পুরষ্কার পাওয়া মুস্তাফিজের ভিডিও

https://www.youtube.com/watch?v=Xpxer6vU1Yw

 

ধন্যবাদ আমার লেখা পড়ার জন্য।

আমার ইউটিউব চ্যানেল এ সাবসচ্রিবে করে: Interesting News Videos

আমার ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে : Interesting News Videos

যোগাযোগ রাখুন।

আমার অনলাইনে আয়ের উপর চ্যানেল ঃ Earn Money Online

আমার অনলাইনে আয়ের উপর ওয়েবসাইট ঃ Online Earning & Other

ধন্যবাদ পড়ার জন্য।

একটি উত্তর ত্যাগ