বিনা খরচায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার সেরা উপায়! আসুন এবার পরের মাথায় কাঁঠাল ভেঙে খাই!  FavoriteLoadingবুকমার্ক

বিনা খরচায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার সেরা উপায়! আসুন এবার পরের মাথায় কাঁঠাল ভেঙে খাই!

kizir007

নাম মীর আযহার আলি। পেশায় একজন ফিন্যান্সিয়াল অ্যানালিস্ট। পাশাপাশি অর্থনীতি, বিনিয়োগ ও অন্যান্য বিষয়ে ব্লগে লেখালেখি করছেন। সাম্প্রতিক বিশ্বে ঘটে যাওয়া প্রত্যেকটি বিষয়ে তিনি আপডেট থাকতে পছন্দ করেন। তার বিভিন্ন লেখাগুলো পড়ার জন্য ঘুরে আসতে পারেনঃ http://www.forexing24.com/ ব্লগ থেকে।
বিনা খরচায় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করার সেরা উপায়! আসুন এবার পরের মাথায় কাঁঠাল ভেঙে খাই!

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর হট টিপসঃ আর নয় গ্রুপে গ্রুপে লিংক শেয়ার, আর নয় মাসে মাসে হোস্টিং খরচ বহন করা!  আজ আপনাদের এমন একটা উপায় এর কথা বলব, যা দিয়ে আপনি নিজের কোন ওয়েবসাইট ছাড়াই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে মাসে সপ্তাহে ২০০ থেকে ৩০০ ভিজিটর পাবেন অনায়াসে! তাও সম্পূর্ণ বিনা খরচায়!

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটাররা চলে আসুন সবাই। যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেন না, কিন্তু এই বিষয়ে আগ্রহী, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে ধারনা আছে, কিন্তু টাকার অভাবে নিজস্ব ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারছেন না- এমন ব্যক্তিরাও চলে আসুন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে অনলাইনে ইনকামের দারুণ এক প্লাটফর্ম এর সন্ধান নিয়ে এসেছি আজ আপনাদের সামনে। এই ওয়েবসাইটের নাম FXProfita.

সাইটটি সম্পর্কে বিস্তারিত বলার আগে একটু অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে দুই চার কথা বলে নিতে চাচ্ছি। যেহেতু এখানে অনেকেই আছেন যারা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে ভাল জানেন না, তাই তাদের বোঝার সুবিধার জন্য এই বিষয়ে সামান্য কিছু কথা বলে নেওয়া ভাল।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি?

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি? – এই নিয়ে এক্সপার্টদের প্রশ্ন করলে তারা অনেক ভারি ভারি কথা শুনাবে হয়ত আপনাকে। বেশির ভাগ কথাই আপনার মাথার উপর দিয়ে চলে যাবে! আগে থেকে যাদের জানাশোনা আছে তারা বুঝবেন, বাকিরা অনেকেই প্রায় কিছুই বুঝবেন না! আমি ভাই এত ভদ্রতার খাতির রাখতে যাব না! অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং মানে হচ্ছে- অন্যের প্রোডাক্ট বিক্রি করে দিয়ে কমিশন পাওয়ার বিজনেস, সোজা বাংলায় বলা চলে- দালালগিরি! শুনতে খারাপ লাগলেও এটাই বাস্তবতা ভাই!

এবার একটু মার্জিত ভাষায় বুঝিয়ে দিচ্ছি- অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে কমিশনের বিনিময়ে অন্যের পণ্য বা সার্ভিসের প্রচার- প্রচারনার মাধ্যমে বিক্রির ব্যবস্থা করে দেওয়া প্রক্রিয়া। কোন কোন ক্ষেত্রে আপনি পণ্যের প্রচার করার বিনিময়েই কমিশন পাবেন, আবার কোন কোন ক্ষেত্রে পণ্যটি বিক্রি হওয়ার পর আপনি পণ্যের মালিকের কাছ থেকে বিক্রয়মূল্যের উপরে কমিশন উপার্জন করতে পারবেন। তবে অনলাইনে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিছুটা আলাদা হয়। এই ক্ষেত্রে আপনাকে ঐ নির্দিষ্ট প্রোডাক্ট এর মালিক একটা ইউনিক লিংক দিবে। আপনার কাজ হচ্ছে সেই লিংক অনলাইনে ছড়িয়ে দেওয়া, সেই লিংকে ক্লিক করে গিয়ে যদি কেউ প্রডাক্টটা কিনে ফেলে, তাহলে আপনি কমিশন পাবেন।

মোট কথা হল- আপনার কাজ হচ্ছে কোন পন্য বা সার্ভিসের সমস্ত গুনাবলি ফলাও করে অথবা কৌশলের আশ্রয় নিয়ে ক্রেতাদের জানাতে হবে- ক্রেতা আপনার কথায় ইম্প্রেসড হয়ে যদি পন্যটি কিনে ফেলে- আপনি তাহলে কমিশন পাবেন! তা না হলে পাবেন না। তাহলে কি দাঁড়াচ্ছে? আপনার অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে উপার্জন করতে গেলে এমন কোন উপায় খুঁজে বের করতে হবে যাতে প্রচুর মানুষ আপনার লিংকে ক্লিক করে। শুধু ক্লিক করতেই তো হবে না ভাই, যারা ক্লিক করবে তাদের মধ্যে অল্প কিছু অংশ কিনবে। বাকিরে দেখে চলে যাবে। তাই আপনার লিংকে ক্লিক করা ভিজিটর জত বেশি হবে, পন্যটি বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা তত বেশি!

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ শেখার কিছু নেই, নিজের শিক্ষাই আসল! 

একটা কথা মনে রাখুন, হাজার হাজার টাকা খরচ করে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শেখার কিছু নাই, এটা অতীব সহজ একটি কাজ। কিছুদিন এই লাইনে কাজ শুরু করলেই আপনার ধারনা হয়ে যাবে কিভাবে একটা প্রোডাক্ট সেল করা যায় ক্লায়েন্টদের কাছে। কীভাবে একটা টিউন করলে, বা কাউকে বুঝিয়ে বললে সে প্রডাক্টটি কিনবে- তা শিখতে আপনার নিজের বড় জোর এক মাস লাগবে। কারো কাছে শিখতে গেলে বরং আরও কনফিউজড হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে! গাঁদা গাঁদা আর্টিকেল পড়ে, ক্লাস করে বা ভিডিও দেখে আপনি যা শিখবেন, সপ্তাহ খানেক নিজে নিজে অনলাইনে প্র্যাকটিস করলেই- তা শেখা হয়ে যাবে! তাছাড়া অনলাইনে ফ্রিতে অনেক আর্টিকেল আছে! এইগুলা দুই চারটা পড়লেই হয়ে যায়।

তবে কয়েকটি বিষয় শিখতে হয়। শিখতে হয় কি করে অ্যাফিলিয়েট লিংক পাবেন, কীভাবে সেটা ব্লগে বা ফোরামের টিউনে সংযুক্ত করবেন, কীভাবে কমিশনের টাকা আনবেন আপনার কাছে ইত্যাদি টেকনিক্যাল বিষয়গুলো। এগুলো আপনি যে প্রডাক্ট এর অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করবেন, সেই প্রডাক্ট এর ওয়েবসাইটে গেলেই বিস্তারিত দেখতে পাবেন। আলাদা করে শিখার কিছু নেই। তবে আপনি যদি এসইও এবং ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কিছু প্রফেশনাল কোর্স করে ফেলেন তাহলে আপনার জন্য কাজটা অনেক বেশি সহজ হবে যাবে! টাকা খরচ করে শিখতে হলে এগুলো শিখুন! অযথা পয়সা খরচ করে লাভ নেই!

FXProfita কি?

FXProfita হচ্ছে মূলত ফাইন্যান্সিয়াল প্রোডাক্ট বা সার্ভিস রিভিউ প্লাটফর্ম। এখানে আপনি যেকোনো ফাইন্যান্সিয়াল প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপন প্রদান করতে পারবেন সম্পূর্ণ ফ্রিতে। বিজ্ঞাপন টিউন করার সময় আপনার অ্যাফিলিয়েট লিংক এড করে দিতে পারবেন। সাইটটি একদম নতুন, এই বছরই যাত্রা শুরু করেছে, খুব অল্প সময়ে ভাল পজিশনে চলে এসেছে। সুতরাং, দেরি না করে এখনই কাজ শুরু করে দিলে আপনি টপ পজিশনে থাকতে পারবেন।

কাদের জন্য FXProfita তে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং লাভজনক হবে?

যেহেতু এটি মূলত একটি ফিন্যান্সিয়াল ওয়েবসাইট। তাই এখানে সব ধরনের প্রডাক্ট এর মার্কেটাররা সুবিধা করতে পারবেন না। শুধু মাত্র ফাইন্যান্সিয়াল প্রোডাক্ট নিয়ে যারা কাজ করেন, তারা সুবিধা পাবেন। যেমনঃ

১. ফাইন্যান্সিয়াল সাইটের অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার

২. ফাইন্যান্স রিলেটেড সফটওয়্যার মার্কেটার

৩. লোন, ব্যাংক লোন কিংবা ক্রেডিট ইউনিয়নের মার্কেটার

৪. ফরেক্স ব্রোকারের আইবি পার্টনার বা ফরেক্স ট্রেডার

৫. ট্রেডিং রোবট বা ইন্ডিকেটর এর বিক্রয় পার্টনার

৬. বাইনারি প্রোডাক্ট, সফটওয়্যার বা ব্রোকারের মার্কেটার

৭. যেকোনো অনলাইন বেটিং সাইট বা ক্যাসিনো সাইটের মার্কেটিং

৮. ফিন্যান্সিয়াল প্রোডাক্টের অ্যামাজন নিস সাইট যাদের আছে

শুধু তাই নয়, আপনার যদি কোন ফাইন্যান্স বিষয়ক ওয়েবসাইট থেকে থাকে, তাহলে আপনার ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক করতে পারবেন বিনা খরচায়।

তবে যারা অন্য প্রোডাক্ট এর অ্যাফিলিয়েশন করেন, তাদেরও হতাশ হওয়ার কিছু নেই। এমন যদি হয় যে আপনি যেকোনো যায়গায় কৌশলে একটা ব্যাক লিংক করে দিতে উস্তাদ, তাহলে আপনার সাইট কিংবা প্রোডাক্ট যাই হোক না কেন, সেখানে বুদ্ধি করে প্রসঙ্গক্রমে আপনার লিংক ঢুকিয়ে দিয়ে আপনি একটা স্ট্রং ব্যাক লিংক ক্রিয়েট করতে পারবেন! সময় পেলে এই ব্যাপারে বিস্তারিত শিখাব আমি পরবর্তী টিউনে।

FXProfita তে টিউন করার গাইডলাইন

আগেই বলেছি এটি হচ্ছে মূলত একটি বিজ্ঞাপন প্রচারের সাইট। যে কেউ রেজিস্ট্রেশন করে বিনা খরচায় বিজ্ঞাপন করতে পারেন। তবে এইখানে বিজ্ঞাপন দেয়ার সময় কয়েকটা বিষয় খেয়াল করতে হবেঃ

১. আপনি একটি টিউনে ২টির বেশি রেফারেল লিংক দিতে পারবেন না।

২. টিউনটি অবশ্যই ইংরেজি ভাষায় লিখিত হতে হবে। তবে ইংরেজি টিউনে বাংলা ওয়েবসাইটের লিংক এড করলে কোন অসুবিধা হবে না।

৩. কোন টিউন হুবুহু কপি প্যাস্ট করে এখানে টিউন করা যাবে না। কিন্তু কয়েকটি টিউন থেকে টেক্সট নিয়ে মিলিয়ে, সাথে নিজের কিছু কথা এড করে একটা টিউন দিতে পারবেন। সমস্যা হবে না আশা রাখি।

৪. কপিরাইট করা কোন টিউন থেকে এখানে টিউন করা যাবে না। আপনি যদি কৌশলে করতে পারেন তাহলে ঠিক আছে, নতুবা ধরা খেলে আইডি ব্যান খাবেন।

৫. আপনার বিজ্ঞাপনের স্টাইল অনেকটা রিভিউ লেখার মত করে লিখতে হবে। যেহেতু রিভিউ প্লাটফর্ম- আপনি যদি শুধু মাত্র বিজ্ঞাপনমুলক কথা বার্তা লিখে দেন, তাহলে অ্যাডমিনরা টিউনটি রিমুভ করে দিতে পারে। চেষ্টা করবেন এমনভাবে লিখতে যেন আপনি নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করছেন!

৬. কোন টিউনে কম পক্ষে তিনশ শব্দ থাকতে হবে। এর কম হলেও সমস্যা নেই। তবে দেখেছি মাঝে মধ্যে এডমিন ছোট টিউন মুছে দেয়। তাই ৩০০ শব্দ হওয়াটাই ভাল।

৭. এক দিনে দুইটির বেশি টিউন না দেয়াই ভাল, দুটি টিউনের মাঝখানে ৬ ঘন্টা গ্যাপ থাকতে হবে।

FXProfita তে কীভাবে টিউন করবেন?

টিউন করার জন্য প্রথমে আপনাকে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। তবে সরাসরি মেইল দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করার প্রক্রিয়া একটু জটিল। তাই আমি সাজেস্ট করব আপনাকে সরাসরি রেজিস্ট্রেশন না করে ফেসবুক বা গুগল প্লাসের মাধ্যমে লগ ইন করতে। এভাবে লগ ইন করে আপনি যেকোনো টিউন সহজেই করতে পারবেন।

FXProfita তে বিজ্ঞাপন দেওয়ার সুবিধাগুলো কি কি?

যারা ভাল ইংরেজি জানেন না বা রিভিউ লিখতে পারেন না, তাদের জন্যঃ 

নিজের ইংরেজিতে লেখার ভাল দক্ষতা না থাকলে কারো হেল্প নিন। অথবা ঐ নির্দিষ্ট প্রোডাক্টের উপরে অন্যদের লেখা রিভিউ এর সাথে নিজের কিছু কথা লাগিয়ে সুন্দর একটা রিভিউ ক্রিয়েট করে টিউন করে দিন। টিউনে দুটির বেশি অ্যাফিলিয়েট লিংক দিবেন না। আমি এই করতে গিয়ে একটা আইডি পর্যন্ত ব্যান খেয়েছি। সাবধানে লিংক দিন। আপনার দেওয়া লিংকটি ডিরেক্ট লিংক নাকি অ্যাফিলিয়েট লিংক তা নিয়ে এদের মাথা ব্যাথা নেই। কিন্তু এরা চায় যে লিংকটি যেন প্রাসঙ্গিকভাবে আসে আপনার টিউনে।

যাদের কোন নিজস্ব ওয়েবসাইট নেই, তাদের জন্যঃ 

আপনার যদি নিজস্ব কোন ওয়েবসাইট না থাকে তাহলে এই ওয়েবসাইট আপনার জন্য আদর্শ! আপনি যেকোনো ফাইন্যান্সিয়াল প্রোডাক্টের অ্যাফিলিয়েট পার্টনার হয়ে একটি অ্যাফিলিয়েট লিংক নিয়ে নিন। তারপর ঐ প্রডাক্টের গুনাবলি দিয়ে সাজিয়ে ভাল ভাল কিছু রিভিউ লিখে ফেলুন। টিউন করার নিয়মগুলো অবশ্যই মাথায় রাখুন। সাইটের নিজস্ব রিডাররা তো আপনার টিউন দেখবেই, তাছাড়া আপনি নিজেও টিউন টাকে রিডারদের কাছে পৌঁছে দেয়ার চেষ্টা করতে পারেন। আপনি এই টিউনের লিংক ছড়িয়ে দিন অনলাইনে, বিভিন্ন বিদেশিদের ফেসবুকের গ্রুপে, টুইটারে, অন্যান্য বিদেশি ব্লগ কিংবা ফোরামে। ফেসবুক গ্রুপে অ্যাফিলিয়েট লিংক শেয়ার করে তো কোন লাভ নেই, মানুষ সেই লিংকে ক্লিক করবে না। আমাদের দেশের মানুষ তো “একি করলেন দেবর-ভাবি, দেখুন ভিডিও সহ” এই রকম বাজে লিংকে হরহামেশা ক্লিক করে। কিন্তু বিদেশিরা এই বিষয়ে অনেক সাবধান। তারা সহজে অ্যাফিলিয়েট লিংকে ক্লিক করে। ফলে আন্তর্জাতিক মানের সাইটে একটি টিউন করে এসে আপনি যদি লিংকটা গ্রুপে গ্রুপে শেয়ার করেন, তাহলে আপনার জন্য রিডার পাওয়া এবং সেল করা অনেক ইজি হবে।

যাদের ওয়েবসাইট আছে, তাদের জন্যঃ 

যাদের নিজস্ব ওয়েবসাইট আছে, তাদের জন্য নিজের সাইটের ব্যাকলিংক করার দারুণ জায়গা হতে পারে FXProfita। আমি বেশ কৌশলে আমার নিজের সাইটের অনেক গুলা ভাল ব্যাক লিংক করেছি এখানে। আপনারা যারা এসইও সম্পর্কে জানেন, তারা জানেন একটা ভাল ব্যাক লিংক এর গুরুত্ব কত খানি। আপনার সাইটি ফিন্যান্সিয়াল প্রডাক্ট নিয়েই হতে হবে এমন না, তবে সাইটে যদি ফিন্যান্সিয়াল বিষয়ে একটা টিউন থাকে বা নিউজ থাকে, তাহলে ঐ টিউনের ব্যাক লিংক করতে পারেন। তবে এখানে একটা জিনিস বলে রাখা ভাল, আপনার সাইটটি অবশ্যই ইংরেজিতে হতে হবে। FXProfita ওয়েবসাইটের ভিজিটররা যেহেতু বিদেশি, তারা আপনার সাইটের বাংলা বুঝবে না। ফলে তারা আপনার সাইটে বেশিক্ষন থাকবে, খামাখা বাউন্স রেট বাড়বে।

সব কথার শেষ কথা

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে স্বাবলম্বী হয়েছে, নিজের কর্ম সংস্থান নিজেই করেছে, এমন ছেলেপিলের অভাব নেই ভাই। এই কাজে যেমন সমস্যার মুখে পড়তে হবে আপনাকে, তেমনি সমাধানের রাস্তাও আছে। বুদ্ধি খাটিয়ে, পরিশ্রম করে আর সময় ক্ষেপণ করে যে এই লাইনে টিকে থাকতে পারবে, তার সফলতা নিশ্চিত।

তাহলে আর দেরি কেন? আজই রেজিস্ট্রেশন করে টিউন করা শুরু করে দিন FX Profita সাইটে।

ওহ, ভাল কথা! এই টিউনে দেওয়া আমার লিংকগুলাতে ক্লিক করতে কেউ ভয় পাবেন না! এইগুলো কোন অ্যাফিলিয়েট লিংক না!

এই জাতীয় আরো টিউন

আপনিও লিখুন মতামতের উত্তর

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

10 − 8 =